ঢাকা, সোমবার,২৭ মার্চ ২০১৭

অপরাধ

আশকোনায় নিহত উগ্রবাদী জুয়েলের বাড়ি ফরিদপুরের ভাঙ্গায়

ফরিদপুর ও ভাঙ্গা সংবাদাতা

১৯ মার্চ ২০১৭,রবিবার, ১৭:৫৬


প্রিন্ট

ঢাকার আশকোনায় নিহত উগ্রবাদী জুয়েল রানার বাড়ি ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার মানিকদহ ইউনিয়নের আদমপুর গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের আলমগীর হোসেন ও জহুরা পারভীনের পুত্র। তিন ভাইয়ের মধ্যে জুয়েল সবার বড়। বাবা আলমগীর গাড়ি চালক।

গত শুক্রবার বিকেলে আশকোনায় আত্মঘাতী হামলায় নিহত হন জুয়েল রানা।

জুয়েলের বাবা-মায়ের দাবি, জুয়েলের সাথে তাদের কোনো সম্পর্ক ছিল না। সে বাড়িতে আসতো না।

এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজনরা জানান, জুয়েল রানা ওরফে আলিফ প্রথম স্ত্রীকে ডির্ভোস দেয়ার পর প্রায় ১০ বছর পূর্বে দোহারের জয়পাড়া এলাকায় দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সেখানে তিনি দোহার জয়পাড়া এলাকায় ডেন্টাল চিকিৎসক হিসেবে একটি চেম্বার দেন।

জুয়েলের চাচা শেখ মুরাদ জানান, শুক্রবার রাতে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্য পরিচয়ে জুয়েলের পরিবারের আট সদস্যকে ধরে নিয়ে যায়। পরদিন শনিবার তাদের বাড়িতে দিয়ে যায় দিয়ে যায়। জুয়েলের ব্যাপারে পরিবারের সদস্যদের কাছে তারা বিভিন্ন বিষয় জানতে চায়। তারা যা জানতো তা আইনশৃংখলা বাহিনীকে জানানো হয়েছে।

ভাঙ্গা থানার এসআই মজিবর জানান, তিনি রোববার বেলা ২টার সময়ে নিহত উগ্রবাদী জুয়েল রানার বাড়ি আদমপুর গ্রামে যান। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন বাড়িতে কোনো লোকজন নেই। তাদের সব ঘর তালাবদ্ধ। তার নাম পরিচয় সঠিক আছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫