২০ এপ্রিল ২০১৯

হেরাথের বিদায়ী টেস্টে বড় ব্যবধানে হারল শ্রীলংকা

রঙ্গনা হেরাথকে বিদায় সংবর্ধনা সতীর্থদের -

শুক্রবার শেষ হওয়া গল টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় দিলেন শ্রীলংকার বাঁ-হাতি স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ। তবে হেরাথের বিদায়টা জয় দিয়ে রাঙ্গাতে পারেনি শ্রীলংকা। সিরিজের প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডের কাছে ২১১ রানের বড় ব্যবধানে হারলো লংকানরা।

টেস্ট ক্রিকেটে শ্রীলংকার বিপক্ষে এটিই সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয় ইংলিশদের। এছাড়া সাড়ে ছয় বছর পর শ্রীলংকার মাটিতে টেস্ট জয়ের স্বাদও নিলো ইংল্যান্ড। অবশ্য ২০১২ সালের পর শ্রীলংকার মাটিতে কোন টেস্টই খেলেনি ইংল্যান্ড।

গল টেস্ট জয়ের জন্য তৃতীয় দিন শেষে শ্রীলংকাকে ৪৬২ রানের বিশাল টার্গেট দেয় ইংল্যান্ড। জবাবে তৃতীয় দিন শেষে বিনা উইকেটে ১৫ রান করে শ্রীলংকা। তাই ম্যাচের বাকী দু’দিনে জয়ের জন্য শ্রীলংকার প্রয়োজন পড়ে আরও ৪৪৭ রান। ইংল্যান্ডের দরকার ১০ ছিলো উইকেট। দুই ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ৭ ও কুশাল সিলভা ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন।

চতুর্থ দিন সকাল থেকে বেশ সর্তকতার সাথে খেলতে থাকেন শ্রীলংকার দুই ওপেনার করুনারত্নে ও সিলভা। ফলে শ্রীলংকার স্কোর অর্ধশতকে পৌঁছে যায়। এরপরই শ্রীলংকার উদ্বোধনী জুটিতে ভাঙ্গন ধরান বাঁ-হাতি স্পিনার জ্যাক লিচ। ৩০ রান করা সিলভাকে সাজ ঘরে পাঠান লিচ।
কিছুক্ষণ বাদে প্যাভিলিয়নে ফিরেন করুনারত্নেও। প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের সফল বোলার অফ-স্পিনার মঈন আলীর শিকার হন ২৬ রান করা করুনারত্নে।

দুই ওপেনারের মত তিন নম্বরে নেমে বড় ইংনিস খেলতে ব্যর্থ হন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। ২১ রান করে ইংল্যান্ডের মিডিয়াম পেসার বেন স্টোকসের বলে আউট ডি সিলভা। এরপর বড় ইনিংস খেলার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন কুশল মেন্ডিস ও সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ; কিন্তু বেশি দূর যেতে পারেননি তারা। মেন্ডিস ৪৫ ও ম্যাথুজ ৫৩ রান করেন।

মেন্ডিস ও ম্যাথুজের বিদায়ের পর আর কোন ব্যাটসম্যানই বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ২৫০ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলংকা। সেই সাথে বড় ব্যবধানে হার নিশ্চিত হয়ে যায় স্বাগতিকদের।

ইংল্যান্ডের পক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে মঈন ৪টি ও লিচ ৩টি উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক বেন ফোকস। অভিষেক ম্যাচ খেলতে নেমে দুই ইনিংসে ১০৭ ও ৩৭ রান করেন ফোকস।

ক্যান্ডিতে আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।
ক্যারিয়ারের শেষ টেস্টটা ভালো কাটেনি শ্রীলঙ্কাকে অনেক বিজয় এনে দেয়া রঙ্গনা হেরাথের। দুই ইনিংস মিলে নিজে নিয়েছেন মাত্র ৩ উইকেট, দল হেরেছে বড় ব্যবধানে। মূলত টেস্ট বোলার হিসেবেই খ্যাত ছিলেন এই বর্ষীয়ান। পুরো ক্যারিয়ারে ৯৩ টেস্ট খেলে নিয়েছেন ৪৩৩ উইকেট, ৭১ ওয়ানডেতে উইকেট ৭৪টি

সংক্ষিপ্ত স্কোর কার্ড :
ইংল্যান্ড : ৩৪২ ও ৩২২/৬ডি
শ্রীলংকা : ২০৩ ও ২৫০
ফল : ইংল্যান্ড ২১১ রানে জয়ী।
সিরিজ : তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড।
ম্যাচ সেরা : বেন ফোকস (ইংল্যান্ড)।


আরো সংবাদ




iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

Bursa evden eve nakliyat
arsa fiyatları tesettür giyim
Canlı Radyo Dinle hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al