স্থানীয় আ’লীগ নেতাকর্মীদের সংবাদ সম্মেলন

বরগুনার এমপি রিমনের বিরুদ্ধে অত্যাচার নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বরগুনা-২ (পাথরঘাটা-বামনা-বেতাগী) আসনের এমপি ও আওয়ামী লীগ নেতা শওকত হাসানুর রহমান রিমন এবং পাথরঘাটা উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম রিপনের বিরুদ্ধে হামলা-মামলা ও হয়রানির অভিযোগ করেছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এসব অভিযোগ তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ও আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করার দাবি জানিয়েছেন তারা।
গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘পাথরঘাটা-বামনা-বেতাগীর নির্যাতিত মুক্তিযুদ্ধপ্রেমী মানুষদের প’ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পাথরঘাটা থানা মহিলা আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলাবিষয়ক সম্পাদক বিলকিস আরা রানী। আরো বক্তব্য রাখেন, রায়হানপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস চৌধুরী, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি ও পাথরঘাটার অধিবাসী ইসমাইল হোসেন, স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা মো: সুলতান প্রমুখ।
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, হাসানুর রহমান রিমন এমপি হওয়ার পর প্রকৃত আওয়ামী লীগারদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্য মামলা দিয়েছেন। তার অত্যাচার নির্যাতনের কারণে এলাকার অনেক মানুষ ঘর-বাড়ি ছাড়া। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ, জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং প্রশাসনকে জানিয়েও কোন লাভ হয়নি। বরং টাকার জোরে তিনি পার পেয়ে যাচ্ছেন।
ইদ্রিস চৌধুরী বলেন, তার বোন ও বড় ভাইকে পাথরঘাটা উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম ও স্থানীয় এমপির লোকজন পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করেছেন। তার বিরুদ্ধে আটটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এ রকম ছয় হাজার মামলা করা হয়েছে।
মুক্তিযোদ্ধা মো: সুলতান বলেন, এমপি রিমনের অত্যাচার নির্যাতনের কারণে আমরা বাড়ি থাকতে পারি না। ভয়ে পালিয়ে বেড়াতে হয়। টাকার জোরে রিমন কেন্দ্র থেকে মনোনয়ন পান বলেও দাবি করেন এই মুক্তিযোদ্ধা।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.