film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indirEzhel mp3 indir, Ezhel albüm şarkı indir mobilhttps://guncelmp3indir.com Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বাতিল হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ!

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামের অবস্থা ঠিক এমনই। এখানেই রোববার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটাই বাংলাদেশ-ভারত প্রথম টি-২০ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা - সংগৃহীত

সময় যতো গড়াচ্ছে, ভারতের রাজধানীর নয়াদিল্লির পরিস্থিতি ততো জটিল হচ্ছে। শনিবারের হালকা বৃষ্টির পর রোববার সকালে পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হলেও বেলা যতো এগিয়েছে পরিস্থিতি ততোটাই খারাপ হয়েছে। রোববার সকাল ১০টা নাগাদ দিল্লির বেশ কিছু অঞ্চলে বাতাসের গুণমান (একিউআই) সূচক ৬০০ অতিক্রম করে গিয়েছিল। বেলা দু’‌টো নাগাদ বাতাসের গুণমান পৌঁছায় ৯৯৯–এ। নয়ডায় বাতাসের গুণমান সূচক পৌঁছায় ১০৪৫–এ।

পরিবেশ বিশেষজ্ঞদের মত, এই সূচক শূন্য থেকে ৫০–এর মধ্যে ঘোরাফেরা করলে বুঝতে হবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক। আর সেই যায়গায় সূচক ১০০০ অতিক্রম করেছে। যা স্বাস্থ্যের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর। শুক্রবারই দিল্লিতে জনস্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। রাস্তায় বেরলে মাস্ক ব্যবহার করার নির্দেশ দিচ্ছেন পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড। আর এদিকে আজ রোববার সন্ধ্যায় দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে ভারত বাংলাদেশ ম্যাচ। দিল্লির বর্তমান পরিস্থিতি যা, তাতে ম্যাচ আদৌও হবে কিনা, তা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

দিল্লি ক্রিকেট বোর্ড সূত্রে খবর, দিল্লির এই বায়ু দূষণের কারণে বাতিল হয়ে যেতে পারে ভারত এবং বাংলাদেশের টি-২০ ম্যাচ। যদিও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, খেলা বাতিল করা হচ্ছে না। বিসিসিআই পরিষ্কার করে জানিয়ে দিয়েছে, ম্যাচ যেহেতু সন্ধ্যে সাতটা থেকে শুরু, তাই এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়।

রোববার সকাল থেকে হালকা বৃষ্টি শুরু হয় দিল্লিতে। ভারতের রাজধানীর বেশ কিছু জায়গায় এদিন মাঝারি বৃষ্টিপাতও হয়। কিন্তু তাতে করে হিতের বিপরীতই হয়েছে কিছুটা। বৃষ্টি কোথায় দিল্লির বাতাস শুদ্ধ করে দেয়ার কথা! তার জায়গায় বৃষ্টির পর যেন আরও বিষাক্ত হয়ে গিয়েছে রাজধানী দিল্লিসহ আশপাশের এলাকার আকাশ।

এদিকে বৃষ্টির জন্য ব্যাপকভাবে বিঘ্নিত হয় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ছট পুজো। পুজোর চূড়ান্ত দিনে সূর্যের মুখই দেখতে পাচ্ছেন না উপাসকরা। তা নিয়ে ক্ষোভও জানিয়েছেন বেশ কিছু মানুষ। তবে দিল্লি, গুরুগ্রাম এবং নয়ডার মানুষজনের অভিযোগ, বৃষ্টিতে লাভের লাভ কিছুই হচ্ছে না। শ্বাস নিতে যথেষ্ট বেগ পেতে হচ্ছে, চোখ জ্বালা করছে রোববার সকাল থেকেই-- অভিযোগ দিল্লির মানুষজনের।

রোববার সকাল থেকে বৃষ্টি হলেও বাতাসে দূষণের পরিমাণ আরও বেড়েছে গোটা দিল্লি অঞ্চল জুড়েই। সূত্রের খবর, আরও বিষাক্ত হতে শুরু করেছে দিল্লির আকাশ। রোববার সকাল থেকেই দিল্লিতে দূষণের সূচক ৪৪৭ এর কাছাকাছি ছিল। রোববার ঠিক ভোর সাড়ে ৫টা নাগাদ দিল্লিতে একিউআই সূচক ছিল ৪৪৭ এর কাছাকাছি। শনিবার রাত ৮টার দিকে একিউআই ছিল ৪০২ এর কাছে। সেই জায়াগায় বৃষ্টি হওয়া সত্ত্বেও আরও দূষিত হয়েছে দিল্লির আকাশ। এমনকী এদিন একটা সময়ে সূচক ৪৬৬-র কাছাকাছিও চলে যায়।

আর এই দূষণের জন্যই দিল্লিতে ব্যাপক ভাবে প্রভাবিত হয়ে পড়েছে বিমান চলাচল। বিমান ওঠানামা করতে যথেষ্ট সমস্যা হচ্ছে। রোববার মোট ৩২টি ফ্লাইট অন্য এয়াপোর্টে অবতরণ করানো হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার ১২টি বিমান। অন্যদিকে গৌতমবুদ্ধনগর এবং নয়ডার স্কুলগুলি ৫ নভেম্বর পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এমনই অবস্থায় রোববার আবার দিল্লিতে ভারত এবং বাংলাদেশের প্রথম টি-২০ ম্যাচ। দিল্লি এবং জেলা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (ডিডিসিএ) সূত্রের খবর, দিল্লির এই বায়ু দূষণের কারণে বাতিল হয়ে যেতে পারে ভারত এবং বাংলাদেশের টি-২০ ম্যাচ। যদিও বিসিসিআই-এর তরফে বলা হয়েছে যে, খেলা বাতিল করা হচ্ছে না। ভারতীয় বোর্ড পরিষ্কার করে দিয়েছে যে, ম্যাচ যেহেতু সন্ধ্যে সাড়ে সাতটা থেকে শুরু তাই এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়।

দিল্লিতে দূষণের কারণে পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে জনস্বাস্থ্য সম্পর্কিত জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। ৫ নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লির সর্বত্র নির্মাণ ও বাজি ফাটানো নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে এনভায়রনমেন্ট পলিউশন প্রিভেনশন অ্যান্ড কন্ট্রোল অথরিটি। একই সময় পর্যন্ত স্কুলগুলোতেও ছুটি ঘোষণা করেছে দিল্লি সরকার। সূত্র : এই সময় ও আজকাল।


আরো সংবাদ