১৮ জুন ২০১৯

শনিবার মুখোমুখি হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড

দ্বাদশ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে আগামীকাল মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। প্রস্তুতি ম্যাচে নিজেদের ভালোভাবে ঝালিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে সাউদাম্পটনের রোজ বোলে আগামীকাল বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় মুখোমুখি হবে দল দ’ুটি।

দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছে ইংল্যান্ড। বর্তমানে ওয়ানডে ক্রিকেটের এক নম্বর দল তারা। গেল সপ্তাহে নিজেদের মাটিতে পাকিস্তানকে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে নাস্তানাবুদ করেছে ইংলিশরা। ৪-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় ইয়োইন মরগানের দল। পুরো সিরিজেই পাকিস্তানের উপর আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে তারা। এমনকি গেল তিন বছর যাবত ওয়ানডে ক্রিকেটে অন্যতম সেরা সাফল্যই পেয়ে যাচ্ছে ইংল্যান্ড।

তাই এবার দেশের মাটিতে নিজেদের কন্ডিশনে আসন্ন বিশ্বকাপে নিজেদের সেরাটা দিতে উদগ্রীব হয়ে আছে ইংল্যান্ড। এমনটাই বলেন ইংলিশ অধিনায়ক মরগান, ‘বিশ্বকাপে আমরা ভালো পারফরমেন্স করতে চাই। আমাদের এবারের দলটি অনেক বেশি ভারসাম্যপূর্ণ। এই দলটিই গেল তিন বছর ধরে এক সাথে খেলছে। খুব বেশি পরিবর্তন হয়নি। তাই আমাদের বোঝাপড়াও খুব বেশি। মূল লড়াইয়ে নামার আগে দু’টি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ। খুবই গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচ দু’টি। নিজেদের আরও ভালোভাবে ঝালিয়ে নেয়ার সুযোগ পাবে সবাই। আমরাও এই সুযোগ কাজে লাগাতে চাই।’

২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ওয়ানডে ফরম্যাটে সাফল্য পায় অস্ট্রেলিয়া। এরপর দীর্ঘ দিন কোন দ্বিপক্ষীয় সিরিজ ও টুর্নামেন্টে জয়ের স্বাদ পায়নি অসিরা। কিন্তু বিশ্বকাপের আগ মূর্হুতে হঠাৎ করেই ঘুড়ে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়া। অ্যারন ফিঞ্চের অধীনে সেরা ক্রিকেট প্রদর্শনে ব্যস্ত তারা। ভারতের মাটিতে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে পড়েও শেষ তিন ম্যাচ জিতে সিরিজ নিজেদেরে করে নিয়েছে অসিরা।

এরপর সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে অস্ট্রেলিয়া। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৫-০ ব্যবধানে জিতে নেয় অসিরা। শেষ দু’টি দ্বিপক্ষীয় সিরিজের পারফরমেন্সে নিজেদের আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। এছাড়া বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারীর দায়ে নিষিদ্ধাদেশ কাটিয়ে দলের ফিরেছেন দুই তারকা খেলোয়াড় স্টিভ স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। তাই আসন্ন বিশ্বকাপে শিরোপা ধরে রাখতে বদ্ধ পরিকর বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

তাই প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে ভালো করতে চান অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ফিঞ্চ, ‘বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দু’টি ম্যাচ দিয়ে নিজেদের অবস্থা ভালোভাবে বুঝতে পারা যায়। প্রস্তুতিমূলক হলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি আমাদের জন্য বড় পরীক্ষা। দল নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জয়ের লক্ষ্য থাকবে আমাদের।’

ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ ২৭ মে। লন্ডনে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে তারা। একই দিন শ্রীলংকার বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলবে অস্ট্রেলিয়া।


আরো সংবাদ

আফগানদের পঞ্ম হারের ‘স্বাদ’ দিলো ইংলিশরা সাকিবকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় অস্ট্রেলিয়া আমরা সেমিফাইনাল খেলতে চাই : সাকিব ৮ দিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে মারা গেলেন মেধাবী ছাত্র রাজু মোবাইল চার্জ দিতে গিয়ে নারীর মর্মান্তিক মৃত্যু রোহিঙ্গাদের রক্ষায় পদ্ধতিগতভাবে ব্যর্থ হয়েছে জাতিসঙ্ঘ : পর্যালোচনা প্রতিবেদন গাজীপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী জয়ী, স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভোট বর্জন সাইফউদ্দিন-মোস্তাফিজে ভারতকে পিছনে ফেলল বাংলাদেশ ভোটার শূন্য কেন্দ্রে জালভোটের মহোৎসব ঘাপটি মেরে বসে থাকলেও তাদের ষড়যন্ত্র থেমে নেই : নাসিম ওয়ানডে ক্রিকেটে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন মরগান

সকল