ঢাকা, মঙ্গলবার,১৭ অক্টোবর ২০১৭

সংগঠন

বেগম রোকেয়া সম্মাননা পদক পেলেন নয়া দিগন্তের সাংবাদিক কিবরিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ মার্চ ২০১৭,সোমবার, ১৫:৩০


প্রিন্ট

নারীদের নিয়ে সাংবাদিকতায় লিখনির মাধ্যমে বিশেষ অবদান রাখায় মহিয়ষী বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত স্মৃতি সম্মাননা পদক পুরস্কার-২০১৭ বরিশাল বিভাগীয় সেরা পুরস্কার পেলেন দৈনিক নয়াদিগন্ত পত্রিকার বরগুনা জেলা সংবাদদাতা গোলাম কিবরিয়া।

গতকাল রোববার রাত সাড়ে ৮টায় বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্র অডিটরিয়ামে এ পদক ও প্রশংসাপত্র বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাংবাদিক গোলাম কিবরিয়ার হাতে এ পদক ও প্রশংসাপত্র তুলে দেন জাতীয় সংসদের মাননীয় ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি। এসময় গৌরবময় কৃতিত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ একটি প্রশংসাপত্রও তার হাতে তুলে দেন তিনি।

এ সম্মাননা অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেন মানবাধিকার জোট ও অগ্রগামী ফাউন্ডেশন।

অ্যাডভোকেট হোসনে আরা ডালিয়া এমপির সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি, আক্তার জাহান এমপি, হোসনে আরা বেগম বাবলি এমপি, অগ্রগামী ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক এ এম গোলাম ফারুক মজনুসহ স্থানীয় রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের সহ¯্রাধিক ব্যক্তিবর্গ।

সাংবাদিক গোলাম কিবরিয়ার জন্ম ১৯৮৮ সালের ৭ই জানুয়ারি বরগুনা জেলার বামনা উপজেলা শহরের পশ্চিম সফিপুরের এক মুসলিম পরিবারে। তার মরহুম পিতা হাফেজ মাওলানা আবুল কালাম আজাদ ব্যক্তিজীবনে বামনা সদর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব, পেশ ইমাম ও বামনা সদর আর-রশীদ ফাযিল মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষকতা করেন, মাতা মোসা: রাহিমা আজাদ একজন গৃহীণী। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে তিনি সবার বড়।

তিনি ২০০১ সালে নবম শ্রেণীতে অধ্যায়নরত অবস্থায় বরিশাল থেকে প্রকাশিত দৈনিক দক্ষিণাঞ্চল পত্রিকার তৎকালীন বার্তা সম্পাদক আযাদ আলাউদ্দীনের হাতে তার সাংবাদিকতার হাতেখড়ি এবং শিক্ষক মো: মিজানুর রহমান টিপু তার সাংবাদিকতার উদ্বুদ্ধকারী ও শিক্ষাগুরু। এর পরে তিনি দৈনিক মুক্তখবর, দৈনিক সংগ্রামসহ বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকা ও দিগন্ত টেলিভিশনে সাংবাদিকতা করেন। বর্তমানে তিনি দৈনিক নয়া দিগন্ত ও ডেইলি পিপলস্ টাইম পত্রিকায় বরগুনা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত আছেন।

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫