ঢাকা, শনিবার,২৫ মার্চ ২০১৭

আরো খবর

অভিযোগ বাপার

গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ভাগাড় স্থাপন করে পরিবেশের ক্ষতি করছে সিটি করপোরেশন

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ মার্চ ২০১৭,মঙ্গলবার, ০০:২৯


প্রিন্ট

বাপার সাধারণ সম্পাদক ডা: মো: আব্দুল মতিন অভিযোগ করেছেন, সিটি করপোরেশন নির্দিষ্ট জায়গায় সঠিক ব্যবস্থাপনায় বর্জ্য অপসারণ না করে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ময়লার ভাগাড় স্থাপন করে পরিবেশের ক্ষতি এবং ঢাকার সৌন্দর্য নষ্ট করছে। তিনি বলেন, মেয়রের কাছে অনুরোধ তারা যেন সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে শহরের সুস্থ পরিবেশ নিশ্চিত করেন।
রাজধানীর পান্থপথে (শমরিতা হাসপাতালের পশ্চিমে) ‘পান্থপথের চালু রাস্তায় ভাগাড় অবিলম্বে বন্ধ করা হোক’ দাবিতে মানববন্ধনে গতকাল তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, সিটি করপোরেশন অনেক অর্থ ব্যয় করে ঢাকাকে উন্নত করার জন্য; কিন্তু ঢাকা শহরকে সুস্থ ও সুন্দর করার জন্য প্রয়োজন সুষ্ঠু পরিকল্পনা ও তার বাস্তÍবায়ন।
পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), ওয়াইএসএসই, সেরিদ, এসইএল চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন, পান্থপথ-কলাবাগান এলাকাবাসী, নিরাপদ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের যৌথ আয়োজনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
এতে নিরাপদ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ইবনুল সাইদ রানা বলেন, রাজধানীর অন্যতম এবং ব্যস্ততম সড়ক এখন পান্থপথ। আন্তর্জাতিক মানের তিনটি হাসপাতালসহ অনেক অফিস এখন পান্থপথে। রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও। সোনারগাঁও হোটেল থেকে রাসেল স্কোয়ার পর্যন্ত সড়কটি সারাক্ষণ ব্যস্ত থাকে নানা পেশার লোকের পদচারণায়। চলাচলের জন্য বঙ্গবন্ধুর বাড়ির ঠিকানা ৩২ নম্বর সড়কে মিশেছে এই পান্থপথ। এই পথে ভাগাড় থাকায় প্রতিদিন চলাচলরত শিশু-বৃদ্ধ সবাই নানা রোগজীবাণুর সংক্রমণ নিয়ে ঘরে ফিরছে। উল্লেখ্য, ভাগাড়টি জনগণের যাতায়াতের রাস্তা পান্থপথের মূল সড়কে (ঈগলু আইসক্রিমের কারখানা এবং এসইএল সেন্টার কার্যালয়ের সামনে) স্থাপন করা হয়েছে।
বাপার যুগ্ম সম্পাদক মিহির বিশ্বাস বলেন, পশ্চিম পান্থপথের এই সড়কের মাঝখানে কলাবাগান ও তার আশপাশের ময়লা এনে ভাগাড় বসানো হয়েছে। ফুটপাথ অচল করে এমনভাবে ভাগাড় স্থাপন করা হয়েছে যে, দুর্গন্ধের কারণে এখন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও হাসপাতালে আসার সড়ক দিয়ে হেঁটে চলাচলের কোনো ব্যবস্থা বা উপায় থাকছে না। যা পরিবেশ ও মানবস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং ছড়াচ্ছে নানা ধরনের রোগবালাই। তা ছাড়া দুর্গন্ধের কারণে নাকে হাত বা কাপড় চাপা দিয়েও হাঁটতে কষ্ট হয় পথচারীদের। ঢাকা শহরে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে, কিন্তু মান বাড়েনি।
উন্ন্য়ন ধারা ট্রাস্টের সদস্য সচিব আমিনুর রসুল বাবুল বলেন, আমরা ভোট দিয়েছিলাম নগরজীবনের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য, দুর্ভোগ বাড়ানোর জন্য নয়। নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দেবেন আর নির্বাচনের পরে ভুলে যাবেন নাগরিকের কথা, এমন দ্বৈত আচরণ নগরবাসী চায় না। আমরা আশা করি, মেয়রগণ নগরবাসীর অধিকার সম্পর্কে আরো দায়িত্ববান হবেন। মানববন্ধন থেকে দাবি জানানো হয় : অবিলম্বে সব চলাচলের রাস্তা থেকে ভাগাড় সরিয়ে নেয়া হোক। সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যঝুঁকি কমাতে এবং নির্বিঘেœœ রাস্তায় চলাচল নিশ্চিত করতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত জায়গায় সঠিক ব্যবস্থাপনায় বর্জ্য অপসারণ করা হোক।
বাপার সাধারণ সম্পাদক ডা: মো: আব্দুল মতিনের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বদেশ মৃত্তিকা মানব উন্নয়ন সংস্থার চেয়ারম্যান মো: আকবর হোসেনসহ আয়োজক সংগঠনের সদস্য ও নেতৃবৃন্দ, আশপাশের বিভিন্ন অফিস ও প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী ও কর্মকর্তা, অফিসগামী জনগণ ও পান্থপথ-কলাবাগান এলাকাবাসী।

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫