ঢাকা, মঙ্গলবার,২৫ এপ্রিল ২০১৭

নগর মহানগর

সবুজবাগে স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানি

আ’লীগ নেতা মাসুদ পারভেজ আকন্দের জামিন নাকচ

আদালত প্রতিবেদক

২১ মার্চ ২০১৭,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে সবুজবাগ থানায় দায়ের করা মামলা স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মাসুদ পারভেজ আকন্দের জামিন নাকচ করা হয়েছে। ঢাকার পূর্ব বাসাবো এলাকায় স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে করা মামলায় গ্রেফতারকৃত স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মাসুদ পারভেজ আকন্দেরে ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সবুজবাগ থানার এসআই সাত দিনের রিমান্ড চান। আসামিপক্ষ রিমান্ড আবেদন বাতিল করে জামিন চায়। ঢাকার মহানগর হাকিম দেলোয়ার হোসেন উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে রিমান্ড ও জামিনের আবেদন নাকচ করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।
রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, এ আসামির বিরুদ্ধে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। আগেও এ আসামি এরূপ ঘটনা ঘটিয়েছেন। মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ও প্রকৃত রহস্য উদঘাটন এবং তার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতারের জন্য সাত দিনের রিমান্ডে নেয়া প্রয়োজন। আসামি প্রভাবশালী, তাকে জামিন দিলে মামলার তদন্তে বিঘœ ঘটতে পারে। সেজন্য তাকে জামিন না দিয়ে রিমান্ড দেয়া প্রয়োজন।
অন্য দিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী ঢাকা বারের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম বাচ্চু রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন শুনানি করেন। তিনি বলেন, ‘মাসুদ পারভেজ স্কুলের গভর্নিং বডির সদস্য। পাশাপাশি তিনি ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তার খ্যাতিতে ঈর্ষান্বিত হয়ে গভর্নিং বডির সদস্যরা এবং অন্যরা মিলে তাকে ফাঁসিয়েছেন। তিনি পরিস্থিতির শিকার। তাকে সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করতে ফাঁসানো হয়েছে। তাই তার রিমান্ড আবেদন নাকচ করে জামিন দেয়া প্রয়োজন। আদালত উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে রিমান্ড ও জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।
উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ কদমতলা পূর্ব বাসাবো স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে স্কুলের এক নারী স্টাফ জানান, মাসুদ পারভেজ তাকে ডেকেছেন। পরে ভিকটিম আসামির সঙ্গে দেখা করেন। আসামি তাকে সাজেশন দেয়ার কথা বলে তার ব্যক্তিগত অফিসে নিয়ে যান এবং শ্লীলতাহানি করেন। পরে ওই ছাত্রী চিৎকার দিয়ে দৌঁড়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় ভিকটিম নিজে বাদি হয়ে গত ১৮ মার্চ সবুজবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করে। ১৯ মার্চ মাসুদ পারভেজকে গ্রেফতার করে পুলিশ।  

 

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫