ঢাকা, মঙ্গলবার,১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

বিবিধ

হাত ধোয়ার সঠিক পদ্ধতি জানুন

নয়া দিগন্ত অনলাইন

২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭,বুধবার, ১২:১৫ | আপডেট: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭,বুধবার, ১২:১৮


প্রিন্ট

সেই ছোটবেলার শিক্ষা। খাওয়ার আগে হাত ধুয়ে নিতে হবে। না হলে রোগ হবে। হাত ধুচ্ছেন ঠিকই। কিন্তু জীবাণুমুক্ত হচ্ছে কি? হচ্ছে না। কারণ, আপনি যেভাবে হাত ধুচ্ছেন, তাতেই গলদ।

তাহলে কখন হাত ধুতে হবে, কীভাবে ধুতে হবে?

হাত মাঝে মাঝেই ধুয়ে নিতে হবে। তাতে জীবাণু সংক্রমণ হবে কম। শরীর থাকবে সুস্থ।

ঢাক-ঢোল পিটিয়ে, সাজ-সরঞ্জাম জোগাড় করে হাত ধুতে হবে না। শুধু চাই পানি আর একটু সাবান। অথবা কোনো হ্যান্ড স্যানিটাইজার। ব্যস।

বাড়ি হোক বা অফিস, সারাদিন সংস্পর্শে আসতেই হয় বিভিন্ন মানুষের। এছাড়া হাতে নিতেই হয় ব্যবহারের বিভিন্ন জিনিস। টেবিল, চেয়ার বা মাটিতেও হয়ত কখনও হাত রাখতে হয়। মানে, উড়ছে জীবাণু। চোখ, নাক অথবা মুখে হাত দিলেই ব্যস। শরীরে সহজেই ঢুকছে জীবাণু।

সেই সংক্রমণ থেকে বাঁচতে ধুতেই হবে হাত। রান্না করা ও খাওয়ার আগে ধুয়ে নিতে হবে হাত। ক্ষতের চিকিৎসা, ওষুধ খাওয়া অথবা অসুস্থ ও আহত মানুষকে শুশ্রূষার আগে। কনট্যাক্ট লেন্স পরা বা খোলার আগে হাত ধুয়ে নিতে হবে। রান্না করা, বিশেষ করে কাঁচা মাছ, মাংস রান্নার পর হাত ধুতে হবেই।

টয়লেট ব্যবহারের পর। ডায়াপার চেঞ্জ করার পর। হাঁচি ও কাশির পর। পোষ্যের সাথে খেলার পর। জামাকাপড় কাচা ও জুতো পরিষ্কারের পর। কারো সাথে হাত মেলানোর পর হাত ধুয়ে নিতে হবে। এমনটাই পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

কীভাবে ধুতে হবে হাত?

প্রথমে পানিতে হাত ভিজিয়ে নিতে হবে। তারপর হাতে সাবান দিতে হবে। ১৫ সেকেন্ড হাত ঘষতে হবে। তারপর পানির নিচে ভালো করে হাত ধুয়ে। ন্যাপকিন দিয়ে হাত মুছে নিতে হবে। ন্যাপকিন হাতে নিয়ে কল বন্ধ করতে হবে।

হাত ধোয়ার সঠিক পদ্ধতিটা ঠিক কী?

হাতে সাবান দিয়ে তালুতে তালু ঘষে নিতে হবে। আঙুলের মাঝে ঘষে নিতে হবে। হাতের ওপরের দিকেও ভালো করে ঘষতে হবে। বুড়ো আঙুলের গোড়ায় ঘষে নিতে হবে। আঙুলের ওপরের দিকে ঘষে নেয়ার প্রয়োজন। নখের ডগা ঘষে নিতে হবে। কবজি ঘষে ঘষে পরিষ্কার করতে হবে। তারপর ভালো করে মুছে শুকনো করে নিতে হবে। হাত ধুয়ে নিন। কিন্তু নিয়ম মেনে।

সূত্র : ইন্টারনেট

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫