ঢাকা, শনিবার,১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

শেষের পাতা

অবৈধ কর্মীদের ৯০ দিন সময় দিলো সৌদি সরকার

নির্ধারিত সময়ে না ফিরলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা ; বাংলাদেশীর সংখ্যা এক লাখ ছাড়াতে পারে ; সাধুবাদ জানিয়েছেন প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী

মনির হোসেন

২১ মার্চ ২০১৭,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

বিদেশী শ্রমিকদের মধ্যে যারা শ্রম আইন লঙ্ঘন করেছেন, তাদের জন্য ৯০ দিনের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণার করেছে সৌদি আরব সরকার। এই সময়ের মধ্যে নিজ নিজ দেশে ফিরে যেতে পারবেন তারা।
গত রোববার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ‘এ নেশন উইদাউট ভায়োলেশন’ কর্মসূচির আওতায় এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। ২৯ মার্চ থেকে পরবর্তী তিন মাসের জন্য এ ‘সাধারণ ক্ষমার’ সুবিধা পাবেন দেশটিতে কর্মরত অবৈধ বিদেশী শ্রমিকেরা। জানা গেছে, সৌদি আরবে এ ধরনের বাংলাদেশী শ্রমিকের সংখ্যা লক্ষাধিক।
আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়ে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের উপ-প্রধানমন্ত্রী ও যুবরাজ মোহাম্মদ বিন নায়েফ আইন ভঙ্গকারীদের ৯০ দিনের সাধারণ ক্ষমার সুযোগ গ্রহণের আহ্বান জানান।
তিনি বলেছেন, বসবাসের অনুমতি ছাড়া অবস্থান, কর্মরত শ্রমিক ও অবৈধ অনুপ্রবেশকারীরা এই ক্ষমার সুযোগ নিয়ে সৌদি আরব ত্যাগ করতে পারবেন। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যারা ওই দেশ ত্যাগ করতে ইচ্ছুক তাদের জন্য সব ধরনের পদ্ধতি সহজ করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ইতোমধ্যে নির্দেশ দিয়েছেন সৌদি উপ-প্রধানমন্ত্রী।
এ ছাড়া অবৈধদের ওপর থেকে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মেজর জেনারেল মনসুর আল-তুর্ক বলেছেন, ১৯টি সরকারি সংস্থা এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে। অন্যান্য ভিসার মেয়াদপূর্তি এবং হজ ও ওমরাহ সম্পন্নের পর যারা এখনো দেশটিতে রয়ে গেছেন তাদের জন্য এই সাধারণ ক্ষমার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দেশটির পাসপোর্ট ও অভিবাসন বিভাগ ইতোমধ্যে আইনভঙ্গকারীদের দেশে ফেরত পাঠাতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।
আল তুর্ক বলেছেন, যাদের পরিচয়পত্র নেই অথবা হজ ভিসার মেয়াদ শেষের পরও যারা এখনো সৌদি আরবে অবস্থান করছেন, তারা অবশ্যই পাসপোর্ট বিভাগের কাছের কার্যালয়ে গিয়ে দেশে ফেরার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবেন।
অবৈধভাবে কর্মরত, আবাসনের অনুমতি ছাড়া বসবাসকারী অথবা আত্মগোপনে থাকা শ্রমিকদের কাজ না দিতে সৌদি নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আল তুর্ক। তিনি বলেছেন, নির্ধারিত সময়ের পরে যারা সৌদি আরবে অবস্থান করবেন তাদের বিরুদ্ধে জরিমানাসহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেই সময় আইন লঙ্ঘনকারীদের বিষয়ে কারো কাছে কোনো তথ্য থাকলে তা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে পুলিশকে জানাতেও তিনি অনুরোধ জানান।
দীর্ঘ দিন ধরে সৌদি আরবের জেদ্দায় ব্যবসায় করছেন রুহুল আমিন মিন্টু। তিনি গতকাল নয়া দিগন্তকে বলেন, সৌদি আরবে বিভিন্ন কারণে এখনো লক্ষাধিক বাংলাদেশী অবৈধভাবে কাজ করছেন।
গতকাল সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি নয়া দিগন্তকে বলেন, আমরা সৌদি সরকারের এ ঘোষণাকে ওয়েলকাম করি। এটা সুন্দর একটা উদ্যোগ। এমনেস্টি দেয়ার উদ্দেশ্য হচ্ছে অবৈধভাবে যারা রয়েছে তাদের কোনো ফাইন বা জেল ছাড়াই তারা এক্সিট দিয়ে দেবে। এটা আমাদের জন্য বিরাট উপকার হবে। তবে খুব বেশি একটা অবৈধ শ্রমিক নেই জানিয়ে তিনি বলেন, কারণ তিন বছর আগে এমনেস্টি দেয়ার সময় তখনো আমরা অনেক অবৈধ শ্রমিক ক্লিয়ার করে ফেলি।
এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, নিয়মানুযায়ী কাজ ইমিডিয়েটলি আমরা শুরু করব। তিনি বলেন, সৌদি আরবে অবৈধ কয়েক লাখ শ্রমিক থাকার প্রশ্নই উঠে না। যদিও থাকে তাহলে সর্বোচ্চ লাখের ওপর হতে পারে।
গতকাল সোমবার সন্ধ্যার আগে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসির উদ্ধতি দিয়ে তার ব্যক্তিগত সহকারী এ প্রতিবেদককে বলেন, মন্ত্রী এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আমি সৌদি আরব সরকারের সাধারণ ক্ষমার ঘোষণাকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। একইভাবে যারা অবৈধভাবে দেশটিতে অবস্থান করছে তাদের অনুরোধ জানাব, তারা যেন সৌদি সরকারের নির্দেশনা মেনে দেশে ফিরে আসে।
অভিবাসন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সৌদি সরকারের দেয়া সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা মোতাবেক অবৈধ লোকদের ৯০ দিনের মধ্যে দেশে চলে আসা উচিত। কারণ অবৈধ লোকদের কারণে দেশের ইমেজ ক্ষুণœ হচ্ছে। শুধু ইমেজ ক্ষুণœ নয়, বৈধপথে মাইগ্রেশনও তাদের কারণে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। সরকারের উচিত এসব অবৈধ মাইগ্রেশনের সাথে যারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা। তাহলেই কেবল জনশক্তি রফতানিতে ফিরে আসতে পারে শৃঙ্খলা।
তিন বছর আগে একই ধরনের কর্মসূচির মাধ্যমে সৌদি আরবে বসবাসকারী অন্তত ২৫ লাখ অবৈধ শ্রমিককে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হয়। এবারো বিতাড়িত বিদেশী শ্রমিকের সংখ্যাটা বড় হবে বলে মনে করছে দেশটির সরকার।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫