ঢাকা, বৃহস্পতিবার,৩০ মার্চ ২০১৭

মোবাইল

মোবাইলের স্ক্রিনেই বাড়ছে জীবাণু

নয়া দিগন্ত অনলাইন

০৫ মার্চ ২০১৭,রবিবার, ১৮:২৯


প্রিন্ট

বাথরুম নয়, আপনার হাতের মোবাইলই সবচেয়ে বেশি নোংরা। সবচেয়ে বেশি ধরণের মারাত্মক ক্ষতিকর জীবাণু রোজ জমা হচ্ছে মোবাইল স্ক্রিনের ওপর। চেনা জীবাণু হলে ক্ষতি ছিল না, তবে সম্প্রতি ভারতের একদল বিজ্ঞানী গবেষণায় পেয়েছেন তিন অচেনা জীবাণুর সন্ধান। যে জীবানুগুলো এতদিন উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। স্বাভাবিকভাবে মানুষের শরীরে সেগুলি কিভাবে ক্ষতি করতে পারে, সেটিও পরিষ্কার নয় গবেষকদের কাছে।
ইউনিভার্সিটি অফ সাদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ার মাইক্রোবায়োলজির গবেষক উইলিয়াম দেপাওলো একটি গবেষণা করেন মোবাইলের স্ক্রিনে জমে থাকা জীবাণু নিয়ে। নমুনা সংগ্রহ করে তিনি জানান, একটি টয়লেটের চেয়েও নোংরা হয় মোবাইলেক স্ক্রিন। তার কারণ, টয়লেট, বা বাড়ির অন্য ঘরের মতো একটি নির্দিষ্ট জায়গা নয়, হাতে হাতে ট্রেন বাস, অফিস সর্বত্র ঘুরে বেড়ায় একটি ফোন। ফলে, একরকমের জীবাণু নয়, নানা রকমের জীবাণু জমা হয় ফোনের উপর। গড়ে একটি মোবাইল ফোনের স্ক্রিনের ওপর ১২–১৫ রকমের জীবাণুর সন্ধান পাওয়া যায়।
এই প্রাথমিক তথ্যের ওপর ভিত্তি করেই ভারতের বিজ্ঞানীরা নতুন গবেষণাটি করেছিলেন। সেখানে ২৭টি মোবাইল ফোনের নমুনা সংগ্রহ করে তারা সন্ধান পেয়েছে প্রায় ৫১২ টি জীবাণুর। পাওয়া গেছে ২৭ টি আলাদা ছত্রাকও। এদের মধ্যেই তিনটি জীবাণু একেবারে নতুন ও অচেনা। মানুষ যখন কানে ফোন লাগিয়ে কথা বলে, তখন শরিরের ঘাম, লোম কূপের মধ্যে দিয়ে সেগুলি দেহে প্রবেশ করতে পারে। ঘটাতে পারে অঘটন। বিপদ থেকে মুক্তির জন্য তাই টয়লেটে ফোন না নিয়ে যাওয়া, বাইরে থেকে ঘরে ফিরে কোনো ক্লিনার দিয়ে হালকা করে ফোন পরিষ্কার করার পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫