২৪ জানুয়ারি ২০১৯

ভারতীয় মহিলাদের নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য : ফেঁসে যাচ্ছেন হার্দিক-রাহুল!

র্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুল - সংগৃহীত

একটি টি ভি শোয়ে মহিলাদের সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করে বিপাকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের দুই সদস্য হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুল। গতকাল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআইয়ের শো-কজ পাওয়ার পরেই ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন হার্দিক। তবে তাতে চিঁড়ে ভেজেনি। সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত বোর্ডের প্রশাসক কমিটির চেয়ারম্যান বিনোদ রাই দুই ক্রিকেটারকে দু’টি ম্যাচ সাসপেন্ড করার জন্য প্রস্তাব দিয়েছেন। তবে প্রশাসক কমিটির অন্য সদস্য ডায়না এডুলজি বিষয়টিকে বোর্ডের আইনি সেলের কাছে পাঠিয়েছেন।

ওই টি ভি শোয়ে হার্দিক পান্ডিয়া ভারতীয় মহিলাদের প্রসঙ্গে নানা রকম মন্তব্য করেন। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। বিষয়টিকে মোটেও ভালো চোখে নেয়নি বিসিসিআই। বোর্ডের এক শীর্ষ কর্তা জানিয়েছেন, মহিলাদের প্রসঙ্গে এরকম মন্তব্য কোনোভাবেই সমর্থন যোগ্য নয়। ভারতীয় ক্রিকেটের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। কড়া পদক্ষেপ না নিলে বিসিসিআইয়ের প্রতি দেশের মানুষের আস্থা নষ্ট হবে।
প্রশাসক কমিটির প্রধান বিনোদ রাই জানিয়েছেন, ‘হার্দিকের ব্যখায় আমি সন্তুষ্ট নই। আমি সব দিক বিবেচনা করে দুই ক্রিকেটারকে দুই ম্যাচ করে সাসপেন্ড করার পরামর্শ দিয়েছি। ডায়না সায় দিলে এই ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

কিন্তু ডায়না এডুলজির সঙ্গে এখন বিনোদ রাইয়ের সম্পর্ক ভালো নয়। ভারতীয় মহিলা দলের কোচ নিয়োগ এবং রাহুল জহুরিকে নিয়ে দু’জনের দূরত্ব বেড়েছে। আর হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুলের ব্যাপারে তাই বিনোদ রাইকে সরাসরি সমর্থন করতে চাইছেন না এডুলজি। তিনি বিসিসিআইয়ের অস্থায়ী সভাপতি সি কে খান্না, অস্থায়ী সচিব অমিতাভ চৌধুরি এবং কোষাধ্যক্ষ অনিরুদ্ধ চৌধুরির মতামত চেয়েছেন। এডুলজির পাশে দাঁড়িয়ে অনিরুদ্ধ চৌধুরি বলেছেন, ‘তদন্ত করে ক্রিকেটারদের শাস্তি দেয়া হোক। শাস্তি শেষ হলে তবেই অভিযুক্ত ক্রিকেটাররা দলে যোগ দিতে পারবে।’

হার্দিক দু’ম্যাচ সাসপেন্ড হলে ভারতীয় দল কিছুটা হলেও সমস্যায় পড়বে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজে হার্দিকের কামব্যাক করার সুযোগ ছিল। কিন্তু তিনি দু’টো ম্যাচ খেলতে না পারলে একজন দক্ষ পেস অলরাউন্ডারকে ছাড়াই বিরাট কোহলিদের মাঠে নামতে হবে।


আরো সংবাদ