২৪ জানুয়ারি ২০১৯

এবার সুপার ওভারে হারল খুলনা

-

বিপিএলে শনিবার দিনের প্রথম ম্যাচে অনেক নাটকীয়তার পরও জয়ের খাতা খুলতে পারলনা খুলনা টাইটান্স। টাই হওয়া ম্যাচে সুপার ওভারে তারা ১ রানে হেরে গেছে চিটাগং কিংসের কাছে। টুর্নামেন্টে তাই এখনো পর্যন্ত জয়শূন্যই রইল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

খুলনার করা ১৫১ রান টপকাতে নেমে চিটাগং কিংসও থামে ঠিক ১৫১ রানে। মিডল অর্ডারে ইয়াসির আলী(৪১) ও মুশফিকুর রহীমের(৩৪) জয়ের পথেই ছিল দলটি। এই দুজন আউট হলে বিপদে পড়ে কিংসরা। তবে রবি ফ্রাইলিঙ্ক হাল ছাড়েননি, তাকে সঙ্গ দিয়েছেন তরুণ নাইম হাসান।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৯ রানের কঠিন টার্গেট ছিলো চট্টগ্রামের সামনে। প্রথম বল ডট দিয়ে, দ্বিতীয় বলে ছ্ক্কা হাকান নাইম, তবের পরের বলেই আউট। ফ্রাইলিঙ্ক স্ট্রাইক নিয়ে পরপর দুই বলে দুটি ছক্কা মেরে দলকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে আসেন। শেষ বলে দরকার ছিলো ১ রান। কিন্তু আরিফুলের স্লোয়ার ডেলিভারি ব্যাটে লাগাতে পারেননি ফ্রাইলিঙ্ক, রান আউট হয়ে যান নন স্ট্রাইকের নতুন ব্যাটসম্যান সানজামুল। ম্যাচ হয় টাই।

সুপার ওভারে খুলনার পাকিস্তানি পেসার জুনাইদ খানের ছয় বলে ১ উইকেট হারিয়ে ১১ রান নেয় চিটাগং। জবাবে ফ্রাইলিঙ্কের ছয় বলে ২ উইকেট হারিয়ে খুলনা নিতে পেরেছে ১০ রান। ১ রানে ম্যাচ হেরেছে তারা।

এর আগে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় চিটাগং ভাইকিংস। পরিবর্তীত সময়ে দুপুর সাড়ে ১২টার বদলে আড়াইটায় ম্যাচটি শুরু হয়। ব্যাট করতে নেমে শুভ সূচনা হয়েছিল খুলনার। কিন্তু দলীয় ৩১ রানে নাঈমের বলে সাজঘরে ফিরেন ওপেনার পল স্টারলিং (১৮)। দুই ওভার পরেই ফ্রাইলিংকের শিকার হন অপর ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকি (২০)।

এরপর ডুয়াইন মালান ও মাহমুদুল্লাহ শক্ত জুটি গড়েন। কিন্তু দলীয় ১১৮ রানে সাজঘরে ফিরেন মালান। এরপর উইকেটের ধারাবাহিক পতনে ৬ উইকেটে ১৫১ রানে শেষ হয় খুলনার ইনিংস। অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ চার বাউন্ডারিতে ৩১ বলে ৩৩ রান করেন।


আরো সংবাদ