একই সাথে ২০টি ময়ূরের রহস্যজনক মৃত্যু

নয়া দিগন্ত অনলাইন

ভারতের তামিলনাড়ুর ভিল্লুপুরামের জঙ্গল থেকে সোমবার সকালে উদ্ধার হয়েছে ২০টি ময়ূরের মৃতদেহ। তবে কী কারণে একসঙ্গে এত ময়ূরের মৃত্যু হয়েছে সে বিষয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তে মনে করা হচ্ছে, বিষ প্রয়োগের ফলেই মৃত্যু হয়েছে ময়ূরগুলোর। রাতের অন্ধকারে জঙ্গলে প্রবেশ করে চোরাশিকারিরা। তারাই পালকের লোভে ময়ূরগুলোকে বিষ খাইয়ে মেরেছে বলে তদন্তকারীদের অনুমান। মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে ময়ূরের দেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় মানুষের দাবি, প্রায়ই পুদুচেরি থেকে চোরাশিকারিরা সপ্তাহান্তে তামিলনাড়ুর জঙ্গলে এসে ময়ূর, হরিণ, খরগোশ এবং বিভিন্ন পাখি শিকার করে। বিভিন্ন পানশালা ও রেস্তোরাঁয় এইসব প্রাণীর গোশত বিক্রি হয়। একই কারণে হয়তো এই ময়ূরগুলোকেও হত্যা করা হয়েছে।

বন্যপ্রাণ রক্ষা আন্দোলনকারীরা অবশ্য এই ঘটনার জন্য স্থানীয় কৃষকদের সন্দেহ করছেন। তাদের মতে, ক্ষেতে ময়ূরের উৎপাত বন্ধ করার জন্য শস্যে বিষ মিশিয়ে ময়ূরগুলোকে খেতে দেওয়া হয়েছিল। যার জেরেই মৃত্যু হয়েছে ময়ূরগুলোর।

তামিলনাড়ুর বন বিভাগ ও পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। তামিলনাড়ু চোরাশিকার বন্ধ করার উদ্যোগ নিলেও পুদুচেরির বন বিভাগ নিষ্ক্রিয় বলে অভিযোগ স্থানীয় মানুষের। পুদুচেরিতে ময়ূরের পালক দিয়ে তৈরি বিভিন্ন শৌখিন জিনিসপত্র বিক্রি হয়। সেটা বন্ধ করার জন্য পুলিশকে ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন বন্যপ্রাণ রক্ষা আন্দোলনকারীরা।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.