২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মাদকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা !

মাদকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা ! - নয়া দিগন্ত

মাদকের টাকা না পেয়ে আন্তসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত গৃহবধূর নাম নাছিমা আক্তার (২২)। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এর আগে গত দুই সপ্তাহ আগে নাসিমাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে স্বামী ওয়াহিদুল ইসলাম উজ্জল।

নিহত নাছিমার মা রোকেয়া বেগম জানান, উজ্জল খিলগাঁও এলাকার একটি মটর ওয়ার্কশপে কাজ করে। বর্তমানে খিলগাও মেরাদিয়া মধ্যপাড়ার একটি বাসায় নাছিমা ও তাদের চার বছরের মেয়ে ফারজানাকে নিয়ে ভাড়া থাকতো। বিয়ের প্রথম দিকে তাদের সংসার ভালোই চলছিলো। কিন্তু উজ্জল মাদকাসক্ত হওয়ার পর থেকেই শুরু হয় অশান্তি। নেশার টাকার জন্য প্রায় স্ত্রী নাছিমাকে মারধর করতো। সম্প্রতি নাছিমা তিন মাসের অন্তসত্তা হয়ে পড়ে।

গত দুই সপ্তাহ আগে উজ্জল নেশার জন্য নাছিমার কাছে টাকা চায়। কিন্তু সে টাকা অস্বিকার করলে উজ্জল তাকে বেধড়ক মারধর করে। এতে নাছিমা গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে আদ্ব দীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। ঘটনার পর থেকে উজ্জল পলাতক রয়েছে। নাছিমার মায়ের অভিযোগ , স্বামী উজ্জলের মারধরের কারনে তার মেয়ে নাছিমার মৃত্যু হয়েছে। নিহত নাছিমা ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার কালুয়া পাড়া গ্রামের মাবুদ আলীর মেয়ে।


আরো সংবাদ