১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলে মুমিনুল

মুমিনুল হক। ছবি - সংগৃহীত

আসন্ন এশিয়া কাপে ব্যাটসম্যান মুমিনুল হককে বাংলাদেশ দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের ইনজুরি সমস্যা থাকায় তাকে এশিয়া কাপের দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে আজ নির্বাচকরা জানিয়েছেন।

নির্বাচক প্যানেলের সদস্য হাবিবুল বাশার সুমন জানান, ‘মুমিনুল একজন টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যান, যে কিনা ওপেনার কিংবা ওয়ান ডাউনে খেলতে পারেন। সুতরাং তাকে দলে অন্তর্ভুক্ত করাটা এ টুর্নামেন্টে ভালো হবে বলে আমরা মনে করছি।’

ওপেনার তামিম ইকবালের হাতের আঙ্গুলে সমস্যা আছে। এ ছাড়া দলে জায়গা পাওয়া নতুন মুখ বাঁ-হাতি নাজমুল হক সম্প্রতি অনুশীলনে বাঁ-হাতের বুড়ো আঙ্গুলে আঘাত পেয়েছেন। সুমন আরো বলেন, ‘আমরা আশা করছি তারা দু’জনেই খেলবে। তবে আমরা মনে করছি তারা কোন সমস্যা বোধ করলে মুমিনুলকে খেলানো যাবে।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতে আগামী ১৫-২৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ছয়-জাতির এশিয়া কাপে বি’-গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলংকা এবং আফগানিস্তান।

বাংলাদেশ দলের বড় চিন্তা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ইনজুরি সমস্যা। তার হাতের আঙ্গুলে অস্ত্রোপচার করতে হবে। যে কারণে তিনি এশিয়া কাপ খেলতে কিছুটা অনাগ্রহী। কিন্তু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাকে এ টুর্নামেন্টে খেলাতে চায়। আগামী অক্টোবরে নিজ মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ পর্যন্ত তার আঙ্গুলে অস্ত্রোপচার স্থগিত রাখতে চায় ক্রিকেট বোর্ড।

সম্প্রতি একটি দৈনিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সাকিব বলেছেন, তিনি ২০-৩০ শতাংশ ফিট। তবে তারপরই দলের কোচ স্টিভ রোডস সাকিবের এমন দাবি অস্বীকার করেছেন।

রোডস গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘সে (সাকিব) ২০-৩০ শতাংশ ফিট আমি তা বিশ্বাস করি না। আমি মনে করছি সে তারচেয়ে অনেক বেশি ফিট।’ রোডস বলেন, ‘সে পুরোপুরি ফিট নয়। তবে তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যেভাবে খেলেছে সেভাবে খেললেও সেটা বাংলাদেশ দলের জন্য অনেক বড় কিছু হবে।’

গত জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তিন ম্যাচে ১৯০ রান করে ২-১ ব্যবধানে বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে সিরিজ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন সাকিব।

এদিকে মুমনিুল হকও স্পিন বোলিং করতে পারেন। বাঁ-হাতি এ স্পিনার ২০১৫ বিশ্বকাপে তার সর্বশেষ ২৬তম ওয়ানডে খেলেছেন।

সম্প্রতি বাংলাদেশ এ’ দলের হয়ে আয়ারল্যান্ড সফরে রেকর্ড এক ইনিংসে ১৩২ বলে ১৮২ রান করে নির্বাচকদের নজরে আসেন টেস্ট দলের নিয়মিত সদস্য মোমিনুল।

 

আরো দেখুন : সাকিবের এশিয়া কাপে খেলা নিয়ে সংশয়

আর কয়েক দিন পরেই সংযুক্ত আরব আমিরাতে এশিয়া কাপ। এই ট্রুনামেন্টে বাংলাদেশের তারকা খেলোয়াড় সাকিব আল হাসানের অংশগ্রহণ নিয়ে নতুন করে সংশয় সৃষ্টি হয়েছে। দিন দুয়েক আগে সাকিবের একটি ইংরেজি দৈনিকে দেয়া সাক্ষাতকার নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।ঐ সাক্ষাতকারে সাকিব বলেন তিনি মাত্র ২০-৩০ ভাগ ফিট। ফিটনেস নিয়ে করা এমন মন্তব্যে বিসিবি ‘বিব্রত’ বলে জানিয়েছেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস।

বোর্ডকে না জানিয়ে নিজের ফিটনেস নিয়ে মিডিয়াতে মন্তব্য করায় বিব্রত বোর্ড। জালাল ইউনুস বলেন, সাকিব তার ফিটনেসের ব্যাপারে আমাদেরকে অবগত করেনি। সে যেকোন সময় তা আমাদের জানাতে পারতো। সে খেলার জন্য ২০ থেকে ৩০ ভাগ ফিট এটা আমাদেরকে আগে জানালে ভালো হতো। অথবা বলতে পারত যে সে খেলতে পারবে না।


বাংলাদেশের কোচ স্টিভ রোডস মনে করেন, পুরোপুরি না হলেও ৬০-৭০ ভাগ সুস্থ সাকিব আল হাসান দলের জন্য প্রধান সম্পদ ও শক্তি। আসন্ন এশিয়া কাপ ক্রিকেটের আগে আজ মিরপুরে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে এমন কথা বলেন রোডস। সাকিবের দলে থাকাটা অনেক বড় কিছু বলে মন্তব্যও করেন তিনি। যেমনটা করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তিনি বলেন, ‘সাকিব থাকায় পুরো দলই অনেক উজ্জীবিত।’

আঙ্গুলের ইনজুরির জন্য এশিয়া কাপে সাকিবের থাকা, না থাকা নিয়ে আলোচনা ছিলো ব্যাপক। শেষ পর্যন্ত তাকে দলে রাখে বাংলাদেশ। বোর্ড প্রধান, দলের ফিজিও, চিকিৎসক ও নির্বাচকরা আলোচনার পর সাকিবের থাকা নিশ্চিত করেন।

সাকিবের থাকাটাই দলের জন্য চালিকা শক্তি বলেন মনে করেন কোচ রোডস, ‘আমি বিশ্বাস করি সাকিব পুরো শতভাগ ফিট নয়। এও সত্যি যে ৬০-৭০ ভাগ সুস্থ সে। সে যতটুকুই সুস্থ হোক না কেন, দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় সে। সাকিব দলের প্রধান সম্পদ ও শক্তি। দলের জন্য সে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একজন সদস্য।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের পর পবিত্র হজ পালন করে পরবর্তীতে পরিবারের সাথে দেখা করতে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান সাকিব। তাই এশিয়ার কাপের জন্য বাংলাদেশের অনুশীলন ক্যাম্পে যোগ দিতে পারেননি সাকিব। অনুশীলনে সাকিবের না থাকাটা দলের উপর কোন নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে রোডস বলেন, ‘সাকিব অনুশীলন করেনি। এটি কোন নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে না। ড্রেসিং রুমেও এ ব্যাপারে নেতিবাচক কোন আলোচনা নেই। পারফরমার সাকিব দলের সবার কাছে অনেক প্রিয়।’


আরো সংবাদ