ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৫ মে ২০১৭

মুক্তকলম

বুটের তলায় মানবতা!

২১ মার্চ ২০১৭,মঙ্গলবার, ০০:০০


প্রিন্ট

মিয়ানমারের সেনাদের বুটের আঘাতে পিষ্ট হচ্ছে মানবতা। কোনো কিছুরই তোয়াক্কা করছে না তারা। সে দেশে সেনারা নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণ এবং ঘরবাড়ি, মসজিদ, ফসল পোড়ানোসহ সব রকম অত্যাচার চালাচ্ছে রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর। তারপরও মিয়ানমার সেনাদের হাতের পুতুল শান্তিতে নোবেল জয়ী অং সান সু চির মতোই নীরব বিশ্বমোড়লেরা। অন্ন, বস্ত্র, শিক্ষা ও চিকিৎসার মতো মানবিক অধিকার থেকে প্রতিনিয়ত বঞ্চিত; রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর কখনো সুনজর পড়েনি তাদের। এরা তেল, ইউরেনিয়ামের মতো মূল্যবান সামগ্রীর লোভে শান্ত জনপদকে অশান্ত করে গণতন্ত্রের বুলি আউড়িয়ে। বিশ্বমোড়লদের নিশ্চুপতার সুযোগে মিয়ানমার সেনাদের অত্যাচারে লাশ হওয়া মানুষের চেহারার সাথে হিংস্র জানোয়ারের দ্বারা আক্রান্ত হরিণশাবকটির মৃতদেহের মিল খুঁজে পাওয়া যায়। জাতিসঙ্ঘ, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, ওআইসি, সার্কসহ আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলো মিয়ানমার সরকারকে রোহিঙ্গা মুসলিমদের প্রাপ্য অধিকার নিশ্চিত করতে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে একটু জোরগলায় দুটো শব্দ ব্যয় করার প্রয়োজন মনে করছে না! মানবতার লেবাসধারীদের এই দু’মুখো নীতি বা কাপুরুষতা খুবই দুঃখজনক।
অথৈ সাগরের মাঝে সামান্য এক টুকরো তক্তায় ভেসে থাকা প্রাণীর কাছ থেকে তক্তাটুকু কেড়ে নিয়ে সেই প্রাণীটিকে হত্যা করা চরম বর্বরতা; তেমনি জন্ম থেকেই মানবিক অধিকারবঞ্চিত রোহিঙ্গা মুসলিমদের শেষ আশ্রয়স্থল মাতৃভূমি থেকে তাদের হত্যা ও অত্যাচারে বিতাড়িত করে নিশ্চিত মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়া মনুষ্যত্বহীনতার নগ্ন পরিচয়।
রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর আবাসস্থল আমাদের সীমান্ত-ঘেঁষা রাখাইন রাজ্য বা আরাকান। রোহিঙ্গা মুসলিম নিধন, মিয়ানমারের সৈন্যদের এ অত্যাচার সমগ্র মানবতার বিরুদ্ধে। নিকট ভবিষ্যতে এ রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অব্যাহত আগ্রাসন নির্যাতনে বাংলাদেশের নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়বে। আন্তর্জাতিকভাবে অথবা দুই দেশের সমঝোতায়, যেভাবে হোক রোহিঙ্গা মুসলিমদের গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত করে মিয়ানমার সরকার শিগগিরই রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে আমাদের প্রধানমন্ত্রীর সাহসী পদক্ষেপে রাষ্ট্রের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। অন্যথায় মিয়ানমার আমাদের দুর্বল মনে করবে, যা আমাদের জন্য শুভ হবে না।
সুজন
tomsujon99gmail.com

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫