ঢাকা, মঙ্গলবার,২৮ মার্চ ২০১৭

রংপুর

সৈয়দপুর ছেলের অত্যাচারে অগ্নিদগ্ধ মায়ের মৃত্যু

মো. জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) 

১৫ মার্চ ২০১৭,বুধবার, ১৪:২১


প্রিন্ট

নেশাখোর ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ঠ মা নিজের গায়ে আগুন দেওয়ার চারদিন পর বুধবার সকালে (১৫ মার্চ) রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেলেন। এতে করে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
নীলফামারীর সৈয়দপুরের বাঁশবাড়ি সাদরা লেনের বাসিন্দা ঘড়ি মেকার আকতারের স্ত্রী আয়শা চান্দা (৩৮) নেশাখোর ছেলে সমীরের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে গত চারদিন আগে নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেন। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে সৈয়দপুর ১শ’ শয্যা হাসপাতালে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
এলাকাবাসী জানান, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের ওয়ার্ড সদস্য ছিলেন এবং পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করে হেরে যান।

 

ভারতীয় লবনসহ দুইজন আটক

নীলফামারীর সৈয়দপুরে বুধবার সকালে ভারতীয় লবনসহ দুই ব্যবসায়ীকে আটক করেছে জিআরপি থানা পুলিশ। সৈয়দপুর- খুলনাগামী রূপসা আন্ত:নগর ট্রেনে অভিযান চালিয়ে এসব লবন আটক করা হয়।
খুলনা থেকে ছেড়ে রূপসা ট্রেনটি সকালে স্টেশনে এসে পৌঁছলে সহকারি পুলিশ সুপার ফিরোজ আহমেদের নেতৃত্বে একদল জিআরপি পুলিশ অভিযান চালিয়ে ভারতীয় কেজি প্যাকেট লবন উদ্ধার করেন। এসময় ১৭৭ প্যাকেট লবনসহ দুইজন ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। এরা হচ্ছেন শহরের বাঁশবাড়ি এলাকার মৃত সেলিমের পুত্র সাঈদ (৪৫) ও নয়াবাজারের মৃত পীর মোহাম্মদের পুত্র মনির হোসেন (৪০)।
সৈয়দপুর জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একে লুৎফর রহমান খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত ভারতীয় লবনের মূল্য প্রায় ৭ হাজার টাকা। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

পাঁচ পলাতক আসামি গ্রেফতার
নীলফামারীর সৈয়দপুরে বুধবার সকালে পুলিশ অভিযান চালিয়ে পলাতক পাঁচ আসামিকে গ্রেফতার করেছে। এদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা থাকায় দীর্ঘদিন ধরে পলাতক থাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে পুলিশ গ্রেফতার করে।
সৈয়দপুর সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান ও সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আমিরুল ইসলামের নেতৃত্বে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে এদের গ্রেফতার করা হয়। এরা হচ্ছেন জসিম বাজার এলাকার জোবায়দুল ইসলামের ছেলে জসি আহমেদ (৩৫), উত্তর সোনাখুলির নেছার আহমেদের ছেলে রবিউল ইসলাম (৪০), একই এলাকার খয়রুদ্দিনের ছেলে নেছার (৫৫), নেছারের স্ত্রী অফুরন নেছা (৪০) ও কন্যা লাকী বেগম (২৫)।
সহকারি পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে গ্রেফতারকৃতদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫