ঢাকা, সোমবার,১১ ডিসেম্বর ২০১৭

রাজশাহী

রাণীনগরে নারীর রহস্যজনক মৃত্যু 

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) 

১৯ মার্চ ২০১৭,রবিবার, ১৫:০৮


প্রিন্ট

নওগাঁর রাণীনগরে ইউনিয়ন যুবলীগ নেতার স্ত্রী দুই সন্তানের জননীর নিলুফা বেগম (২৬) এর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে । নিলুফা উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের ধনপাড়া গ্রামের মনিরুল ইসলাম রনির স্ত্রী। ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করছে স্বামীর পরিবার।এলাকায় ব্যাপক গুঞ্জন চলছে নিলুফা আতœহত্যা করেছে নাকি তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে । অনেক দেন-দরবার শেষে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিলি’র মৃতদেহ উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য প্রেরণ করেছে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের ধনপাড়া গ্রামের ছলিমুদ্দিনের ছেলে মনিরুল ইসলাম রনি’র সাথে গত ১২ বছর আগে পারিবারিক আয়োজনে অনেক ধুমধাম করে একই গ্রামের আলেফ উদ্দিনের মেয়ে নিলি’র বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে কারণে অকারণে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকতো। এর মাঝে তাদের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে জন্ম নেয়। নিলুফা আতœহত্যা করেছে নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে তা স্পষ্ট নয় । নিলুফার মৃত্যু নিয়ে ওই রাতেই বিষয়টি নিরসনের জন্য কয়েকদফা বৈঠক বসেছিল ।
শুক্রবার রাত অনুমান দেড়টার দিকে ওড়না পিঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি করেন নিলি’র স্বামী মনিরুল ইসলাম রনি। শুক্রবার সকালে লাশ উদ্ধারের জন্য পুলিশ ঘটনাস্থলে আসছে এমন সংবাদ পেয়ে এক পর্যায়ে মনিরুল পালিয়ে যায়। কিন্তু পুলিশ মোবাইল ফোনে রনিকে লাশের কাছে আসতে বললে অনেক তাল-বাহানার এক পর্যায়ে ওই গ্রামের কতিপয় মোড়লের পরামর্শে ঘটনাস্থলে রনি এসেই নাটকীয় ভাবে হাউমাউ করে কেন্দে উঠে বর্ণনা দেয় তার স্ত্রী নিজের ওড়না গলায় পিঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে রনি দাবি করেন, রাতে খাবার শেষে বিশেষ কাজে তিনি বাড়ির বাহিরে গিয়েছিল। রাত অনুমান দেড়টার দিকে বাড়িতে ফিরলে নিলি’র ঝুলন্ত দেহ দেখে রনি নিজেই নামিয়ে রেখে পরিবারের লোকজনকে ডেকে নিয়ে আসে।
নিলুফার এক নিকট আতœীয় ইমরান হোসেন সাংবাদিকদের জানান, নিলুফাকে হত্যা করা হয়েছে বলে আমাদের কাছে মনে হচ্ছে । বিয়ের পর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মাঝখানে সর্ম্পক ভাল থাকলেও কিছু দিন হলো তাদের মধ্যে সর্ম্পক ভাল চলছিল না। নিলুফা কোন অবস্থাতেই আতœহত্যা করতে পারেনা ।
এব্যাপারে ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস,আই মোস্তাফিজুর রহমান জানান,নিলুফার শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন দেখা যায়নি।
রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোন্তাফিজুর রহমান জানান, খবর পেয়ে আমি নিজে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ দেখে আমার সন্দেহ হওয়ায় ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করি। তবে আমি যতটুকু জেনেছি তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ভাল সর্ম্পক ছিল না। মাঝে মধ্যেই রনি তার স্ত্রী নিলিকে মারপিট করতো। এটা হত্যা না আত্মহত্যা তা ময়না তদন্ত শেষে জানা যাবে। যদি হত্যাকান্ড হয়েই থাকে তাহলে ঘাতকে অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে। এব্যাপারে রাণীনগর থানায় নিলি’র মামা উপজেলার হরিশপুর গ্রামের ছহির উদ্দিন বাদি হয়ে এক ইউডি মামলা করেছে।
অপরদিকে নওগাঁর রাণীনগরে সোনাভান বিবি (৬৫) নামের এক বৃদ্ধা গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আতœহত্যা করেছে । পারিবারিক কলহের জে¦র ধরে বৃহস্পতিবার রাতে তিনি আতœহত্যা করেন। সোনাভান উপজেরার সিলমাদার গ্রামের ফাইবর রহমানের স্ত্রী ।
স্থানীয় ও পারিবারিক সুত্রে জানাগেছে, বৃহস্পতিবার রাতে খাবার খেয়ে এক সঙ্গে ঘুমাতে যায় । এর পর রাত অনুমান ৯টা নাগাদ তিনি ইদুর মারা গ্যাসের ট্যাবলেট খেয়ে ছট ফট করতে থাকে । এসময় লোকজন দেখতে পেয়ে তাকে রাণীনগর হাসপাতালে নেবার সময় পথি মধ্যে মারা যায় । স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক কলহের জে¦র ধরে সে আতœ হত্যা করেছে বলে জানাগেছে ।
এঘটনায় রাণীনগর থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ মর্গে প্রেরন করেছেন বলে ওই মামলা তদন্ত কর্মকর্তা এসআই জহুরুল ইসলাম জানান।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫