১৫ নভেম্বর ২০১৮

সমর্থকদের আস্থা রাখতে বললেন ভারতীয় অধিনায়ক

সমর্থকদের আস্থা রাখতে বললেন ভারতীয় অধিনায়ক - সংগৃহীত

ইংল্যান্ডে টেস্ট সিরিজ মোটেও ভালো কাটছে না ভারতের। রানখরায় ভুগছেন ব্যাটসম্যানরা, তাই প্রথম দুই টেস্টেই হেরেছে ভারত। তবে ভক্তদের দলের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে না নিতে অনুরোধ করেছেন বিরাট কোহলি। ভারতীয় অধিনায়ক তার ফেসবুক পেজে একটি আবেগঘন পোস্টে এই অনুরোধ জানান।

ভারতকে লর্ডস টেস্টে ইনিংস এবং ১৫৯ রানে হারিয়ে ২-০ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজে এগিয়ে রয়েছে ইংল্যান্ড। পাঁচ ম্যাচ সিরিজে নিজেদের টিকিয়ে রাখতে হলে ১৮ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া নটিংহাম টেস্টে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হবে ভারতকে। অধিনায়ক বিরাট কোহলি তার ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘কখনো আমরা জয়লাভ করি, কখনো আমরা শিক্ষা নিই। আপনারা আমাদের ওপর আস্থা রাখুন। আমরা আস্থার প্রতিদান দেব। সেটা হোক পরাজয়  কিংবা জয়।’

দ্বিতীয় টেস্টে হারের পর সংবাদ সম্মেলনে কোহলি বলেছিলেন, ‘সিরিজে এগিয়ে যেতে হলে এই ম্যাচে আমাদের ভুলগুলো বুঝতে হবে এবং ঠিক করতে হবে। এ ছাড়া একজন পেশাদার খেলোয়াড়ের আর কোনো পথ নেই।’

পাশাপাশি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার নিষিদ্ধ খেলোয়াড় স্টিভ স্মিথের কাছে প্রথম স্থানও হারিয়েছেন কোহলি। সেই ম্যাচের ব্যর্থতা ভুলে যেতে চান কোহলি। তবে হেরে যাওয়ার পর একজন ব্যাটসম্যানের কৌশলগত সমস্যার চেয়ে মানসিক সমস্যার মুখোমুখি বেশি হতে হয় বলে মন্তব্য করেন তিনি। কোহলি বলেন, ‘কোনো কৌশলগত অসুবিধা আমার নজরে পড়েনি। একজন ব্যাটসম্যানের যদি নির্ভার থাকে এবং তাঁর পরিকল্পনার ব্যাপারে যদি সে নিজে সচেতন হয়, তবে পিচে যেকোনো বলই সে মোকাবিলা করতে পারবে।’

আরো পড়ুন : ভারতের লজ্জার হার নিয়ে সরফরাজের মন্তব্যে তোলপাড়
নয়া দিগন্ত অনলাইন (১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৬:৩২)
ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুটিতে শোচনীয়ভাবে হেরেছে ভারত। একমাত্র বিরাট ছাড়া কোনো ব্যাটসম্যানই ইংলিশদের সামনে দাড়াতে পারেনি। এই লজ্জার হারের পর পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বলেছেন, 'ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারতের চেয়ে পাকিস্তান ভালো পারফরম করেছে।'

সরফরাজের এই মন্তব্যের পর সামাজিক মাধ্যম টুইটারে বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। পাল্টা-পাল্টি মন্তব্য আসছে। ভারতীয় সমর্থকরা এই মন্তব্যে ক্ষুদ্ধ। অনেকে বলেছেন, 'পাকিস্তানের এই উইকেটরক্ষকের কাছ থেকে এমন মন্তব্য আশা করেননি তারা।'


একটি নিউজ চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সরফরাজ বলেন, 'আমি দুইবার ইংল্যান্ড সফরে গেছে। এবং দুইবারই পাকিস্তান দল ভালো পারফরম করেছে। আমার মনে হয়, আমাদের প্রস্তুতি ভালো ছিল। তাই আমাদের পারফরমেন্স ভারতের চেয়ে ভালো হয়েছে।'

তিনি বলেন, 'আমি যদি ২০১৬ সালে প্রথম ইংল্যান্ড সফরের কথা বলি, সেইবার আমরা সিরিজ শুরুর ২৫ দিন আগে সেখানে চলে গিয়েছিলাম। দশ দিনের একটা ক্যাম্প করি। সিরিজ শুরুর আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেছিলাম, যার ফলে আমাদের প্রস্তুতি ভালো হয়েছে এবং পারফরমেন্সও। আর যদি চলতি বছরের সফরের কথা বলি, তাহলে এবারও সিরিজের আগে আমরা তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। যার ফলাফল ভালো ছিল। আর যদি একজন অধিনায়ক হিসেবে বলতে হয়, বলব- ভারতের চেয়ে আমাদের দল ভালো পারফরমেন্স করেছে।'

উল্লেখ্য, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৬ ও ২০১৮ সালের দুটি টেস্ট সিরিজই ড্র করেছে পাকিস্তান।

-ইনউথ

আরো পড়ুন : ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হবে ভারত!

পাঁচ টেস্টের সিরিজের প্রথম দুটিতেই শোচনীয়ভাবে হেরেছে ভারত। দলের এই বেহাল অবস্থা দেখে আতঙ্কিত সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। আশঙ্কা করছেন, বাকি তিনটি ম্যাচেও হারবে ভারত। একটি টিভি চ্যানেলের টকশোতে এই আশঙ্কা প্রকাশ করেন গাঙ্গুলি।

তিনি বলেন, 'যদি এভাবেই তারা খেলতে থাকে তাহলে আমি নিশ্চিত ৫-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে যাবে। অথচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর আমরা সবাই ভেবেছিলাম এবারের টেস্ট সিরিজে ভালো করবে ভারত। এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজ জেতার পরেও ভেবেছিলাম ঘরের বাইরে বারবার হেরে যাওয়ার ধারা হয়তো শেষ হতে যাচ্ছে। কিন্তু লর্ডস টেস্টে লজ্জাজনক পারফরম্যান্সের পর খুবই খারাপ লাগছে।'

গাঙ্গুলি বলেন, 'এমন অনেক ক্রিকেটার আছে যারা নিজেদের পুরো ক্যারিয়ারেই লর্ডসে খেলার সুযোগ পায় না। সেখানে ভারতীয় ক্রিকেট দল ৮০ ওভারের মধ্যে দুইবার অলআউট হয়ে গেলো। হার-জিত খেলারই অংশ। কিন্তু মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তো থাকতে হবে। প্রথম দুই ম্যাচে ভারতের খেলায় আমি সেটার ছিটেফোঁটাও দেখিনি।'

 

 


আরো সংবাদ