ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

বিশ্বের কোনো আদালতের সামনে এ ধরনের মূর্তি দেখিনি : এরশাদ

রংপুর অফিস

সাবেক প্রেসিডেন্ট ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে নেয়া টাকা ফেরতের জন্য আদালত যেটা নির্দেশ দিয়েছে। সেটা সঠিক নির্দেশনা দিয়েছে। টাকা তো জোর করে নিয়েছিল তারা। সেজন্য আদালতের নির্দেশ সঠিক বলে করি। তাদের টাকাটা ফেরত দেয়া উচিত্ ।

তিনি শুক্রবার জুমআর নামাজের আগে রংপুর পল্লীনিবাসে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন। এসময় তার সাথে ছিলেন পার্টির কো চেয়ারম্যান জিএম কাদের, রুহুল আমিন হাওলাদার, রংপুর মহানগর সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, জেলা সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, মহানগর সেক্রেটারী এসএম ইয়াসির, জেলা সেক্রেটারী আসিফ শাহরিয়ার, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য শাফিউল ইসলাম শাফীসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

হেফাজতের সাম্প্রতিক আন্দোলন প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এরশাদ বলেন, আমি হেফাজত করি না।  তবে এ ধরনের মূর্তি আর বিশ্বের অন্য কোনো আদালতের সামনে দেখি না। না দিলে কি হতো জানি না। এটা ‍গৃক মূর্তিও নয়। এটা শাড়ি পড়া মূর্তি। এ বিষয়ে আমার কোনো মতামত নেই। আমি কোথায় এ নিয়ে কিছু দেখিনি।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই আমার সাথে জোট করার ব্যপারে ২৫টি দল এসেছে। তার মধ্যে ৬টি দল নিবন্ধিত আছে। এ বিষয়ে এই মাসেই সিদ্ধান্ত নিবো।

জঙ্গি প্রসঙ্গে পরে কথা বলার কথা জানিয়ে এরশাদ বলেন, দেশে নানা ঘটনা ঘটছে দেখছি। একটার পর একটা। এসব বিষয় নিয়ে মন্তব্য করতে চাই না।

পাঁচ দিনের সফরে এরশাদ শুক্রবার রংপুরে আসেন। শনিবার তিনি রংপুর মহানগর জাতীয় পার্টির সম্মেলনে যোগ দিবেন। এছাড়াও রোববার আক্কেলপুর স্কুল এন্ড কলেজ এবং সোমবার মাহিগঞ্জ কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দিবেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.