কুমিল্লা সিটির নির্বাচন ইসির প্রতি আস্থার ক্ষেত্র তৈরি হবে : সিইসি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) খান মো. নুরুল হুদা বলেছেন, গাইবান্ধা-১, সুনামগঞ্জ-২ শূন্য আসন ও কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বর্তমান নির্বাচন কমিশনের (ইসি) প্রতি আস্থার ক্ষেত্র তৈরি হবে। তিনি বলেন, এই নির্বাচনে আপাতত সেনাবাহিনী মোতায়েনের কোনো সিদ্ধান্ত নেই। তবে তারা সব সময় প্রস্তুত থাকবেন।
আজ আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের সম্মেলনকক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘আজকের বৈঠকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সম্পূর্ণ সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন। কর্মকর্তারা যারা এখানে এসেছেন তারা বলেছেন, এই নির্বাচন কমিশনের উপরে যেন আস্থার একটা ক্ষেত্র তৈরি হয় তা এই নির্বাচন থেকে বেরিয়ে আসবে।’
অপর এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, যদি কারো নামে আগে থেকে কোনো মামলা না থাকে, তাহলে নতুন করে কাউকে হয়রানি করা হবে না।
তিনি বলেন, এদেশে একসঙ্গে ৩ শ’ আসনের নির্বাচনও সুষ্ঠু হওয়ার নজির রয়েছে। তাই মাত্র ২/৩ নির্বাচনে আশংকার কিছু নেই। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে, ভোট দিয়ে নিরাপদে বাড়ি যেতে পারে এবং বাড়িতে গিয়ে নিরাপদে থাকতে পারেন বৈঠকে এ বিষয়ে কথা হয়েছে।
সিইসি বলেন, ভোটে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ যারা নির্বাচনী দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত থাকবেন তারা কোনো অনিয়ম করবেন না। আর করলে আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বৈঠকে জঙ্গি হামলা বা নাশকতার বিষয়ে কোনো কথা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে কথা হয়েছে। বিশেষ করে এ বিষয়ে সুন্দরগঞ্জ নিয়ে বেশি সতর্ক থাকবো।
সেনাবাহিনী মোতায়েনের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, আপাতত সেনাবাহিনী মোতায়েনের কোনো সিদ্ধান্ত নেই। তবে তারা সব সময় প্রস্তুত থাকবেন। প্রয়োজন হলে তাদেরকে তাৎক্ষণিক নামানো হবে।
বৈঠকে চার নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিবসহ, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সূত্র : বাসস

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.