২১ নভেম্বর ২০১৮

যে কারণে এশিয়া কাপে সেরা ব্যাটসম্যান হতে পারেন তামিম

তামিম ইকবাল - সংগৃহীত

এশিয়া কাপের ১৪তম আসরের পর্দা উঠছে আগামী শনিবার। উদ্বোধনী দিনেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিতব্য এই টুর্নামেন্টে ব্যাট-বলের দুর্দান্ত লড়াই দেখা যাবে। অনেকের মতে, এবারে আসরের সেরা ব্যাটসম্যান হওয়ায় যথেষ্ট সুযোগ আছে বাংলাদেশের ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবালের।

কারণগুলো এক নজরে দেখে নেয়া যাক-

১. বাংলাদেশের সব ধরনের ক্রিকেটে প্রশ্নাতিতভাবে সেরা ব্যাটসম্যান তামিম। সব ধরনের ক্রিকেটে সর্বাধিক রান সংগ্রহকারী তামিম মাঝে কিছু দিন ইনজুরির জন্য মাঠের বাইরে ছিলেন। তবে খুশির খবর হলো, তিনি এখন সম্পূর্ণ ফিট। এশিয়া কাপে মাঠে নামবেন। নিঃসন্দেহে তার কাছ থেকে চমকের অপেক্ষায় থাকবেন ক্রিকেটপ্রেমীরা।

২. সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলার তেমন অভিজ্ঞতা নেই বাংলাদেশের বর্তমান দলটির। দুবাই-আবু ধাবির পিচ কী রকম আচরণ করবে তা জানা না থাকাটা দলের পক্ষে বড় সমস্যার। আর ঠিক এখানেই অন্যদের পিছনে ফেলে দিয়েছেন তামিম। যে কয়েকজন বাংলাদেশী ক্রিকেটারের এখানে খেলার অভিজ্ঞতা আছে, তাদের মধ্যে তামিম অন্যতম। পিএসএল-এ খেলার সুবাদে সেখানকার পিচ তামিমের খুবই পরিচিত।

৩. বর্তমানে অসাধারণ ফর্মে রয়েছেন তামিম। শেষ এক বছরে এশিয়ার অন্যতম সেরা এক দিনের ব্যাটসম্যান তিনি। এই সময় নয়টি ম্যাচ খেলেছেন। করেছেন ৮০.২৮ গড়ে ৫৬২ রান।

৪. ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে শেষ সিরিজেও দারুণ পারফরমেন্স ছিল তামিমের। এই ফর্ম এশিয়া কাপে ধরে রাখতে পারলে বিপক্ষের কাছে বড়সড় মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠবেন এই হার্ডহিটার।

 

আরো পড়ুন : বাংলাদেশের খেলা দিয়ে এশিয়া কাপের শুরু

২০১৮ এশিয়া কাপ ক্রিকেটের সময়সূচি ঘোষণা করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। চলতি বছর এশিয়া কাপ ভারতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও নয়া দিল্লি ও ইসলামাবাদের মধ্যকার চলমান শীতল সম্পর্কের কারণে সংযুক্ত আরব আমিরাতকেই ভেন্যু হিসেবে বেছে নিয়েছে আইসিসি। ২০০৮ সালে মুম্বাই আক্রমণের পর থেকে ভারত পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে অস্বীকৃতি জানায়। কিন্তু বিভিন্ন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে দুই দল ঠিকই একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছে। গত বছরও ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে এই দুই দেশ মোকাবেলা করেছিল।

আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা বনাম বাংলাদেশের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে এশিয়া কাপের পর্দা উঠবে।

ছয়টি দল এই প্রথমবারের মত দুটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে এশিয়া কাপে অংশ নিচ্ছে। গ্রুপ-এ’তে আছে ভারত, পাকিস্তান ও বাছাইপর্ব থেকে উঠে আসা দল এবং গ্রুপ-বি’তে আছে শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। প্রতি গ্রুপের শীর্ষ দুটি দল নিয়ে সুপার ফোর অনুষ্ঠিত হবে। সুপার ফোরের শীর্ষ দুটি দল ২৮ সেপ্টেম্বর দুবাইয়ে ফাইনালে মুখোমুখি হবে।

আগামী ২৯ আগস্ট থেকে ৬ সেপ্টেম্বর বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হবে। বাছাইপর্বে অংশ নেয়া ছয়টি দল হলো সিঙ্গাপুর, হংকং, মালয়েশিয়া, নেপাল, ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।

২০১৬ সালে টি-২০ ফর্মেটে টুর্ণামেন্টটি অনুষ্ঠিত হলেও এবার আবারো প্রথাগত ৫০ ওভারের ফর্মেট ফিরে এসেছে। সর্বশেষ দুই বছর আগে এশিয়া কাপে শিরোপা জিতেছিল ভারত।

এশিয়া কাপের পুরো সূচি :
১৫ সেপ্টেম্বর : বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা (দুবাই)
১৬ সেপ্টেম্বর : পাকিস্তান বনাম বাছাইপর্বের দল (দুবাই)
১৭ সেপ্টেম্বর : শ্রীলঙ্কা বনাম আফগানিস্তান (আবু ধাবী)
১৮ সেপ্টেম্বর : ভারত বনাম বাছাইপর্বের দল (দুবাই)
১৯ সেপ্টেম্বর : ভারত বনাম পাকিস্তান (দুবাই)
২০ সেপ্টেম্বর : বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান (আবু ধাবী)

সুপার ফোর :
২১ সেপ্টেম্বর : গ্রুপ-এ চ্যাম্পিয়ন বনাম গ্রুপ-বি রানার্স-আপ (দুবাই)
২১ সেপ্টেম্বর : গ্রুপ-বি চ্যাম্পিয়ন বনাম গ্রুপ-এ রানার্স-আপ (আবু ধাবী)
২৩ সেপ্টেম্বর : গ্রুপ-এ চ্যাম্পিয়ন বনাম গ্রুপ-এ রানার্স-আপ (দুবাই)
২৩ সেপ্টেম্বর : গ্রুপ-বি চ্যাম্পিয়ন বনাম গ্রুপ-বি রানার্স-আপ (আবু ধাবী)
২৫ সেপ্টেম্বর : গ্রুপ-এ চ্যাম্পিয়ন বমান গ্রুপ-বি চ্যাম্পিয়ন (দুবাই)
২৬ সেপ্টেম্বর : গ্রুপ-এ রানার্স-আপ বনাম গ্রুপ গ্রুপ-বি রানার্স-আপ (আবু ধাবী)
২৮ সেপ্টেম্বর : ফাইনাল (দুবাই)

(২৫ জুলাই ২০১৮, প্রকাশিত সংবাদ)


আরো সংবাদ