ঢাকা, মঙ্গলবার,৩০ মে ২০১৭

অনলাইন জগৎ

পরিবেশবান্ধব প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতার তালিকায় শীর্ষে অ্যাপল

আহমেদ ইফতেখার

১২ জানুয়ারি ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৬:২৫


প্রিন্ট

বিশ্বের সবচেয়ে পরিবেশবান্ধব প্রযুক্তিপণ্য ও সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। সম্প্রতি পরিবেশবাদী সংগঠন গ্রিনপিস প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দেখো গেছে, অ্যাপল টানা তৃতীয় বছরের মতো এ তকমা দখলে নিতে সমর্থ হয়েছে। ২০০৯ সাল থেকে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের কোম্পানিগুলোর জ্বালানি ব্যবহার বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে আসছে গ্রিনপিস। গ্রিনপিসের পরিবেশবান্ধব প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের তালিকায় অ্যাপলের পাশাপাশি গুগল ও ফেসবুক রয়েছে। পরিবেশ রক্ষায় এ দুই কোম্পানির স্কোর দিনকে দিন বাড়ছে। ২০১২ সালে শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি জোট কার্যক্রম পরিচালনায় শতভাগ নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহারে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ হয়েছিল। এরই অংশ হিসেবে অ্যাপল প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রম, এমনকি নিজস্ব বিক্রয়কেন্দ্রগুলোয় নবায়নযোগ্য জ্বালানি বা সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহার শুরু করে। অ্যাপলের নতুন প্রধান কার্যালয়ে সম্পূর্ণ নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহার করা হবে। বর্তমানে এ কার্যালয়ের নির্মাণকাজ চলছে। কার্যালয়টিতে সাত লাখ বর্গফুটের সৌরবিদ্যুৎ প্যানেল বসানো হবে।
গ্রিনপিসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, নিজস্ব তথ্যপ্রযুক্তি সরবরাহ চেইন, ডাটা সেন্টার ও ক্লাউড অপারেটরদের নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহারে উৎসাহিত করতে অনুঘটক হিসেবে কাজ করেছে অ্যাপল। এতে প্রতিষ্ঠানটির অনেক বিভাগ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহার শুরু করেছে।
এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছে বেশির ভাগ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। গ্রিনপিসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বর্তমানে বৈশ্বিক বৈদ্যুতিক শক্তির সাত শতাংশ ব্যবহার হচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে। কিন্তু ধারণা করা হচ্ছে, ২০২০ সালের মধ্যে বৈশ্বিক ইন্টারনেট ট্যারিফ তিন গুণ বাড়বে। এ ক্ষেত্রে বৈদ্যুতিক শক্তির ওপর অতিরিক্ত চাপ তৈরি হবে। এ ক্ষেত্রে নবায়নযোগ্য জ্বালানিকে বিকল্প হিসেবে গুরুত্ব দিতেই হচ্ছে প্রতিষ্ঠানগুলোকে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫