কর্মশালায় বক্তারা

গণিত শিক্ষার্থীদের আত্মবিশ্বাসী করে

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের খ্যাতনামা বিজ্ঞানী অধ্যাপক এম শমশের আলী বলেছেন, গণিত শিক্ষার্থীদের আত্মবিশ্বাসী করে গড়ে তোলে। মানুষের জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত এবং মৃত্যু পরবর্তী সময়কালে গণিত জড়িয়ে আছে। একটি জীবনে খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা ও শিক্ষা প্রতিটি ক্ষেত্রে গণিতের হিসাব ছাড়া পরিকল্পিত জীবনযাপন সম্ভব নয়। তাই প্রতিটি মানুষের গণিত জেনে সুন্দর গণতান্ত্রিক দেশ গঠনে ভূমিকা রাখা জরুরি। প্রকৃতি থেকে গণিত জেনে কৃষক, দিনমজুর, সাধারণ মানুষ তাদের অবস্থার উন্নয়ন ঘটায়। গণিত জেনে বুঝে কাজ করলে যে কোনো শিক্ষার্থী আত্মপ্রত্যয়ী ও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবে।
গতকাল সকালে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে ই-ম্যাথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘গণিত শিক্ষক কর্মশালায়’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ বলেন, প্রযুক্তিনির্ভর বাংলাদেশ গড়তে জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি, চিন্তাচেতনা ও গণিতভিত্তিক প্রতিক্রিয়া, অভিমত সংবলিত তথ্য সংগ্রহ ও সঞ্চালন এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে উত্তম পন্থা গ্রহণ করতে হবে। সাধারণ মানুষের প্রযুক্তি উন্নয়নের স্বপ্নকে অর্থবহ করতে হলে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিনির্ভর বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করতে হবে।
প্রাত্যহিক জীবনে গণিতের প্রয়োগ বিষয়ক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বুয়েটের প্রফেসর ড. মো: আব্দুল আলীম। গণিত সৃজনশীল প্রশ্নেœ শিক্ষকদের করণীয় বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন গবেষক কাজী মো: খায়রুল বাসার, বাংলাদেশে গণিত শিক্ষার সমস্যা ও সম্ভাবনা বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বুয়েটের প্রফেসর ড. মনিরুল আলম সরকার। জীবনমুখী গণিত বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রফেসর ড. আব্দুল হাকিম (বুয়েট)। ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি আতিকুর রহমান চৌধুুরীর সভাপতিত্বে কর্মশালার উদ্বোধন করেন এম এ আউয়াল এমপি। কর্মশালার পৃষ্ঠপোষকতা করেন ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.