film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indirEzhel mp3 indir, Ezhel albüm şarkı indir mobilhttps://guncelmp3indir.com Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

উইকেট পেয়ে ‘জাদু’ দেখালেন প্রোটিয়া স্পিনার

ম্যাচ জিতে, সেঞ্চুরি করে অথবা উইকেট পেয়ে একেকসময় একেক ধরনের উদযাপনে মাতেন ক্রিকেটাররা। কিন্তু তাই বলে মাঠের মধ্যেই লাইভ ম্যাজিক! এমনটা হয়তো কেউ কখনও কল্পনাও করেনি। কিন্তু এই কল্পনাতীত ব্যাপারটিকেই বাস্তবে পরিণত করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান স্পিনার তাবরাইজ শামসি।

যিনি কি না লাইভ খেলার মধ্যে মাঠেই হয়ে গিয়েছিলেন জাদুকর। চোখের পলকে অসাধারণ এক জাদু দেখিয়ে অবাক করে দিয়েছেন সবাইকে। অভিনব সব উদযাপনের কারণে সবসময়ই শামসির ওপর থাকে আলাদা নজর। এবার সেটিকে ভিন্ন এক মাত্রায় নিয়ে গেছেন ২৯ বছর বয়সী এ স্পিনার।

ঘটনা গত বুধবার রাতে এমজানসি সুপার লিগে পার্ল রকস ও ডারবান হিটের মধ্যকার ম্যাচের। আগে ব্যাট করে ২ উইকেটে ১৯৫ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করায় শামসির পার্ল রকস। পরে বল হাতে নিয়ে ডারবান ইনিংসের অষ্টম ওভারের শেষ বলে উইহান লুবেকে শর্ট কভারে দাঁড়ানো হার্ডাস ভিলজোয়েনের হাতে ক্যাচে পরিণত করেন শামসি।

এটুকু পর্যন্ত সব স্বাভাবিকই ছিলো। কিন্তু এরপরই উইকেট উদযাপনের উদ্দেশ্যে দৌড় শুরু করেন শামসি। হঠাৎ করেই পকেট থেকে বের করেন একটি লাল রুমাল। সবাই অবাক হয়ে রুমালের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করার আগেই সেটি চোখের পলকে রুপ নেয় একটি লাঠিতে। যা রীতিমতো বিস্ময়ের জন্ম দেয় সবার মাঝে।

কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে রুমালকে লাঠিতে পরিণত করার ম্যাজিক দেখিয়ে পুরো ক্রিকেট বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছেন শামসি। যা স্বাভাবিকভাবেই ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

অবশ্য এমন অদ্ভুতকাণ্ড ঘটিয়েও খুব স্বাভাবিক রয়েছেন শামসি। খেলার মাঠে নিজের শখের বিষয় দেখাতে পারার আনন্দের অভিভূত তিনি। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি সবসময়ই জাদু এবং বিভিন্ন ট্রিকগুলো দেখে অভিভূত। তখন বয়স হবে ১৫ বা ১৬, আমি চাইতাম জাদুকর হতে। কারণ এটা আমার শখ ছিলো। আমি এখনও জাদু ভালোবাসি। তবে এখন ক্রিকেটই সবার আগে।’

শামসি আরও বলেন, ‘দর্শকরা আসেন আমাদের খেলা দেখতে। প্রায়ই আমরা (খেলোয়াড়রা) খেলা নিয়ে বেশি সিরিয়াস হয়ে যায়। আমরা মাঠে অনেক ভুল করি, সবাই-ই করে। তবে এসব উদযাপনের কারণে আমার মাঠের খেলায় কোনো ছাপ পড়বে না। এমন নয় যে এসব জাদু দেখানোর কারণে আমি ছক্কা খেয়ে যাবো। বিনোদনের মাধ্যমে নিজে চাপমুক্ত রাখাই আমার সিস্টেম। যখন আমি উপভোগ করি, তখনই সেরাটা খেলতে পারি।’


আরো সংবাদ