২১ জুলাই ২০১৯

ইংলিশদের কল্যাণে ৩৭ বছরের রেকর্ড ভেঙে দিলেন রশিদ

আফগান অরাউন্ডার রশিদ খান। - ছবি : সংগৃহীত

 মঙ্গলবার ম্যানচেস্টার ওল্ড ট্রাফোর্ডে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরে ২৪তম ম্যাচে মুখোমুখি হয় ইংল্যান্ড-আফগানিস্তান। এই ম্যাচে রীতিমতো ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা ছক্ক=চারের ঝড় বয়ে দিয়েছে আফগান বোলারদের উপর। আর এই ম্যাচে বিশেষ করে ইয়ন মরগানের ব্যাটিং কল্যাণে বিস্ময়কর এক রেকর্ড গড়ে বসলেন আফগান লেগস্পিনার রশিদ খান।

বিশ্বকাপের ইতিহাসে এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান দেয়ার তালিকায় শীর্ষে উঠে এলেন রশিদ। তার আগে ১৯৮৩ বিশ্বকাপে ১২ ওভারে ১০৫ রান দিয়ে তালিকায় শীর্ষে ছিলেন নিউজিল্যান্ডের পেসার বোলার মার্টিন শ্যাডন। দীর্ঘ ৩৭ বছর পর ২০১৯ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৯ ওভারে ১১০ রান দিয়ে সেই রেকর্ডভেঙে শীর্ষে উঠে আসলেন রশিদ।

১৯৮৩ সালের ৯ জুন ওয়ানডে বিশ্বকাপের তৃতীয় আসরের উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিল নিউজিল্যান্ড। লন্ডনের ওভাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমেছিল স্বাগতিকরা।

কিউই বোলারদের তুলোধুনো করে নির্ধারিত ৬০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩২২ রান তুলেছিল ইংলিশরা। ম্যাচটিতে নিউজিল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি রান দিয়েছিলেন পেসার মার্টিন শ্যাডন। তার বোলিং ফিগার ছিল এমন- ১২ ওভারে ১০৫ রান খরচায় ২ উইকেট। এর মধ্যে আবার একটি মেডেন ওভারও পেয়েছিলেন তিনি। বলা উচিত, তখন ওয়ানডে ম্যাচ হতো ৬০ ওভারের। আর একজন বোলার ১২ ওভার করে বোলিং করতে পারতেন।

১৯৮৩ সালের পর আরো আটটি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কিন্তু এখনো বিশ্বকাপের সবচেয়ে খরুচে বোলার হিসেবে মার্টিন শ্যাডনই রয়ে গেছেন। অর্থাৎ বিশ্বকাপের এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি রান দেয়ার লজ্জার রেকর্ডটি এখনো সাবেক কিউই পেসার মার্টিন শ্যাডনের দখলে আছে। এ তালিকায় দুই নম্বরে আছেন উইন্ডিজ পেসার জেসন হোল্ডার।

২০১৫ সালের বিশ^কাপে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে ১০ ওভার বোলিং করে ১০৪ রান দিয়েছিলেন তিনি। ওই ম্যাচে আবার দুটি মেডেন ওভারও পেয়েছিলেন হোল্ডার। তালিকার পরের নামটি আফগান পেসার দাওলাত জাদরানের। বিশ্বকাপের একাদশ আসরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ১০ ওভারে তিনি দিয়েছিলেন ১০০ রান। বিশ্বকাপে খরুচে বোলারদের তালিকার চার নম্বরে আছেন সাবেক লঙ্কান পেসার অশান্তা ডে মেল।

১৯৮৭ সালের বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১০ ওভার বোলিং করে ৯৭ রান দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার এ বোলার। আর তালিকার পঞ্চম স্থানে আছেন বারমুডার একজন বোলার। তার নাম রাসেল লেভেরক। ২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হয়েছিল বারমুডা।

সেদিন বারমুডার বোলারদের নিয়ে ছেলেখেলায় মেতে উঠেছিলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। আগে ব্যাটিং করে ভারত করেছিল ৪১৩ রান। বারমুডার পক্ষে সবচেয়ে খরুচে বোলার ছিলেন রাসেল লেভেরক। ওই ম্যাচে ১০ ওভার বোলিং করে ৯৬ রান দিয়েছিলেন তিনি।


আরো সংবাদ




gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi