তাইওয়ানের পানিসীমায় চীনা রণতরী, যুদ্ধের দামামা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

তাইওয়ানের পানিসীমানায় ঢুকে পড়েছে চীনা রণতরী। রেডারে সেই ছবি ধরা পড়তেই তড়িঘড়ি যুদ্ধজাহাজ, রণতরী পাঠালো তাইপেই। বেইজিং ও তাইওয়ানের মধ্যে এখন ঘোরতর যুদ্ধ যেন কার্যত সময়ের অপেক্ষা, বলছেন সমর বিশেষজ্ঞরা!

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সূত্রে খবর, সোভিয়েতে নির্মিত চীনা লিয়াওনিং রণতরী দক্ষিণ চীন সাগরে রুটিন মহড়া সেরে ফেরার সময় তাইওয়ানের পানিসীমায় ঢুকে পড়ে। শুধু তাই নয়, তাইওয়ানের দক্ষিণ-পূর্বে এয়ার ডিফেন্স আইডেন্টিফিকেশন জোনেও (এডিআইজেড) ঢুকে পড়ে চীনা রণতরী। আর একটুও দেরি না করে তাইওয়ান প্রশাসন তড়িঘড়ি সামরিক সাজ-সরঞ্জাম প্রস্তুত করে ফেলে। পাঠানো হয় যুদ্ধবিমান ও রণতরী।

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র চেন চুং চি বলেছেন, চিন ও তাইওয়ানের মধ্যে যে সূক্ষ পানিসীমা রয়েছে, সেখানে চীনা রণতরী ঢুকে পড়েছে। চীনা যুদ্ধজাহাজের গতিবিধির উপর নজরদারি চালাতেই তাইওয়ান রণতরী ও যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছে বলে তাইপেই প্রশাসন সূত্রে খবর। বেইজিংয়ের সঙ্গে এখনো শান্তি বজায় রাখার পক্ষেই তাইপেই।
তাইওয়ানের সঙ্গে চীনের সম্পর্ক এমনিতেই মধুর নয়। জন্মলগ্ন থেকেই চলে আসছে বৈরিতা। সম্প্রতি চীনকে অগ্রাহ্য করে পূর্ণ স্বাধীনতা ঘোষণা করে তাইওয়ান। চীন যদিও তাইওয়ানকে স্বাধীন, সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি কোনো দিনই। কিন্তু আমেরিকাসহ বেশ কয়েকটি দেশ তাইওয়ানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রেখে চলে। চিনকে হুঁশিয়ারি দিয়ে আমেরিকার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়িয়ে তাদের কাছ থেকে মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম কিনে মহড়ার প্রস্তুতিও শুরু করে তাইপেই।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.