২২ জুলাই ২০১৯

শাস্তির মুখে শ্রীলঙ্কা

শাস্তির মুখে শ্রীলঙ্কা - ছবি : সংগ্রহ

চলতি বিশ্বকাপে শনিবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে পরাজিত হওয়ার পর নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত না হওয়ায় ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কাছ থেকে শাস্তির মুখে পড়তে পারে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট।
ওভালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৮৭ রানে পরাজিত হয় দিমুথ করুনারত্নের নেতৃত্বাধীন শ্রীলঙ্কা দল। এ ম্যাচে পরাজিত হওয়ায় দলটির টুর্নামেন্টে খেলার আশা হুমকির মুখে পড়ে গেছে।

ম্যাচ শেষে লঙ্কান অধিনায়ক করুনারত্নে ও অন্যান্য খেলোয়াড়দের নির্ধারিত একটি সংবাদ সম্মেলনে ও ‘মিক্সড জোনে’ হাজির হওয়ার কথা ছিল।
তবে তারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হতে অস্বীকার করেন এবং টুর্নামেন্ট আয়োজক আইসিসির কাছ থেকে শাস্তির মুখোমুখি হতে পারে।
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে কিনা জানতে চাইলে আইসিসির এক মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন,‘হ্যাঁ। শ্রীলঙ্কা আমাদের জানিয়েছে তারা সংবাদ সম্মেলন করতে চান না। আইসিসি তাদের সঙ্গে কথা বলবে।’

টিম ম্যানেজার অশান্তা ডি মেল তার দলের প্রতি আইসিসির আচরণের সমালোচনা করার এক দিন পরই শ্রীলঙ্কা গণমাধ্যমেরর সঙ্গে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানাল।
ডি মেল বিশ্বকাপে পিচ, অনুশীলন সুবিধা, পরিবহণ এবং বাসস্থানের মানের সমালোচনা করেন।

ডি মেল-এর উদৃতি দিয়ে শ্রীলঙ্কান সংবাদ পত্র ডেইলি নিউজ প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, ‘এটা একটা বিশ্বকাপ, যেখানে শীর্ষ স্থানীয় দশটি দল অংশ নিচ্ছে এবং আমি মনে অংশগ্রহণকারী সব দলের সঙ্গে সমান আচরণ করতে হবে।’
শ্রীলঙ্কা দল বহনকারী বাসের সমালোচনা করে ডি মেল বলেন, এটি অন্য দলগুলোকে দেয়া দোতলা বাসগুলোর চেয়ে বেশি চাপা।

তিনি কার্ডিফের নেট সুবিধাকে ‘অসন্তোসজনক’ এবং দল থাকার জন্য ব্রিস্টলে হোটেলে সুইমিং সুবিধা না থাকার সমালোচনা করেছিলেন।


আরো সংবাদ

gebze evden eve nakliyat instagram takipçi hilesi