ঢাকা, সোমবার,২৪ এপ্রিল ২০১৭

রাজশাহী

পিতাকে পিটালেন পুলিশের এসআই 

নওগাঁ সংবাদদাতা

১৯ মার্চ ২০১৭,রবিবার, ১৫:০৩


প্রিন্ট

কোটি টাকার বাড়িঘর জাল দলিলমুলে নিজের নামে লিখে নেয়ার বিরুদ্ধে কোর্টে জাল দলিল রহিতকরণের মামলা দায়ের করায় পুলিশ এক এসআইয়ের বিরুদ্ধে তার বাবা ময়েন উদ্দিন, বোন এবং ভাগিনাকে মারপিট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় ময়েন উদ্দিন নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ব্যাপারে নওগাঁ থানায় বাবা এবং ছেলে দু’টি পৃথক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আহতরা হলেন, বোন রুনা লাইলা রুনা ও ভাগিনা জাহিদ হাসান। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, নওগাঁ শহরের দয়ালের মোড় এলাকায় চকএনায়েত যুবক সামনে ময়েন উদ্দিনের নিজস্ব তিনতলা বাড়ি এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘদিন ধরে সেই বাড়িতে বসবাস করে আসছেন। এরই মধ্যে তার ছেলে বর্তমানে ফেনি জেলায় ডিএসবি’তে চাকুরীরত এসআই পায়েল হোসেন তার বাবার সমস্ত বাড়িঘর এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গোপনে গত ২৫ এপ্রিল ২০১২ সালে দলিলমুলে নিজের নামে লিখে নেন। দীর্ঘদিন সেই কথা পরিবারের সম্পূর্ণ অজানা ছিল বলে অভিযোগ করেন তার পিতা ময়েন উদ্দিন। গত ডিসেম্বর মাসে বাড়িতে এসে বাড়ি তার নিজের দাবী করে বাবাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার প্রচেষ্টা চালান এসআই পায়েল হোসেন।
এমতাবস্তায় বাবা ময়েন উদ্দিন চলতি গত ১৪ জানুয়ারি সদর কোর্টে দলিল রহিতকরণ চেয়ে বছরের একটি মামলা দায়ের করেন। এর প্রেক্ষিতে তার কর্মস্থল ফেনী থেকে ছুটি নিয়ে গত শনিবার দুপুরে পায়েল হোসেন ও তার স্ত্রী মোছা: শিল্পী বাড়িতে এসে তার বাবাকে টেনে হেঁচরে ঘরের মধ্যে নিয়ে গিয়ে মারপিট করতে থাকে। পায়েল বাবার গলা চেপে ধরে আর স্ত্রী শিল্পী একটি গ্লাস দিয়ে মাথা এবং বাঁম হাতে আঘাত করে। এতে মাথা ও হাতের বিভিন্ন স্থানে কেটে গেছে। তার চিৎকার শুনে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভাড়াটিয়া লোকজন তাকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছে।
ফেনী জেলার ডিআইও ওয়ান নজিবুল ইসলাম জানিয়েছেন, পায়েল হোসেন এখানে ডিএসবিতে এসআই পদে চাকুরী করেন। সে ছুটিতে বাড়িতে গেছে। বাড়িতে গিয়ে কি করেছেন তা আমাদের দেখার বিষয় নয়।
এব্যাপরে অভিযুক্ত এস আই পায়েলের সাথে মুঠো ফোনে কথা বললে তিনি বলেন, বর্তমান যুগে দলিল জাল করার কোন সুযোগ নাই। প্রকৃত রেজিষ্ট্রিমুলেই জমি নিয়েছি। এটা নিয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। সে তার পিতাকে মারপিটের কথা অস্বীকার করে বলেছেন বরং তার বাবা ও বোন তার স্ত্রীকে মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। এ ব্যাপারে নওগাঁ থানায় নারী নির্যাতনের একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তোরিকুল ইসলাম মারপিটের ঘটনাটির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করা হয়েছে। তদন্ত করে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫