২০ জুন ২০১৯

সেঞ্চুরি করল পাকিস্তান

১৮.৩ ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে এক শ’ রান পূর্ণ করেছে পাকিস্তান। ইমাম উল হক (৩৯) ও মোহাম্মদ হাফিজ (৩৩) রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

এর আগে ব্যাট করে পাকিস্তানকে ৩০৮ রানের লক্ষ্য দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরি (১০৭) ও অ্যারন ফিঞ্চের (৮২) রানের ওপর ভর করে ৪৯ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ৩০৭ রান সংগ্রহ করে অজিরা।

টন্টনের কাউন্টি গ্রাউন্ডে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় ম্যাচটি মুরু হয়। টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। বিশ্বকাপে দু’দলের চতুর্থ ম্যাচ এটি।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ছিল অজিদের দুর্দান্ত। ওপেনিং জুটিতে ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চ মিলে তোলেন ২২ ওভারে ১৪৬ রান। তখন খেরায় চার শ’ রানের আভাস দিচ্ছিলো অজিরা। কিন্তু প্রথম দিকে ভালো সূচনা করলেও পরের ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় তা আর সম্ভব হয়নি। নিজের দ্বিতীয় স্পেল ও খেলার ২৩তম ওভার করতে এসে প্রথম বলেই মোহাম্মদ হাফেজের ক্যাচ বানিয়ে ফিঞ্চকে তুলে নেন মোহাম্মদ আমির। ফিঞ্চের ব্যাট থেকে আসে ৮৪ বলে ৮২ রান। ওয়ানডাউনে ব্যাট করতে নেমে স্টিভেন স্মিথকে ব্যক্তিগত ১০ রানে ফেরান অপস্পিনার মোহাম্মদ হাফিজ। তখন দলের রান ২৮.৪ ওভারে ১৮৯ রান। তখনও রানের চাকা সচল ছিলো। ঝড় তোলার জন্য নির্দিষ্ট পজিশন থেকে আগে ব্যাট করতে নামানো হয় গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে। ঝড় তোলার আভাস দিয়েই শুরু করেন ম্যাক্সওয়েল। কিন্তু ১০ বলে ২০ রান বিশ্বকাপে শাহীন আফ্রিদির প্রথম শিকার হয়ে ফেরেন ম্যাক্সি। তবে একপ্রান্ত আগলে ধরে খেলেতে থাকা ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার তুলে নেন বিশ্বকাপের প্রথম সেঞ্চুরি। ১১১ বলে ১০৭ রান করে শাহীন আফ্রিদির বলে ইমাম উল হকের তালুবন্দি হয়ে ফেরেন তিনি। শেষদিকে শন মার্শের ২৩, ওসমান খাজার ২০ ও অ্যালেক্স কেরির ২০ রানের সুবাধে সবকটি উইকেট হারিয়ে ৩০৭ রান করতে সক্ষম হয় অজিরা।

পাকিস্তানী বোলারদের মধ্যে মোহাম্মদ আমির ৫টি, শাহীন আফ্রিদি ২টি, ওয়াহাব রিয়াজ, হাসান আলি ও মোহাম্মদ হাফিজ একটি করে উইকেট শিকার করেন্


আরো সংবাদ