ঢাকা, সোমবার,২৩ এপ্রিল ২০১৮

ধর্ম-দর্শন

হজের নিবন্ধনের সময় ৭ জুন পর্যন্ত বাড়ল

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩১ মে ২০১৬,মঙ্গলবার, ০৬:১১


প্রিন্ট

বেসরকারি হজযাত্রীদের হজের পুরো টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধনের সময়সীমা আরো আট দিন বাড়িয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। আগামী ৭ জুন পর্যন্ত নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে। আগের ঘোষণা অনুযায়ী গতকাল ৩০ মে ছিল নিবন্ধনের শেষ দিন। গত রাত ৮টার পর ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের বাসায় মন্ত্রী, কর্মকর্তা ও হাব নেতাদের এক বৈঠকে নিবন্ধনের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। হাব নেতারা নিবন্ধনের সময় ১৫ দিন বাড়ানোর জন্য আবেদন করেছিলেন। 

হাবের সহসভাপতি ফরিদ আহমেদ মজুমদার ও মহাসচিব শেখ আবদুল্লাহ মন্ত্রীর সাথে বৈঠক শেষে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
রাতে এ রিপোর্ট লেখার সময় ভারপ্রাপ্ত ধর্মসচিব আবদুল জলিলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা সৌদি আরবের সাথে কথা বলে সময় বর্ধিত করার জন্য মন্ত্রীর কাছে ফাইল পাঠিয়েছি। উনি সেখানে হাব নেতাদের সাথে বৈঠক করছেন। ফাইল এখনো ফেরত আসেনি। তিনি আরো জানান, গতরাত পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনার চার হাজার ৪১১ ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার ৩৯ হাজার ৮২৩ জনের নিবন্ধন শেষ হয়েছে।
বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধিতদের মধ্য থেকে নির্ধারিত ৮৮ হাজার ২০০ জনের নিবন্ধন হওয়ার কথা। এই হিসাবে গতকাল শেষ সময় পর্যন্ত অর্ধেকেরও কম সংখ্যক বেসরকারি হজযাত্রীর নিবন্ধন শেষ হয়।
জানা গেছে, হাব নেতাদের জোরালো দাবির মুখে ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান নিবন্ধনের সময় সাত দিন বৃদ্ধি করেন। এরপর আর কোনো সময় বৃদ্ধি করা হবে না বলে জানান। হাবের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল কবির খান জামান এবং মন্ত্রণাললের যুগ্মসচিব নজরুল ইসলাম মন্ত্রীর সাথে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
এ বছর সরকার নির্ধারিত সর্বনি¤œ প্যাকেজ মূল্য তিন লাখ চার হাজার ৯০৩ টাকা। এর মধ্যে প্রাক-নিবন্ধনের জন্য সরকারি ব্যবস্থাপনার েেত্র ফিসহ ৩০ হাজার এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনার জন্য ৩০ হাজার ৭৫২ টাকা নেয়া হয়। প্রাক-নিবন্ধনের সময়সীমা গতকাল শেষ হয়। সর্বনি¤œ প্যাকেজ মূল্যের হিসাবে নিবন্ধনের সময় বাকি দুই লাখ ৭৪ হাজার ১৫১ টাকা জমা দিতে হচ্ছে হজযাত্রীদের। অনলাইনে হজযাত্রীদের বাকি টাকা প্রাপ্তির বিষয়টি এন্ট্রি করার পরই হজযাত্রী প্রতি পিলগ্রিম আইডি দেয়া হবে। যারা শুধু পিলগ্রিম আইডি পাবেন, তারাই হজে যেতে পারবেন। চলতি বছর সরকারি-বেসরকারি মিলে মোট হজযাত্রী পাঠানোর কোটা এক লাখ এক হাজার ৭৫৮ জন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনার কোটা ১০ হাজার। বাকি ৯১ হাজার ৭৫৮ জন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় যাবেন। এর মধ্যে গাইড বাদ দিয়ে বেসরকারি ব্যবস্থাপনার জন্য ৮৮ হাজার ২০০ জনের কোটার নির্ধারণ করা হয়।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫