ঢাকা, সোমবার,১৬ জানুয়ারি ২০১৭

অনলাইন জগৎ

ফেসবুকে পোস্ট করে শিশুছেলে–সহ আত্মঘাতী মা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

২৯ ডিসেম্বর ২০১৬,বৃহস্পতিবার, ১৯:৫২


প্রিন্ট

জীবন মানেই যন্ত্রণা ছিল তার কাছে। তাই শেষ করে দিলেন নিজেকে। আত্মহত্যার আগে প্রাণে মারলেন নিজের এক বছরের সন্তানকেও। শুধু সব কিছু শেষ করে দেয়ার আগে ফেসবুক পোস্টে লিখলেন একটি দীর্ঘ সুইসাইড নোট। সেখানে বললেন, কীভাবে স্বামী তার দাম্পত্য জীবনকে বিষিয়ে দিয়েছেন।
২০১৪ সালে ৫৪ বছরের ট্রেসি অ্যালান শেরমেয়ারকে বিয়ে করেন নর্থ ক্যারোলিনার শেরি অ্যান গ্রিফিন। প্রথমটায় মনে করেছিলেন, প্রেমিক পুরুষটি আনন্দে ভরিয়ে দেবে তার জীবন। স্বপ্ন ভাঙতে সময় লাগেনি। কয়েক বছরের মধ্যেই আসল রূপটা বেরিয়ে পড়ে স্বামীর। মদ্যপ স্বামী নাকি একা ফেলে রাখতেন তাকে। একা থাকতে থাকতে ক্রমে সমাজ জীবন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছিলেন তিনি। বাইরের পরিবেশে মিশতে পারতেন না, কোথাও যেতে পারতেন না। তাই শেষ পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত নিলেন।
ফেসবুকে দীর্ঘ পোস্টের একটি অংশে তিনি স্বামীকে উদ্দেশ করে লিখলেন, ‘‌তুমি এক সন্তানের অভিভাবক, এই কথাটা ভুলে গেছ। তোমার অধিকারই নেই সন্তানের অভিভাবক হওয়ার। আমি চাইব, পৃথিবীর কেউ যেন এমন বাবা না পায়’‌।
ঘৃণার কোন স্তরে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি, লেখার শেষ অনুচ্ছেদেই বোঝা গেল সেটা। লিখলেন, ‘‌আমি আর কয়েক মিনিট পরেই মারা যাব। তুমি ভালো থেকো। তোমার অসহ্য জীবনযাপন নিয়ে আনন্দে থেকো। আমি আশা করব, নরকে গিয়েও যেন তোমার সঙ্গে দেখা না হয়।’‌
ফেসবুকে এই মর্মে পোস্ট করার দু’‌ঘণ্টার মধ্যেই পুলিশ পৌঁছে যায় তার বাড়িতে। সেখানে গিয়ে দেখা যায়, ছেলেকে শ্বাসরোধ করে খুন করেছেন তিনি, নিজে বন্দুক দিয়ে নিজের মাথায় গুলি করেছেন। ‌‌‌

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন
চেয়ারম্যান, এমসি ও প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

ব্যবস্থাপনা পরিচালক : শিব্বির মাহমুদ

১৬৭/২-ই, ইনার সার্কুলার রোড, ইডেন কমপ্লেক্স, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ৭১৯১০১৭-৯, ৭১৯৩৩৮৩-৪

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫