ঢাকা, সোমবার,২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ফ্যাশন

পোশাকে স্বাধীনতা দিবস

জারীন তাসনিম

২০ মার্চ ২০১৭,সোমবার, ১৯:১১


প্রিন্ট

শুধু ব্যবসায়িক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে নয়, বিষয়টিকে দেখতে হবে দেশাত্মবোধ ও দেশের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর মনোভাব নিয়ে। স্বাধীনতা দিবসের পোশাকের আয়োজন কেউ কেউ পরিবারের সবার জন্যও করে থাকে। কারণ অনেকেই পুরো পরিবারের জন্য দিবসভিত্তিক পোশাক কিনে থাকেন।
দিবসভিত্তিক আয়োজনে তরুণদের আগ্রহ বেশি দেখা যায়। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রাইয়ান জুনায়েদ সবুজের মধ্যে হলুদ রঙে মানচিত্র আঁকা একটি টি-শার্ট কিনছিলেন আজিজ সুপার মাকের্টের একটি দোকান থেকে। জানালেন, পোশাকটি কিনছেন স্বাধীনতা দিবসে পরার জন্য। তার মতে, স্বাধীনতা রক্ষার বিষয়ে আমাদের হতে হবে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। কারণ স্বাধীনতা আমাদের দিয়েছে নিজস্ব মাতৃভূমি, স্বীয় পরিচিতি, একটি পতাকা। লোক দেখানোর জন্য নয়, অন্তর থেকে ধারণ করতে হবে এর গুরুত্ব ও অবদান।
প্রতি বছর নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন করা হয় স্বাধীনতা দিবস। আর এ সবকিছুর মূলেই রয়েছে স্বাধীনতার চেতনাকে উজ্জীবিত রাখা। জাতীয় চেতনাকে তুলে ধরার ক্ষেত্রে পোশাকও এখন অন্যতম একটি মাধ্যম। কয়েক বছর ধরে এ কাজটা খুবই আন্তরিকতার সাথে করে যাচ্ছেন আমাদের ফ্যাশন ডিজাইনাররা।
এ বছরও নিজেদের দেশাত্মবোধ ও সৃজনশীরতাকে কাজে লাগিয়ে স্বাধীনতা দিবসের নান্দনিক ডিজাইন ও রঙের পোশাক তৈরি করে শোরুমগুলো সাজিয়ে তুলেছে ফ্যাশন হাউজগুলো। পোশাকের মধ্য দিয়ে দেশাত্মবোধের চেতনায় উদ্দীপ্ত করা এবং আমাদের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার ক্ষেত্রে তাদের এই প্রচেষ্টা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে নিঃসন্দেহে। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম এই নতুন চেতনাকে গ্রহণ করেছে উৎসাহের সাথে।
সব ধরনের পোশাকের মধ্যেই স্বাধীনতা দিবসের প্রেরণাকে তুলে ধরা হয়। তবে টি-শার্টে এই আয়োজন বেশি দেখা যায় এবং টি-শার্টের জনপ্রিয়তাও বেশি।
মূলত আমাদের জাতীয় পতাকার লাল-সবুজ রঙ বেছে নেয়া হয় পোশাকের রঙ হিসেবে। মানচিত্র, পতাকার লাল সূর্য, স্মৃতিসৌধ, কবিতার পঙ্ক্তি প্রভৃতির মাধ্যমে পোশাকে ফুটিয়ে তোলে স্বাধীনতা দিবসের চেতনা। এ ছাড়াও বিভিন্ন প্রতীকী চিত্রও ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
এসব আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য বাংলাদেশ, আমাদের মাতৃভূমি, মহান মুক্তিযুদ্ধ, আমাদের বিজয়কে তুলে ধরা। আমাদের গর্ব অহঙ্কার পোশাকের মাধ্যমে ধারণ করা। তরুণ প্রজন্মের কাছে মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগ, তিতিক্ষা ও বীরত্বগাথা পৌঁছে দেয়া। তাই জাতীয় দিবসভিত্তিক যেকোনো আয়োজনে পোশাকের মাধ্যমে তুলে ধরতে হলে তার প্রতি খুবই যতœশীল হওয়া প্রয়োজন। আমাদের গৌরব যেন যথাযথ সম্মানজনক অবস্থানে থাকে সেই বিষয়গুলোর প্রতি সচেতন হয়েই ফ্যাশন ডিজাইনারদের কাজ করতে হবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫