film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indirEzhel mp3 indir, Ezhel albüm şarkı indir mobilhttps://guncelmp3indir.com Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ভাগ্যের সহায়তাও চাচ্ছেন মাশরাফি

মাশরাফি - ছবি : সংগৃহীত

আজ বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে ভালো ফল করতে হলে আত্মবিশ্বাস ছাড়া ভাগ্যের সহায়তা দরকার মনে করছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।
আগামীকালের ম্যাচের আগে আজ সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বলেন, ‘দু’টি ভিন্ন ম্যাচ। এক ম্যাচ খেলার পর অন্য দলকে নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। সবার সাথে সবার খেলতে হচ্ছে। ভিন্ন কন্ডিশন, তাই প্রত্যক ম্যাচে নতুনভাবে শুরু করতে হচ্ছে। কালকের ম্যাচটা আলাদাভাবে গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের ভালো খেলতে হবে। এ জন্য আত্মবিশ্বাসটা অনেক জরুরি। সেই সাথে ভাগ্যও। আমি সব সময় ভাগ্যের কথা বলে থাকি। তবে মাঠে গিয়ে আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে পারবো।’

আগের ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক জয়ের স্বাদ নিয়েছে বাংলাদেশ। সাকিবের ১২৪ ও লিটন দাসের ৯৪ রানের উপর ভর করে, ৩২২ রানের টাগেট অতিক্রম করে ফেলে টাইগাররা। ঐ জয়ে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নতুন ম্যাচ, ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে যা হয়েছে তা কাজে দিবে না বলে জানান মাশরাফি, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে যা হয়েছে তা এ মাঠে উপকারে আসবেনা। অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে সবসময়ই ফেভারিট দল। বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া ভিন্ন কিছু করে থাকে। আমার কাছে মনে হয় অন্যতম সেরা দলের সাথে কাল খেলা। এখানে সেরা খেলা ছাড়া আর কোন অপশনই নাই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের চাইতে তাদের বোলিং-এ অনেক বেশি বৈচিত্র্য আছে। তাদের ব্যাটিং-ও অনেক ভালো। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটিং-এ যে অবস্থায় ছিলো, সেখানে অস্ট্রেলিয়া থাকলে সাড়ে ৩ শ' রান করবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যে পরিস্থিতি তৈরি করতে পেরেছে, তা অস্ট্রেলিয়াকে করতে দিলে ভিন্ন ধরনের ফল হবে। তাদের অনেক বৈচিত্র্য আছে, তারা অনেক বেশি প্রফেশনাল দল।

বুধবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় নটিংহামে অনুশীলন করে অস্ট্রেলিয়া। তাদের টপ-অডার ব্যাটসম্যানরা স্পিনারদের নিয়ে বেশি অনুশীলন করে। বাংলাদেশের স্পিনারদের সামলাতেই এমন অনুশীলন অস্ট্রেলিয়ার। এটি শুনে ভালো অনুভব করছেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘অনুশীলনে তারা স্পিনারকে বেশি মোকাবেলা করেছে, এটা আমার কাছে মনে হয় যে- এটা পজিটিভও নেয়া যায় নেগেটিভও নেয়া যায়। নেগেটিভের চাইতে পজিটিভই নেয়া যায়। তারা অন্তত আমাদের স্পিনারদের নিয়ে চিন্তা করছে এটি খুবই ভালো দিক। এখান দিয়েও তাদের অ্যাটাক করার সুযোগ থাকবে আমাদের।’

টুনামেন্টে এখন পর্যন্ত নিজের সেরা ফমে আছেন সাকিব। তাই সাকিবের প্রশংসা করলেন মাশরাফি, ‘সাকিব যা করছে, তা দুর্দান্ত। সাকিব সবসময়, দলের জন্য এমন অবদান রেখেই এসেছে। এটি বড় মঞ্চ, এজন্য তা সবার চোখে বেশি করে পড়ছে। তিন নম্বরে এসে সে যেভাবে খেলছে, পাঁচ-এ বসে তা করা সম্ভব হয় না। পাঁচ’এ নেমে বড় ইনিংসও খেলাও যায় না। দলের জন্য ও তার জন্য এটি খুবই ভালো। তিন নম্বরে নেমে সে এই ধরনের ইনিংস খেলছে। আমরা বা ও নিজেও হয়তো চিন্তা করেনি, সব কিছু এভাবে এত ভালোভাবে চলতে থাকবে। আমি তার জন্য দোয়া করছি, এভাবে যেন ওর ইনিংসগুলো চলতে থাকে।’
২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ও শেষ জয় ছিলো বাংলাদেশের। তবে ১৪ বছর কেটে গেছে অসিদের বিপক্ষে জয় নেই অসিদের। তাই কালকের ম্যাচ নিয়ে অনেক বেশি চিন্তা মাশরাফির, ‘অস্ট্রেলিয়ার সাথে আমাদের অনেক বড় গ্যাপ হয়ে গেছে, আমরা জয় পাচ্ছি না। অস্ট্রেলিয়ার সাথে আমাদের খেলারও সুযোগ হয়নি, এটা সত্যি কথা। অস্ট্রেলিয়ার সাথে পরে যে খেলাগুলো আমরা খেলেছি, তখন তাদের সাথে বড় ধরনের পার্থক্য ছিলো। তারপরও তাদের সাথে খুব বেশি খেলার সুযোগ পাইনি। তারপরও কালকের ম্যাচ নিয়েই আমাদের বেশি ফোকাস করা উচিত।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে একমাত্র জয়ের নায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল। ১০০ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তাই আজ আশরাফুলকেও স্মরন করলেন ম্যাশ, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আশরাফুল যা করেছিলো, সেটি অবশ্য খুবই ভালো ছিলো। আমাদের পুরো দলের জন্য ঐসময় দারুন এক মূর্হুত ছিলো। ঐ স্মৃতি এখনো আমাদের মনে আছে।’
এদিকে অস্ট্রেলিয়ার চিন্তার কারণ হয়েছে সাকিব। যেকোনোভাবেই হোক সাকিবকে শুরুতেই আটকে দিতে চায় অসিরা।
সূত্র : বাসস

 


আরো সংবাদ