'অখাদ্য খাবার এবং আধপেটা খেয়ে ডিউটি করতে হয় বিএসএফ সদস্যদের'

নয়া দিগন্ত অনলাইন

হাড়হিম শীতে সীমান্তে পাহারা দেয়া ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যদের জন্য বরাদ্দ পোড়া পরোটা। অথবা ভাত আর এক বাটি হলুদ গোলা পানি, যাকে ডাল ভেবে খেয়ে নিতে হয়। এমনই বিস্ফোরক সব কথা, ছবি ও ভিডিও সহযোগে ফেসবুকে পোস্ট করে ভারতজুড়ে চাঞ্চল্য ফেলে দিয়েছেন এক বিএসএফ জওয়ান। অবিলম্বে গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

জম্মু ও কাশ্মীরে কর্তব্যরত বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর যাদব সোজা ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করা ভিডিয়োটিতে বলেছেন, 'এটাই আমার প্রাতঃরাশ...একটা পোড়া পরোটা আর এক গ্লাস চা...কোনো মাখম, জ্যাম বা আচার কিচ্ছু নয়। এই খাবার খেয়ে কি একজন জওয়ান তার কর্তব্যপালন করতে পারেন? এই ভিডিও সবার কাছে ছড়িয়ে দিন যাতে আমাদের এই বার্তা সরকারের কাছে পৌঁছয়। জয় হিন্দ!'

তিনটি ভিডিও পোস্ট করেছেন তেজ বাহাদুর। একটিতে তিনি তুলে ধরেছেন তার রাতের খাবার। বলেন, 'শুধু হলুদ আর নুন দিয়ে ডাল...পেঁয়াজ না, রসুন না, এমনকী একটু জিরেও না।'
আর একটি ভিডিওতে ৪০ বছরের এই জওয়ানকে বলতে দেখা গেছে, 'আমরা যে খাবার খাই তার মান এটা...বরফের উপর টানা ১১ ঘণ্টা ডিউটি থাকে আমাদের। পুরো সময়টাই দাঁড়িয়ে থাকতে হয়...কীভাবে একজন জওয়ান এই খাবার খেয়ে তার কর্তব্যপালন করতে পারবেন?' অনেক সময়ই তারা বাধ্য হয়ে রাতে খালি পেটেই শুয়ে পড়েন বলে অভিযোগ তেজ বাহাদুরের।

এই ভিডিও পোস্ট করার পর তার উপর খাঁড়া নেমে আসতে পারে জেনেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে তার আর্জি 'গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখুন।'
সোমবার রাতেই এই ভিডিয়ো নজরে আসার পর ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং টুইট করে জানান, 'ওই ভিডিওটা দেখেছি। বিএসএফ-এর থেকে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি মন্ত্রণালয়কে।'

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.