ঢাকা, সোমবার,২৪ এপ্রিল ২০১৭

রাজনীতি

পাঠ্যসূচিতে ইসলাম বিরোধী বিষয় বাদ দিতে হবে : খেলাফত মজলিস

১১ জানুয়ারি ২০১৭,বুধবার, ১৯:৪১


প্রিন্ট

খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক বলেছেন, ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশে মুসলমানদের ধর্মীয় ঐতিহ্যকে সামনে রেখে পাঠ্যসূচি প্রণয়ন হবে। সে ক্ষেত্রে পূর্বের পাঠ্যসূচির আংশিক পরিবর্তন করলেও এখনো শিরকী বিষয় রয়েই গেছে। নতুন পাঠ্যসূচিতে আগের কিছু বিষয় অর্ন্তভূক্ত হওয়াতে বামপন্থীদের গাজ্বালা শুরু হয়েছে। বামপন্থীরা ইসলামের বিরুদ্ধে যা ইচ্ছা তাই বলবে ও করবে তা কখনো মেনে নেয়া হবে না। সিলেবাস নিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের পরিণতি ভালো হবে না। বামপন্থীদের মোকাবেলা করা হবে এবং তাদের কর্মসূচির বিরুদ্ধে পাল্টা কর্মসূচি নিয়ে ইসলাম প্রিয় তাওহিদী জনতা মাঠে নামবে।

আজ বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

আজ বুধবার দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, মাওলানা আতাউল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা কুরবান আলী, মাওলানা জি এম মেহেরুল্লাহ, অফিস ও সহকারী বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, সহকারী প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা হারুনুর রশীদ ভূইয়া, নির্বাহী সদস্য মাওলানা মুখলিসুর রহমান কাসেমী প্রমুখ।

মাওলানা মাহফুজুল হক বলেন, মহানবী সা. বলেছেন তিনি পৃথিবীতে এসেছেন মুর্তি ও বাদ্যযন্ত্রকে ধ্বংস করতে। অথচ দেশের সুপ্রিম কোর্টের সামনে গ্রীকনারীর মূর্তি স্থাপন করা হয়েছে। এটা ইসলাম ও মুসলমানরা সহ্য করতে পারে না। অবিলম্বে মূর্তি সরাতে হবে। অন্যথায় এর বিরুদ্ধে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। তিনি উল্লেখ করেন, আমেরিকার সুপ্রিম কোর্টের প্রধান ফটকে হযরত মুহাম্মদ সা. সর্বশ্রেষ্ঠ আইন প্রনেতা’ লেখা রয়েছে। জাপানের প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে পবিত্র কুরআনের আয়াত (বৃষ্টিপাত সংক্রান্ত) উল্লেখ রয়েছে। তাহলে ৯৫ ভাগ মুসলমানের দেশ বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্টের সামনে কেন মূর্তি থাকবে। কোনো ভাবেই এটা মানা হবে না। বিজ্ঞপ্তি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫