২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় ছয় হাজার ২৮৪ কোটি টাকা চায়

হামিদ সরকার

বৈদেশিক সাহায্যসহ আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের নতুন বাজেটে ছয় হাজার ২৮৪ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটেও বরাদ্দ বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে মন্ত্রণালয়টি। এসব প্রস্তাবসহ উন্নয়ন, অনুন্নয়ন ও বৈদেশিক সাহায্য খাতে বরাদ্দের জন্য অর্থ বিভাগ এবং পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও তার অধীনস্থ পাঁচটি সংস্থাসহ মোট ছয়টির জন্য উন্নয়ন এবং অনুন্নয়ন বাজেট মিলে মোট পাঁচ হাজার ১৮৪ কোটি ৪৯ লাখ টাকা বরাদ্দ চেয়েছে, যা চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের দাবির চেয়ে ৪৭১ কোটি ৩২ লাখ টাকা বেশি। এর মধ্যে শুধু পানি উন্নয়ন বোর্ডেরই চাহিদা পাঁচ হাজার ১৮ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। আর বৈদেশিক সাহায্য খাতে বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে এক হাজার ১০০ কোটি টাকা। মন্ত্রণালয় বলছে, নির্ধারিত সিলিংয়ে রাজস্বপ্রাপ্তির প্রাক্কলন ও প্রক্ষেপণের প্রায় ১২ শতাংশ বেশি ধরে লক্ষ্যমাত্রা করা হয়েছে। আর প্রস্তাবিত ও দাবিকৃত বরাদ্দ ব্যয়সীমা ১০ শতাংশ বৃদ্ধি ধরে নির্ধারণ করা হয়েছে। সে আলোকে সচিবালয় ও অধীনস্থ সংস্থাকে বরাদ্দ বণ্টন করা হয়েছে।
মন্ত্রণালয়, পানি উন্নয়ন বোর্ড, হাওর ও জলাভূমি উন্নয়ন অধিদফতর, পানিসম্পদ পরিকল্পনা সংস্থা, যৌথ নদী কমিশন ও নদী গবেষণা ইনস্টিটিউটের জন্য বাজেট বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে। মোট বাজেটের মধ্যে অনুন্নয়ন বরাদ্দ হলো এক হাজার ২৪০ কোটি ২২ লাখ ১৬ হাজার টাকা। আর উন্নয়ন বাজেট বরাদ্দের দাবি হলো তিন হাজার ৯৪৪ কোটি ২৬ লাখ ৮৪ হাজার টাকা। নতুন প্রকল্পের জন্য আগামী অর্থবছরে থোক বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে ৫৫ কোটি ৪১ লাখ টাকা। চলতি অর্থবছরে যা রয়েছে ৫০ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর চাঁদা খাতে ছয় লাখ ৬০ হাজার টাকা।
এ দিকে চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে মন্ত্রণালয়টি। তারা চার হাজার ৭১৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা বর্তমান বরাদ্দের বিপরীতে সংশোধিত এই আকার পাঁচ হাজার ৯৫৪ কোটি ৬১ লাখ ৮৩ হাজার টাকা চেয়েছে। কারণ পানি উন্নয়ন বোর্ড বাড়তি ১৮০ কোটি ১৭ লাখ টাকা চেয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.