ফেব্রুয়ারিতে সড়কে প্রতিদিন গড়ে নিহত ১৫

নিজস্ব প্রতিবেদক

সড়ক দুর্ঘটনা ও হতাহতের সংখ্যা জানুয়ারির তুলনায় গত মাসে বেড়েছে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে সারা দেশে গড়ে প্রতিদিন ১৫ জন নিহত ও ৪৬ জন আহত হয়েছেন। এ সময়ে গড়ে প্রতিদিন ১৩টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। ফেব্রুয়ারিতে বিভিন্ন মহাসড়ক, জাতীয় সড়ক, আন্ত:জেলা সড়ক ও আঞ্চলিক সড়কে এসব প্রাণঘাতি দুর্ঘটনা ঘটে। আর জানুয়ারিতে সারা দেশের এসব সড়কে প্রাণহানি ও আহতের দৈনিক গড় সংখ্যা ছিলো যথাক্রমে ১৩ ও ৩৩। ওই ৩১ দিনে গড়ে প্রতিদিন ১১টি দুর্ঘটনা ঘটেছে।

বেসরকারি সংগঠন নৌ, সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটির মাসিক নিয়মিত পরিসংখ্যান ও পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। ২০টি জাতীয় দৈনিক, ১০টি আঞ্চলিক সংবাদপত্র এবং আটটি অনলাইন নিউজপোর্টাল ও সংবাদ সংবাদ সংস্থার তথ্য-উপাত্তের ওপর ভিত্তি করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে বলে বুধবার সংগঠনটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ২৮ দিনে ৩৭২টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৬ নারী ও ৫৮ শিশুসহ মোট ৪২৭ জন নিহত এবং এক হাজার ৯৪ জন আহত হয়েছেন। আর জানুয়ারি মাসে ৩৫০টি সড়ক দুর্ঘটনায় সারা দেশে নিহত ও আহত হয়েছেন যথাক্রমে ৪১৬ জন ও এক হাজার ১২ জন। এই ৩১ দিনে নিহতদের মধ্যে ৫৪ নারী ও ৫৫ শিশু রয়েছে।

সড়ক দুর্ঘটনা ও হতাহতের সংখ্যা বৃদ্ধির পেছনে কয়েকটি কারণ চিহ্নিত করেছে নৌ, সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটি। এ প্রসঙ্গে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আশীষ কুমার দে বলেন, তাঁদের পর্যবেক্ষণে সাম্প্রতিক সময়ে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি বেড়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি কারণ জানা গেছে। সেগুলো হচ্ছে- দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছাতে দূরপাল্লার গাড়িগুলোর মধ্যে প্রতিযোগীতামূলক মনোভাব, গাড়ি চালানোর সময় চালকদের অদক্ষতা-অসতর্কতা, প্রয়োজনীয় বিশ্রাম না নিয়ে দীর্ঘ সময় একটানা গাড়ি চালানো, চালক ও সহকারীদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও সচেতনতার অভাব, ওভারটেকিংয়ের ক্ষেত্রে ট্রাফিক আইন যথাযথভাবে অনুসরণ না করা, বিভিন্ন স্থানে যানজটে নষ্ট হওয়া সময় পুষিয়ে নিতে ফাঁকা সড়কে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো, সড়ক পরিবহন খাত নিয়ন্ত্রণ ও তদারককারী সংস্থাগুলোর যথাযথ দায়িত্ব পালনে ঘাটতি এবং আইন লঙ্ঘনকারী গাড়িগুলোর চালক, সহকারি ও মালিকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ না করা।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে ঢাকা-আরিচা সড়কে মানিকগঞ্জের জোকায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় খ্যাতিমান চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদ ও প্রখ্যাত সাংবাদিক মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন নিহতের ঘটনায় করা মামলার রায়ে সম্প্রতি মানিকগঞ্জের একটি আদালত ঘাতক বাসটির চালককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। এছাড়া ২০০৩ সালে সাভারে ইচ্ছাকৃতভাবে ট্রাকচাপা দিয়ে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে সোমবার ঢাকার একটি আদালত ওই চালকের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন। এ দুটি রায়ের বিরুদ্ধে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের ডাকে মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে সারা দেশে ধর্মঘট পালিত হয়।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.