১৪ নভেম্বর ২০১৮

অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি : রাজধানীতে ৫ জন গ্রেফতার

-

রাজধানীর গেণ্ডারিয়ায় এক ব্যক্তিকে অপহরণ ও দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে অপরাধী চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এ সময় অপহৃত আব্দুল হক রাজকে উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো-সবুজ, বশির, ফারুক, লাভলু ও জালাল মিয়া।

সোমবার সকালের দিকে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ডিএমপির লালবাগ জোনের ডিসি ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, রোববার রাতে গেণ্ডারিয়া এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে গেন্ডারিয়া থানা পুলিশ।

তিনি জানান, অপহরণের শিকার আব্দুল হক শাহ সিমেন্ট কোম্পানীতে এস আর পদে চাকরি করেন। ১২ জুলাই কনস্ট্রাকশন সাইটের কাজ দেয়ার কথা বলে আশা নামের এক মেয়ে ফোন দিয়ে আব্দুল হককে গেন্ডারিয়ার সোনালী নুপুর কমিউনিটি সেন্টারের সামনে নিয়ে যায় এবং কনস্ট্রাকশনের সাইটের লোকজনের সঙ্গে কথা বলার জন্য টঙ্গীর দত্তপাড়ার একটি বাড়ির তিনতলায় নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে অবস্থানরত অপহরণকারীরা আব্দুল হককে জোর করে আটকে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও মারধর করে। অপহরণকারীরা মুক্তিপণ বাবদ আব্দুল হককে বিকাশের মাধ্যমে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে বলে ও এর জন্য অনবরত চাপ প্রয়োগ করতে থাকে।

ডিসি ফরিদ জানান, অভিযোগ পেয়ে পুলিশ অভিযান চালালে তা টের পেয়ে অপহরণকারীরা স্থান পরিবর্তন করতে থাকে। একপর্যায়ে ১৫ জুলাই আব্দুল হককে দত্তপাড়া থেকে কামাড়পাড়ার জালাল মিয়ার বাড়িতে নিয়ে যায় এবং মুক্তিপণের জন্য চাপ দিতে থাকে। কিন্তু পুলিশ উন্নত প্রযুক্তির সহায়তায় অপহরণকারীদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে ওই দিন রাত ৯টার দিকে অভিযান চালিয়ে আব্দুল হককে উদ্ধার করে এবং সেখান থেকে বশির, ফারুক ও জালালকে গ্রেফতার করে। পরে তাদের দেয়া তথ্যে টঙ্গী থেকে বাকি দুইজনকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।


আরো সংবাদ