ঢাকা, বুধবার,২৬ জুলাই ২০১৭

সংগঠন

ট্যানারি শিল্প স্থানান্তরে সরকারের ডেডলাইন ব্যর্থ : সৈয়দ আবুল মকসুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩১ ডিসেম্বর ২০১৬,শনিবার, ১৮:৩৩


প্রিন্ট

বিশিষ্ট লেখক গবেষক ও বাপার সহসভাপতি সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, সরকার ট্যানারি শিল্প হাজারীবাগ থেকে সাভারের ট্যানারি শিল্প নগরীতে স্থানান্তরের যে ৭২ ঘণ্টা আল্টিমেটাম দিয়েছিল সেটি ৭২ সপ্তাহ হলে কার্যকর করার একটি সম্ভাবনা দেখা যেত। এপর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে দেয়া অনেক ডেডলাইন পার হয়ে গেছে কিন্তু সরকারের সব ডেডলাইন ব্যর্থ হয়েছে এবং এর জন্য সরকারের কোন জবাবদিহিতা নেই।

‘ট্যানারি স্থানান্তরে ব্যর্থ সরকারি ডেডলাইন ২০১৬! বর্জ্যে দূষিত হচ্ছে বুড়িগঙ্গা ও শীতলক্ষ্যাসহ একাধিক নদী রক্ষায় করণীয় কী?’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ আবুল মকসুদ এসব কথা বলেন।

সৈয়দ আবুল মকসুদ আরো বলেন, ট্যানারি শিল্প ও নদী দুটিই বাংলাদেশের সম্পদ এবং এ দুটিকে রক্ষা করতে হবে। বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ট্যানারি শিল্পের অবদান ব্যাপক এবং নদীর ভূমিকা অনস্বীকার্য। ট্যানারি মালিকদের আচরণে মনে হয়, তারা সাভারের ট্যানারি শিল্প নগরীতে তাদের শিল্প স্থানান্তর করতে ইচ্ছুক আবার হাজারীবাগেও থাকতে চায়। সরকারের কাছে আমাদের প্রশ্ন, আজ ট্যানারি শিল্প হাজারীবাগ থেকে সাভারের ট্যানারি শিল্প নগরীতে স্থানান্তরের শেষ দিন হলেও খুব বেশিসংখ্যক শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থানান্তর হয়নি। এ বিষয়ে সরকারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি এবং ডেডলাইন দেওয়াতে কোনো লাভ হয়েছে কি-না?

বুড়িগঙ্গা রিভারকিপারের উদ্যোগে আজ শনিবার ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটের গোল টেবিল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাপার যুগ্মসম্পাদক ও বুড়িগঙ্গা রিভারকিপার শরীফ জামিল।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাপার জাতীয় পরিষদ সদস্য এম এস সিদ্দিকী, গ্রিন ভয়েসের সমন্বয়ক আলমগীর কবির ও রিভারাইন পিপলের মহাসচিব শেখ রোকন, সুরমা রিভার ওয়াটারকিপার আব্দুল করিম কিমসহ আরো অনেকে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শরীফ জামিল বলেন, ট্যানারি স্থানান্তরের ডেডলাইন আজ শেষ হলেও আমরা সরকারকে চাপ সৃষ্টি করতে পারি, প্রেস কনফারেন্স করতে পারি, আলোচনা সভা করতে পারি এবং আন্দোলন করতে পারি। তবে বাকী কাজ অর্থাৎ ট্যানারি স্থানান্তরের কার্যকর পদক্ষেপ সরকারকেই নিতে হবে। আমরা চাই দুই পক্ষের দায়িত্বশীলতার মাধ্যমে নদী ও ট্যানারি শিল্পকে বাঁচিয়ে রেখে একটি কার্যকর সমাধানের পথ বের করা হোক।

তিনি বলেন যে, ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায় সাত হাজার শিল্প প্রতিষ্ঠান ঢাকার চারপাশের নদীসমূহকে দূষিত করছে, বুড়িগঙ্গা ছাড়াও তুরাগ, ধলেশ্বরী ও শীতলক্ষ্যা দূষিত হয়ে অবশেষে বুড়িগঙ্গা নদীকে দূষিত করছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫