ঢাকা, শুক্রবার,২৩ জুন ২০১৭

ক্রীড়া দিগন্ত

ড্র হলো রাঁচি টেস্ট

ক্রীড়া ডেস্ক

২১ মার্চ ২০১৭,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

চতুর্থ দিন শেষে সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে রাঁচি টেস্ট জয়ের স্বপ্ন দেখছিল স্বাগতিক ভারত। কিন্তু পঞ্চম দিনে দুই অসি মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান শন মার্শ ও পিটার হ্যান্ডসকম্বের ব্যাটিং দৃঢ়তায় শেষ পর্যন্ত ড্র হলো সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। পঞ্চম উইকেট জুটিতে মার্শ ও হ্যান্ডসকম্বের ৩৭৩ বল মোকাবেলাতে ড্র হয় টেস্টটি। এই ড্রতে চার ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতাই থাকল। প্রথম ইনিংসে ১৫২ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিন নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। দিন শেষে ২ উইকেটে ২৩ রান তুলেছিল স্টিভেন স্মিথের দলটি। ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নাকে ১৪ ও নাইটওয়াচম্যান নাথান লিঁওকে ব্যক্তিগত ২ রানে শিকার করে ভারত জয়ের স্বপ্ন দেখার সুযোগ করে দেন বাঁ হাতি স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা। ভারতের স্বপ্নকে ধূলিসাৎ করার মিশন নিয়ে পঞ্চম দিনের শুরু থেকেই সতর্ক অবস্থানে অস্ট্রেলিয়া। রানের দিকে চোখ না দিয়ে উইকেট বাঁচিয়ে ক্রিজে টিকে থাকার মিশন শুরু করেন ৭ রানে অপরাজিত থাকা ওপেনার ম্যাট রেনশ। লড়াইয়ে দিনের শুরুতে সঙ্গী হিসেবে পেয়ে যান প্রথম ইনিংসে ১৭৮ রানে অপরাজিত থাকা অধিনায়ক স্মিথকে।
৬৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া আরো চাপে পড়ে যাওয়ায় ভারতের জয়ের স্বপ্ন বেড়ে যায়। কিন্তু সেই স্বপ্নে বাদ সাধেন অস্ট্রেলিয়ার দুই ব্যাটসম্যান মার্শ ও হ্যান্ডসকম্ব। ভারতীয় বোলারদের সমীহ করে নিজেদের লড়াই শুরু করেন দু’জন। উইকেট কামড়ে ধরে ভারতীয় বোলারদের ৩৭২টি ডেলিভারিতে বিপদ ছাড়াই পার করে দেন মার্শ ও হ্যান্ডসকম্ব। কিন্তু তাদের জুটির ৩৭৩ নম্বর ডেলিভারিটিতে ঘটে বিপদ। জাদেজার চতুর্থ শিকারে তীব্র লড়াইয়ের থেমে যায় মার্শের ১৯৭ বলের ইনিংসটি। ৭টি চারে ৫৩ রান করা মার্শকে বিদায় দেন জাদেজা। দিনের খেলা শেষ হওয়ার ৫২ বল আগে থামেন মার্শ। ততক্ষণে লিডও নিয়ে নেয় অস্ট্রেলিয়া। সেটি ছিল খুবই ছোট, ৩৫ রানের। তবে ভাগ্য ঠিকই নির্ধারণ করে দেন মার্শ-হ্যান্ডসকম্ব। ভারতের জাদেজা ৫৪ রানে ৪ উইকেট নেন। প্রথম ইনিংসে ২০২ রান করায় ম্যাচের সেরা হয়েছেন ভারতের চেতেশ্বর পূজারা। ধর্মশালায় আগামী ২৫ মার্চ শুরু হবে সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্ট।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫