২২ জুলাই ২০১৯

যা বললেন সরফরাজ

সরফরাজ আহমেদ - ছবি : সংগ্রহ

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে পরাজিত হলেও নিজেদের বিশ্বকাপ স্বপ্ন এখনো শেষ হয়ে যায়নি বলে মনে করেন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

রোববার ওল্ড ট্রাফোর্ডে বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে (বৃষ্টি আইনে) ভারতের কাছে ৮৯ রানে পরাজিত হয় পাকিস্তান। এই পরাজয়ে গ্রুপ পর্বের ৫ ম্যাচ থেকে মাত্র ৩ পয়েন্ট অর্জিত হল পাকিস্তানের। এর ফলে ১০ দলের পয়েন্ট তালিকায় ৯ম অবস্থানে নেমে এসেছে পাকিস্তান। তালিকায় তাদের নিচে অবস্থান করছে শুধু মাত্র আফগানিস্তান।

এর আগে টসের বিপরীতে প্রথমে ব্যাটিং পাওয়া ভারত ম্যাচ সেরার পুরস্কার পাওয়া রোহিত শর্মার ১৪০ রানের ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৩৬ রান সংগ্রহ করে। এটি ছিল চলতি আসরে ভারতীয় ওপেনারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।
পরে বৃষ্টিতে আক্রান্ত হয়ে কার্টেল ওভারে নেমে আসে ম্যাচ। জয়ের জন্য পাকিস্তানের সামনে ৪০ ওভারে ৩০২ রানের টার্গেট নির্ধারণ করা হলেও ২১২ রানেই শেষ হয়ে যায় তাদের ইনিংস। এই নিয়ে বিশ্বকাপে চির প্রতিদ্বন্দ্বি ভারতের কাছে সাত ম্যাচে পরাজয় বরণ করল পাকিস্তান। ম্যাচ শেষে পাক অধিনায়ক সরফরাজ বলেন, ‘ভারতের কাছে এই পরাজয়ে আমরা দুঃখ পেয়েছি। এরকম ম্যাচে যখন আপনি পরাজিত হবেন, তখন স্বাভাবিকভাবে মানোবলও হারিয়ে ফেরবেন। এ কারণে আমাদেরকে মনোবল চাঙ্গা করতে হবে। কারণ এখনো আমরা বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়িনি। সে কারণে বাকি ৪ ম্যাচের সবকটিতেই আমাদেরকে জয়লাভ করতে হবে।’

বাকী এসব ম্যাচে পাকিস্তানের প্রতিপক্ষ যথাক্রমে, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ। যে কোন প্রকারেই পাকিস্তান সেমি-ফাইনালে খেলতে পারবে বলে একেবারেই জোর নিশ্চয়তা দিতে পারছেন না সরফরাজ। তবে তিনি বলেন, ‘আমরা জানি এখন কাজটি বেশ কঠিন হয়ে গেছে। আমাদেরকে বাকি চার ম্যাচের সবকটিতেই জয় পেতে হবে। সুতরাং এখানে ব্যর্থ হবার কোনো সুযোগ নেই।’

টুর্নামেন্টর ফেভারিটের তকমায় থাকা ইংল্যান্ডকে হারালেও পাকিস্তান পরের ম্যাচে বৃষ্টির কারণে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে। পরে অস্ট্রেলিয়ার কাছেও পরাজিত হয় তারা। হাই ভোল্টেজ ম্যাচের তীব্র চাপকে দারুনভাবে মোকাবেলা করায় ভারতের প্রশংসা করে সরফরাজ বলেন, ‘এটি সত্যি যে বিশ্বকাপে আমরা ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ জয় করতে পারছি না। আমি মনে করি এটি স্পেশাল গেম এবং ভারত দারুণভাবেই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারছে। আগের ম্যাচের মতো এ দিনও ভারত পরিস্থিতির চমৎকারভাবে মোকাবেলা করেছে।’

তার মতে পাকিস্তানের মিডল অর্ডারের ধ্সই ম্যাচ হারে তাদের টার্নিং পয়েন্ট। বলেন, ‘আমার মতে বাবর (আজম) ও ফকর (জামান) সত্যি ভালো খেলেছে। তবে অপ্রত্যাশিতভাবে আমরা বেশি উইকেট হারিয়ে বসেছি। এটিই ছিল আমাদের জন্য টার্নিং পয়েন্ট।’

এক উইকেটে ১১৭ রান করা পাকিস্তান বাবর ও ফকরের দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ১০৪ রান যোগ করার পর পরবর্তী ১৮ বলের ব্যবধানে হারিয়ে বসে চার উইকেট।
সূত্র : এএফপি


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi