ঢাকা, শনিবার,২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

নারী

ফিরে দেখা ২০১৬

০৯ জানুয়ারি ২০১৭,সোমবার, ০০:০০


প্রিন্ট
স্বর্ণকন্যা সীমান্ত আক্তার মাবিয়া ; নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন হয়েছে বছরজুড়েই

স্বর্ণকন্যা সীমান্ত আক্তার মাবিয়া ; নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন হয়েছে বছরজুড়েই

শেষ হলো আরো একটি বছর ২০১৬। বছরটি নারীদের জন্য ভালোর চেয়ে মন্দই ছিল বেশি। বছরজুড়েই নারীরা নির্যাতনের শিকার হয়েছে। বখাটেদের অত্যাচারে মারা গেছে, পঙ্গু হয়েছে অনেক মেধাবী তরুণী। তারপরও বছরশেষে ফিরে দেখা প্রাপ্তির খাতাটি পূর্ণ হলো কতটুকু
গ্রন্থনা : বদরুন নিসা নিপা

চলে গেলেন যারা
না ফেরার দেশে নূরজাহান বেগম

২৩ মে ২০১৬ না ফেরার দেশে চলে গেলেন নারী সাংবাদিকতার পথিকৃৎ নূরজাহান বেগম।
বাংলাদেশের সাংবাদিকতা ও সমাজসেবার ক্ষেত্রে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী এক কিংবদন্তি। মেয়েদের শিক্ষার পথ, আলোর পথ দেখানোর আলোকবর্তিকা হিসেবে যে ক’জন নারীর অশেষ অবদান রয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম বেগম পত্রিকার সম্পাদিকা নূরজাহান বেগম। ‘বেগম’ উপমহাদেশের প্রথম বাংলা ভাষায় প্রকাশিত নারী ম্যাগাজিন। তিনি বেগম পত্রিকার সম্পাদিকা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন আজীবন।
নূরজাহান বেগমের জন্ম ১৯২৫ সালের ৪ জুন। পিতা মোহাম্মদ নাসির উদ্দীন সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতা ‘সাওগাত’ পত্রিকার। মাতা ফাতেমা খাতুন। ১৯৪৬ সালের লেডি ব্রাবন কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৫২ সালে প্রথিতযশা সাংবাদিক রোকনুজ্জামান খানের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। দুই মেয়ে ফ্লোরা নাসরিন ও রিনা ইয়াসমিন। তিনি অনেক সম্মাননা পদক অর্জন করেছেন। যার মধ্যে আছে ২০১১ সালের সাংবাদিকতায় একুশে পদক। রোকেয়া পদক, নগর পদক ২০০৪। অনন্যা সাহিত্য পুরস্কারসহ অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা।


অধ্যাপিকা খালেদা একরাম

অধ্যাপক খালেদা একরাম ২৩ মে রাত ৩টার দিকে ব্যাংককের একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। স্থাপত্য বিভাগের অধ্যাপক খালেদা একরামকে ২০১৪ সালের ১১ সেপ্টেম্বরে বুয়েটের উপাচার্যের দায়িত্ব দেয়া হয়। বুয়েটের প্রথম নারী ভাইস চ্যান্সেলর খালেদা একরাম গ্র্যাজুয়েশন করেন বুয়েট থেকেই। তিনি কর্মজীবনও শুরু করেন বুয়েটে।

রোকেয়া পদক ২০১৬

২০১৬ সালের রোকেয়া পদক পান দুইজন নারী। তারা হলেনÑ সমাজকর্মী অ্যারোমা দত্ত ও শিক্ষিকা বেগম নূরজাহান। নারী জাগরণ ও আর্থসামাজিক উন্নয়নের অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে তারা এ পদক পান। অ্যারোমা দত্ত জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক সদস্য। ১৯৮০ সাল থেকে তিনি প্রত্যন্ত অঞ্চলে নারী জাগরণ ও আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করে আসছেন। বর্তমানে আছেন বেসরকারি সংস্থা প্রিপ ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক পদে। পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার নূরজাহান বেগম স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে স্বাধীন বাংলার পতাকা সেলাই করেন। দুই দফা জাতীয় মহিলা সংস্থার কুষ্টিয়া জেলা শাখার নেতৃত্ব দেন তিনি।

 

রিশা এখন শুধুই ছবি

ঢাকার উইলস লিটল স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী রিশা প্রাণ দিয়েছে বখাটেদের হামলায়।
২৫ অক্টোবর গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী মুন্নী আক্তারকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে এক বখাটে। মুন্নীর অপরাধ সে বখাটের প্রেমের প্রস্তাবে রাজি হয়নি।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ডালিয়া আক্তার বখাটেদের উত্ত্যক্তের শিকার হয়ে আত্মহত্যা করে।

 

ঘাতকের গুলিতে প্রাণ গেল মিতুর

পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতুকে চট্টগ্রামে বাসার কাছে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। ৫ জুন সকাল ৭টার দিকে নগরের জিইসি মোড়ে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। ছেলেকে স্কুলের বাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় মাহমুদাকে ছুরিকাঘাত ও গুলি করে হত্যা করে মোটরসাইকেলে আসা তিন দুর্বৃত্ত। মিতু ও বাবুল দম্পতির এক ছেলে ও এক মেয়ে। ছেলের সাত ও মেয়ের চার বছর।

তনু হত্যার বিচার হয়নি

সোহাগী জাহান তনু, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের সম্মান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। ২০ মার্চ বিকেলে টিউশনি করতে গিয়েছিল তনু। প্রতিদিনের মতো টিউশনিতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি সে। ফিরে এসেছে তার ক্ষতবিক্ষত লাশ। কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় তনুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ ওঠে। ওই ঘটনা ধামচাপা দেয়ার অভিযোগ তুলে কুমিল্লা ও রাজধানী ঢাকায় বিভিন্ন সংগঠন বিক্ষোভ করে। তনুর বাবা কুমিল্লা সেনানিবাস বোর্ডের একজন বেসরকারি কর্মচারী।


প্রাণে বেঁচে আছে খাদিজা

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় চাপাতির কোপে গুরুতর আহত সিলেটের কলেজছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিস। ৩ অক্টোবর খাদিজা কলেজে গিয়েছিল পরীক্ষা দিতে। পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথে হামলার শিকার হয় বখাটে বদরুলের। ধারালো অস্ত্র দিয়ে বদরুল তাকে নির্মমভাবে কোপায়। তাকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নেয়া হয়। সিলেট থেকে পরে তাকে আনা হয় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে। আইসিইউতে বেশ কয়েক দিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করতে হয়েছে তাকে। চিকিৎসা শেষে স্মৃতি ফিরে পেয়েছে, তবে এখনও পুরোপুরি সুস্থ হননি।


এশিয়ার শীষ আটে অনূর্ধ্ব ১৬ মহিলা

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ মহিলা দল ৫ ম্যাচে ২৬ গোল করে অপরাজিত থেকে শেষ করেছে বাছাই পর্বের খেলা। এ পর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়ে বাংলাদেশ এখন এশিয়ায় শীর্ষ ৮ দলের একটি। এ প্রাপ্তি আমাদের যেমন গর্বিত করেছে তেমনি বাড়িয়ে দিয়েছে প্রত্যাশা।

এসএ গেমসে মাবিয়ার স্বর্ণ জয়

গৌহাটি শিলং গেমসে ভারোত্তোলনে ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণীতে প্রথম স্বর্ণপদক এনে দেন মাবিয়া। এর আগে কমনওয়েলথ ও এশিয়ান ভারোত্তোলনে চ্যাম্পিয়নশিপে পদক জিতে নিজেকে শ্রেষ্ঠ প্রমাণ করেছিলেন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত। ইনজুরি থাকা সত্ত্বেও আত্মবিশ্বাসের জোরেই জিতেছেন স্বর্ণপদক।
বিজয়ী মঞ্চে উঠে অঝোরে কাঁদছিলেন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত। পরে গণমাধ্যমে কান্নার কারণ ব্যাখ্যা করেন মাবিয়াÑ ‘আমার জন্য জাতীয় সঙ্গীত বেজেছে, জাতীয় পতাকা উড়েছে। দেশকে এমন উপলক্ষ এনে দিতে পেরেছি, সে জন্যই কান্না, আবেগ ধরে রাখতে পারিনি।’

এসএ গেমসে আরেক স্বর্ণজয়ী মাহফুজা খাতুন

এসএ গেমসের সাঁতার ডিসিপ্লিনের ১০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকে সেরা হয়ে দেশকে স্বর্ণপদক এনে দেন শিলা। এক মিনিট ১৭.৯০ সেকেন্ড সময় নিয়ে তিনি পাকিস্তানের লিয়ান্না ক্যাথরিন সোয়ানকে পেছনে ফেলে সোনা জেতেন। স্বর্ণপদক জয়ের পর শিলা বলেন, ‘আমি খুব খুশি দেশকে স্বর্ণ এনে দিতে পেরে। আগামীকাল আমার প্রিয় ইভেন্ট ৫০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোক। সবার কাছে দোয়া চাই।’

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫