ঢাকা, সোমবার,২১ আগস্ট ২০১৭

দিগন্ত জবস

সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে নিয়োগ

৩১ ডিসেম্বর ২০১৬,শনিবার, ০০:০০


প্রিন্ট

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে আগামী ২২ জানুয়ারি ২০১৭ থেকে ৩০ জুন ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত নির্ধারিত সেনানিবাসে সৈনিক পদে লোক ভর্তি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। সেনাবাহিনীতে যোগদানে আগ্রহী পুরুষ ও মহিলা প্রার্থীদের আবেদনের জন্য তথ্যাবলি নিম্নরূপ। অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ : ৫ জানুয়ারি ২০১৭। লিখেছেন মাহমুদ কবীর
যোগ্যতা : সাধারণ ট্রেড (জিডি) পুরুষ ও মহিলা : বয়স : ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে ১৭-২০ বছর।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় জিপিএ৩ পেয়ে উত্তীর্ণ। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ মহিলা প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
কারিগরি ট্রেড পুরুষ : বয়স : ১৫ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে ১৭-২১ বছর। কেবল ড্রাইভার ট্রেডের জন্য ১৮-২১ বছর।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ ৩ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে চালক পেশার ক্ষেত্রে যেকোনো বিভাগ থেকে এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় জিপিএ ৩ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে ও গাড়ি চালনায় দক্ষ ও বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকতে হবে।
শারীরিক যোগ্যতা : পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা ১.৬৮ মিটার বা ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, বিভিন্ন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের জন্য ১.৬৩ মিটার বা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি। পুরুষ প্রার্থীদের ওজন ৪৯.৯০ কেজি বা ১১০ পাউন্ড। পুরুষ প্রার্থীদের বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ০.৭৬ মিটার বা ৩০ ইঞ্চি, স্ফীত অবস্থায় ০.৮১ মিটার বা ৩২ ইঞ্চি হতে হবে। মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উচ্চতা ১.৬০ মিটার বা ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি, তবে বিভিন্ন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও সম্প্রদায়ের ক্ষেত্রে ১.৫৬ মিটার বা ৫ ফুট ১ ইঞ্চি হতে হবে। মহিলা প্রার্থীদের ওজন ৪৭ কেজি বা ১০৪ পাউন্ড এবং বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ০.৭১ মিটার বা ২৮ ইঞ্চি এবং স্ফীত অবস্থায় ০.৭৬ মিটার বা ৩০ ইঞ্চি হতে হবে।
স্বাস্থ্য পরীক্ষা : স্বাস্থ্য পরীক্ষায় যোগ্য।
বৈবাহিক অবস্থা : অবিবাহিত হতে হবে ( তালাকপ্রাপ্ত নয়)।
সাঁতার : সাঁতার জানা অত্যাবশ্যক।
ভর্তির সময় যেসব কাগজপত্র সাথে আনতে হবে :
১. শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সনদপত্র/মার্কশিট। ফটোকপি হলে প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে। ২. সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তৃক দেয়া স্থায়ী ঠিকানা ও জন্মতারিখসংবলিত মূল প্রশংসাপত্র।
৩. অভিভাবকের সম্মতিসূচক সনদপত্র, যা সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যান কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে। ৪. এসএসসি/এইচএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র। ৫. সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যান কর্তৃক দেয়া জন্মসূত্রে নাগরিকত্ব ও চারিত্রিক সনদপত্রের মূল কপি। ৬. কারিগরি দক্ষতার মূল সনদপত্র কেবল কারিগরি পেশায় আগ্রহী প্রার্থীদের জন্য।
৭. পাসপোর্ট সাইজের (৫ সে.মি. দ্ধ ৪ সে.মি.) ৬ কপি ও স্ট্যাম্প সাইজের (২.৫ সে.মি. দ্ধ ২ সে.মি.) ২ কপি ছবি। ছবির পটভূমি নীল/আকাশি রঙের, পরিধেয় পোশাক হালকা রঙের হতে হবে এবং ছবি প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড সরকারি কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত হতে হবে। ৮. সাঁতার পরীক্ষা দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পোশাক। ৯. লিখিত পরীক্ষার জন্য কলম, পেনসিল, স্কেল ও ক্লিপ বোর্ড ইত্যাদি।
নির্বাচন পদ্ধতি : লিখিত পরীক্ষা (বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান ও বুদ্ধিমত্তা), স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।
প্রশিক্ষণ : সেনাসদরের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৬ মাস থেকে ১ বছর মেয়াদি মৌলিক সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে।
ভর্তি পরীক্ষা : আগামী ২২ জানুয়ারি ২০১৭ থেকে ৩০ জুন ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত বিভিন্ন সেনানিবাসে প্রতিদিন
(শুক্রবার, শনিবার ও সরকারি ছুটির দিন ব্যতীত) সকাল ৮টা থেকে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সাধারণ জিডি ট্রেডে ভর্তিচ্ছুক পুরুষ ও মহিলা প্রার্থীদের টেলিটক মোবাইল থেকে নিচে বর্ণিত পদ্ধতিতে এসএমএস করে http://sainik.teletalk.com.bd অথবা www.joinbangladesharmy.mil.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। সব প্রার্থ্ীেক এ পদ্ধতি অবলম্বন করে নিজ নিজ ছবি ও রেলনম্বর সম্বলিত প্রবেশপত্র প্রিন্ট করে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।
বিএনসিসি ক্যাডারদের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ : আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখের মধ্যে নিজ নিজ রেজিমেন্টের কাছ থেকে সোনালী ব্যাংকের যেকোনো শাখার মাধ্যমে সেনাসদর এজি শাখা, পিএ পরিদফতরের নামে সোনালী ব্যাংক, ঢাকা সেনানিবাস করপোরেট শাখার অনুকুলে ২০০ টাকার পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফট-এর বিনিময়ে নির্ধারিত সংস্থা থেকে ভর্তি ফরম সংগ্রহপূর্বক পরীক্ষার তারিখ ও সময় জেনে নিতে হবে।
সেনাসন্তান ও কারিগরি ট্রেড প্রার্থী : সেনাসদর এজি শাখা, পিএ পরিদফতরের নামে সোনালী ব্যাংক ঢাকা সেনানিবাস করপোরেট শাখার অনুকূলে সোনালী ব্যাংকের যেকোনো শাখার মাধ্যমে ২০০ টাকার পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফট করে সেনা সন্তান এবং কারিগরি ট্রেডের প্রার্থীদের নির্ধারিত আর্মস/সার্ভিসেস সেন্টার থেকে নির্দিষ্ট তারিখে ভর্তি ফরম সংগ্রহ করে তা যথাযথভাবে পূরণ করে ভর্তি প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে হবে।
সেনাসন্তানদের (চাকরিরত ও অবসরপ্রাপ্ত) সন্তান কোটা ও অন্যান্য কারিগরি ট্রেডে সৈনিক পদে লোক ভর্তি ( করণিক ব্যতীত) :
আবেদনপত্র সংগ্রহের তারিখ : ৯ ও ১০ এপ্রিল ২০১৭।
আবেদনপত্র জমা দেয়ার তারিখ : ১১ ও ১২ এপ্রিল ২০১৭।
ভর্তির তারিখ : ১৩ এপ্রিল ২০১৭, সকাল আটটা।
ভর্তির স্থান : সব আর্মস/সার্ভিসেস সেন্টার সমূহ।
টিটিটিআই-এ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রার্থীদের কারিগরি ট্রেডে
ভর্তি : ট্রাস্ট টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউশন (টিটিটিআই) থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত যোগ্য প্রার্থীদের আগামী ৪ জুন ২০১৭ তারিখে কারিগরি ট্রেডে ভর্তি করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও সোনালী ব্যাংকের যেকোনো শাখা থেকে সেনাসদর, এজি শাখা, পিএ পরিদফতরের নামে সোনালী ব্যাংক, ঢাকা সেনানিবাস করপোরেট শাখার অনুকূলে ২০০ টাকার পে-অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফটসহ সকাল ৮টার মধ্যে টিটিটিআই, গাজীপুর সেনানিবাসে উপস্থিত হতে হবে।
অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ : ৫ জানুয়ারি ২০১৭।
আবেদনের নিয়ম : আগামী ৫ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এ ক্ষেত্রে টেলিটক প্রিপেইড সংযোগ থেকে ইংরেজিতে SAINIK লিখে স্পেস দিয়ে এসএসসির বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর স্পেস রোল নম্বর স্পেস পাসের সাল স্পেস জেলার কোড লিখে এসএমএস করতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। যাচাই শেষে যোগ্য প্রার্থীদের ফিরতি এসএমএসে একটি পিন নম্বর পাঠানো হবে। দ্বিতীয় ধাপে SAINIK লিখে স্পেস দিয়ে ণঊঝ স্পেস পিন নম্বর স্পেস মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২-তে এসএমএস করতে হবে।
মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে SAINIK-এর পরিবর্তে FSAINIK লিখে এসএমএস পাঠাতে হবে। এরপর পরীক্ষা ফি বাবদ মোবাইল থেকে ২০০ টাকা কেটে রাখা হবে। তাই দ্বিতীয় এসএমএসের আগে মোবাইলে ২০০ টাকার বেশি ব্যালেন্স রাখতে হবে। ফিরতি এসএমএসে USER ID ও Password জানিয়ে দেয়া হবে। যা ব্যবহার করে sainik.teletalk.com.bd বা www.joinbangladesharmy.mil.bd ওয়েবসাইটে লগইন করে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। এ সময় ৩০০ ী ৩০০ পিক্সেল এবং ফাইল সাইজ সর্বোচ্চ ১০০ কিলোবাইট সাইজের রঙিন ছবি আপলোড করতে হবে। সঠিকভাবে সব কিছু সাবমিট করার সাথে সাথেই প্রবেশপত্র পাওয়া যাবে। প্রবেশপত্র ডাউনলোড বা প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করতে হবে। বিএনসিসি, সেনা সন্তান ও কারিগরি ট্রেডে ভর্তিচ্ছু পুরুষ প্রার্থীরা সাধারণ ট্রেডে ভর্তি হতে আগ্রহী হলে একই নিয়মে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন। আবেদনকারীদের মধ্যে যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রথম ১৯৬৬০০ জন পুরুষ এবং ২৬০০ জন নারী প্রার্থীর এসএমএস প্রাথমিকভাবে গ্রহণ করা হবে। দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে শুধু ২৭টি জেলার নারী প্রার্থীরা সাধারণ ট্রেডে আবেদনের সুযোগ পাবেন। জেলাগুলো হলোÑ দিনাজপুর, নীলফামারী, রংপুর, কূড়িগ্রাম, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, নবাবগঞ্জ, ঝিনাইদহ, গোপালগঞ্জ, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, জামালপুর, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, নরসিংদী, মুন্সীগঞ্জ, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, কুমিল্লা, লক্ষ্মীপুর ও নোয়াখালী।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫