১৪ নভেম্বর ২০১৯

ডি ককের তাণ্ডবে উড়ে গেলো ভারত

ডি-ককের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে ভারতকে উড়িয়ে দিয়েছে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা।

ভারতের দেয়া ১৩৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৬.৫ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় প্রোটিয়ারা।

রেজা হেন্ড্রকিস ২৮ রান করে হার্দিক পাণ্ডিয়ার শিকার হয়ে ফিরে গেলেও জয় থেকে থামাতে পারেনি আফ্রিকানদের।কুইন্টন একই খেলেন ভারতয়ি বোলারদের। ৫২ বলে খেলেন হার না মানা ৭৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। ৫টি ছক্কা ও ৬টি চারে সাজান ইনিংসটি। তেম্বা বাভুমার ব্যাট থেকে আসে অপরাজিত ২৩ বলে ২৭ রান।

তিন ম্যাচের সিরিজে প্রথম ম্যাচটি বৃষি।ট কেড়ে নেয়। শেষ দুই ম্যাচে দুদলই একটি করে ম্যাচ জেতায় সিরিজ সমতার মধ্য দিয়েই শেষ হয়।

এর আগে বেঙ্গালুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে আগে ব্যাট করে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রান তুলল টিম ইন্ডিয়া।

বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে রান তাড়া করতেই পছন্দ করে সব দল। কিন্তু উল্টো সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজেদের ব্যাটিং অর্ডারকে পরীক্ষার মধ্যেই যেন ফেললেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহালি। 

ব্যাট করতে নেমে ৮.৩ ওভারে ৬৮ রানে তিন উইকেট হারায় ভারত। সেখানেই কিছুটা চাপে পড়ে তারা। রোহিত শর্মা আট বলে ৯, শিখর ধাওয়ান ২৫ বলে ৩৬ ও বিরাট কোহালি ১৫ বলে ৯ রানে আউট হলে, সেই চাপ আর কাটিয়ে উঠতে পারল না ভারত।

শেষ দিকে ঋষভ পন্তের ২০ বলে ১৯, শ্রেয়াস আইয়ারের আট বলে ৫, ক্রুণাল পাণ্ডিয়া ১১ বলে ৬ রানে ফেরেন। সিনিয়রদের ব্যর্থতার দিনে নতুনরাও সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি। ৯৮ রানে ছয় উইকেট হারিয়ে কঠিন চাপে পড়ে ভারত। সেখান থেকে হার্দিক পাণ্ডিয়া ও রবীন্দ্র জাদেজা সপ্তম উইকেটে ২৯ রান যোগ করেন। কিন্তু জাদেজা ১৭ বলে ১৯, হার্দিক ১৭ বলে ১৪ ও ওযাশিংটন সুন্দররা এক বলে ৪ রান ছাড়া কেউই ঝড় তুলতে পারেননি।

যার ফলে ভারতকে থামতে হয় ৯ উইকেটে ১৩৪ রানে।

আফ্রিকান বোলারদের মধ্যে রাবাদা ৩টি, হেনড্রিকস ও ফার্চুন ২টি করে উইকেট শিকার করেন।


আরো সংবাদ