১৮ ডিসেম্বর ২০১৮

মাহমুদউল্লার নেতৃত্ব নিয়ে যা বললেন পাপন

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। - ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ইনজুরিতে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্বভার মাহমুদউল্লাহর কাঁধে ওঠাটাই স্বাভাবিক হবে বলে মনে করেন বিসিবিপ্রধান নাজমুল হাসান পাপন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকা ক্লাবে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান।

পাপন আরো বলেন, ‘জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ জিতলেই, শেষ ম্যাচে সুযোগ দেওয়া যেতে পারে নতুন ক্রিকেটারদের।’ বিশ্বকাপের জন্য সাকিবকে ঝুঁকিমুক্ত রাখতে ফ্রেঞ্চাইজি লিগে তার খেলার কোনো কারণ দেখেন না পাপন।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘সাকিব ক্যাপ্টেন। এখানে ভাইস ক্যাপ্টেন মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ। এখন ন্যাচারালি ক্যাপ্টেন যদি না থাকে অবশ্যই ভাইস ক্যাপ্টেন ক্যাপ্টেনসি করবে, দিস ইজ নরমাল।’

বিসিবি সভাপতি আরো বলেন, ‘আমার মনে হয় যেহেতু রিয়াদ ভাইস ক্যাপ্টেন আছে, রিয়াদ শুড কন্টিনিউ অ্যাস ক্যাপ্টেন। যত দিন না পর্যন্ত সাকিব সুস্থ হয়ে আসে।’

সন্ধ্যায় জাতীয় দলের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। যেখানে নতুন মুখ ব্যাটিং অলরাউন্ডার ফজলে রাব্বী। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ছেঁটে ফেলা হয়েছে মুমিনুল ও মোসাদ্দেককে। ইনজুরির জন্য তামিম ও সাকিবের না খেলার বিষয়টি নিশ্চিতই ছিল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটি হবে আগামী ২১ অক্টোবর মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে।

 

আরো পড়ুন: বিসিবি’র ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা; আসছে নতুন মুখ
বাসস, ১১ অক্টোবর ২০১৮

 



জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আসন্ন তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের জন্য ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষনা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। দলে একমাত্র নতুন মুখ ফজলে রাব্বি।

এই প্রথমবারের মত জাতীয় দলে ডাক পেলেন ব্যাটিং অলরাউন্ডার রাব্বি। প্রথম শ্রেনির ক্রিকেটে ৬৮ ম্যাচে ৭টি সেঞ্চুরি ও ১৭টি হাফ-সেঞ্চুরি করেন তিনি। বল হাতে ২৮ উইকেট পকেটে ভরেছেন রাব্বি। লিষ্ট ‘এ’ ফরম্যাটে ৮০ ম্যাচে ৪টি সেঞ্চুরি ও ১২টি হাফ-সেঞ্চুরিতে ২২০০ রান করেছেন ৩০ বছর বয়সী রাব্বি। বল হাতে ২৭ উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

এছাড়া দলে ফিরেছেন সাইফ উদ্দিন। সর্বশেষ ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশের জার্সি গায়ে ওয়ানডে খেলেছিলেন তিনি। এরপর দল থেকে বাদ পড়ে যান সাইফ। তবে চলতি বছরই আবারো দলে ফিরলেন ৩ ম্যাচ খেলা এই অলরাউন্ডার। ৩ ম্যাচে ব্যাট হাতে ৩০ রান ও ১ উইকেট রয়েছে সাইফের।

দলে নিজেদের জায়গা ধরে রেখেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত, আরিফুল হক ও আবু হায়দার রনি। তিন’জনই এশিয়া কাপের স্কোয়াডে ছিলেন। তবে এশিয়া কাপে শান্ত-রনির অভিষেক হলেও, জাতীয় দলের জার্সি গায়ে মাঠে নামা হয়নি আরিফুলের। অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন সদ্যই জাতীয় লিগে ২৩১ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলা আরিফুল।

এশিয়া কাপের তিন ম্যাচে যথাক্রমে ৭, ৭ ও ৬ রান করেন শান্ত। তবে জাতীয় লিগে ব্যাট হাতে উজ্জল ছিলেন শান্ত। দুই ইনিংসে ৪৬ ও ১৭৩ রান করেন শান্ত।

এশিয়া কাপে অভিষেক হবার পর আর কোন ম্যাচ খেলতে পারেননি রনি। আবু ধাবিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ঐ ম্যাচে ৫০ রানে ২ উইকেট নেন রনি। জাতীয় লিগে একটি ম্যাচ খেলে ২ উইকেট শিকার করেছেন তিনি।

তবে দলের দুই সেরা তারকা সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালকে ছাড়াই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে হবে বাংলাদেশকে।

আগামী ২১ অক্টোবর থেকে মিরপুরে শুরু হবে ওয়ানডে সিরিজ। এরপর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে পরের দু’টি ওয়ানডে হবে যথাক্রমে ২৪ ও ২৬ অক্টোবর।

বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, ইমরুল কায়েস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিথুন, মাহমুদুল্লাহ, আরিফুল হক, মেহেদি হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, নাজমুল ইসলাম অপু, রুবেল হোসেন, আবু হায়দার রনি, সাইফ উদ্দিন ও ফজলে রাব্বি।

 

আরো দেখুন : জিম্বাবুয়ের সফর : কী ধরনের পরিবর্তন হবে দলে?

বিবিসি

বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে ২১ অক্টোবর থেকে একটি সিরিজ খেলবে। যেখানে তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে দলটি। বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার ইনজুরিতে ভুগছেন। যাদের মধ্যে সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের মতো বড় ক্রিকেটারের নাম রয়েছে।


এশিয়া কাপের পর শোনা যাচ্ছিলো যে অনেকটা আনকোরা একটি দল দেয়া হতে পারে এবারের সিরিজে।

তবে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলছেন, এখানে সব কিছু মিলিয়ে সেরা দলটি নামানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। কারণ র‍্যাঙ্কিংয়ের ব্যাপার থাকে।

সেক্ষেত্রে ফর্মে থাকা ক্রিকেটারদের রাখা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লিটন দাস চার দিনের একটি ক্রিকেট ম্যাচে ১৪২ বলে ২০৩ রানের একটি ইনিংস খেলেছেন।

মারকুটে এই ইনিংসে ৩২ টি চার ও ৪ টি ছক্কা হাকিয়েচেন তিনি। রাজশাহীতে রংপুর ও রাজশাহীর মধ্যকার ম্যাচে রংপুরের হয়ে এই ইনিংস খেলেন লিটন।

তবু কতটা শক্তিশালী দল গঠন করা সম্ভব?

"যেহেতু দুজন খেলোয়াড় এখন পুরোপুরি ইনজুরিতে আছেন, সে হিসেবে দল সাজানো হচ্ছে, তবে টেস্ট খেলুড়ে দল হিসেবে আমাদের এখন খেলোয়াড় আছে, ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে ভালো ক্রিকেটারদেরই নেয়া হবে," বলছিলেন নান্নু।

তবে কিছু নতুন খেলোয়াড় নেয়ার কথাও বলেছেন প্রধান নির্বাচক।

মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, "চূড়ান্ত ঘোষণা না আসা পর্যন্ত নাম বলা যাবে না, তবে কিছু তো নতুন মুখ থাকবেই, তিনটি ম্যাচ রয়েছে, তিনটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ।"

সেক্ষেত্রে মিজানুর রহমান ও শাদমান ইসলামের মতো নামগুলো আসতে পারে স্কোয়াডে।

দল ঘোষণার বিষয়ে আরো কিছু বিষয় মাথায় রাখছে নির্বাচক প্যানেল।

নান্নু বলেন, যেহেতু প্রথম শ্রেণির খেলা চলছে, এজন্য একটু আগেভাগে স্কোয়াড দেয়া হবে। কারণ জাতীয় লিগের অন্যান্য দলগুলোতে প্রভাব না পড়ে। সেক্ষেত্রে ওয়ানডে দলের জন্য ১৩ জনকে রেখে দুজনকে ছেড়ে দেয়া হতে পারে।

এশিয়া কাপের দল থেকে বেশ কিছু পরিবর্তন হওয়ার কথা বলেছেন মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

তবে সেটা প্রথম শ্রেনির ক্রিকেট থেকে পর্যবেক্ষণ করা হবে না বলে জানিয়েছেন নান্নু। তিনি বলেন, "ফোর ডে ম্যাচের সাথে ওয়ানডের পার্থক্য রয়েছে, তাই এখানে ভালো পারফর্ম করলেই যে নেয়া হবে ব্যাপারটা এমন নয়।"


আরো সংবাদ