পুরুষের চেয়ে কি নারী দুর্বল?

রয়টার্স

বিশ্বের প্রতি পাঁচজনের একজন মনে করেন পুরুষের চেয়ে নারীরা হীনতর এবং তাদের বাড়িতে থাকা উচিত। এছাড়া স্কুল ও কর্মক্ষেত্রে পুরুষরাই বেশি যোগ্যতাসম্পন্ন। বুধবার প্রকাশিত বৈশ্বিক একটি জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে।

জরিপে অংশ নেয়া ১৭ হাজার ৫৫০ জনের সবাই নারী-পুরুষের সমান অধিকারের পক্ষে কথা বলেছে। তবে প্রতি চারজনে তিনজন মনে করেন, নারীদের এখনো সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অভিজ্ঞতার ঘাটতি রয়েছে।

জরিপ পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান ইপসোস মরি’র পরিচালক কুলাই কাউর-বালাগান বলেন, ‘এটা খুবই উৎসাহব্যাঞ্জক যে- সংখ্যাগরিষ্ঠ নারী-পুরুষ উভয়ই মনে করেন সুযোগ-সুবিধার ক্ষেত্রে সাম্য থাকা উচিত। একই সাথে অধিকাংশই আবার মনে করেন- সাম্য ও অধিকারের বিস্তর ঘাটতি রয়েছে সমাজে।’

ব্রাজিল, কানাডা, রাশিয়া, ব্রিটেন, ভারত ও সুইডেনসহ মোট ২৪টি দেশে ইপসোস মরি জরিপ চালিয়েছে। এতে অংশগ্রহণকারী অর্ধেকের বেশি মানুষ নিজেদের নারীবাদী বলে মনে করে। একচতুর্থাংশ বলেছেন, তারা নারী অধিকার নিয়ে কথা বলতে ভয় পান।
আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে বুধবার প্রকাশিত জরিপে বলা হয়- চীন, রাশিয়া ও ভারতের লোকজন মনে করেন, শিক্ষা ও অর্থ উপার্জনে নারীরা পুরুষের চেয়ে অনেক পিছিয়ে।

জাতিসঙ্ঘ বিশ্বব্যাপী নারী বৈষম্যের কথা উল্লেখ করে বলেছে, বিশ্বের ২৪ শতাংশ মানুষ নারীদেরকে সবচেয়ে বড় ডাকাত হিসাবে বিবেচনা করে থাকেন।
বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম বলেছে, ২০১৬ সালে নারী-পুরুষ অর্থনৈতিক সূচকে যে বৈষম্য দেখা গেছে তা আগামী ১৭০ বছরেও সমতায় আসবে বলে মনে হয় না।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.