১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

১০ বছর পর টেস্ট ক্রিকেট ফিরছে পাকিস্তানে

দীর্ঘ ১০ বছর পর টেস্ট ক্রিকেট ফিরছে পাকিস্তানে। ডিসেম্বরে রাওয়ালপিন্ডি ও করাচিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে দুটি টেস্ট খেলবে শ্রীলঙ্কা। ১১–১৫ ডিসেম্বর প্রথম টেস্ট হবে রাওয়ালপিন্ডিতে। ১৯–২৩ ডিসেম্বর দ্বিতীয় টেস্ট করাচির জাতীয় স্টেডিয়ামে।

অক্টোবরেই পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলার কথা ছিলা শ্রীলঙ্কার। কিন্তু পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার জন্যই সিরিজ পেছানো হয়েছে। তার উপর সিরিজ নিয়েও অনিশ্চয়তা ছিল।  বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড টেস্ট সিরিজ খেলার বিষয়ে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছে। তবে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রাখছে শ্রীলঙ্কা বোর্ড। ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা যেন কমতি না থাকে।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের ডিরেক্টর জাকির খান বলেছেন, ‘‌পাক ক্রিকেটের জন্য দারুণ খবর। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় আছে। শ্রীলঙ্কা বোর্ডের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।’‌ এদিকে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের তরফে অ্যাশলে ডি সিলভা বলেছেন, ‘‌এর আগেও সিরিজ নিয়ে কথা হয়েছিল। কিন্তু ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা নিয়ে আমরা চিন্তিত ছিলাম। অবশেষে দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত আমরা নিয়েছি। আমি মনে করি, সব ক্রিকেট খেলুড়ে দেশেরই ঘরের মাঠে ম্যাচ আয়োজন করার অনুমতি পাওয়া উচিত। পাকিস্তান সফরে যাওয়ার আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুটো টেস্ট খেলবে লঙ্কানরা।’‌

২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের গাড়ি বহরে হামলা হওয়ার পর দীর্ঘদিন পাকিস্তানের মাটিতে কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়নি। কিন্তু ইতোমধ্যে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে ম্যাচে ফেরানোর চেষ্টা করে সফল হয়েছে দেশটি। টি-টোয়েন্টি ও ওডিআই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হলেও হামলার পর থেকে এখনো কোনো টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়নি পাকিস্তানে। অবশেষে সেটিও সম্ভব করার দ্বারপ্রান্তে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

সূত্র : ক্রিকেট পাকিস্তান


আরো সংবাদ




hacklink Paykwik Paykasa
Paykwik