১৫ নভেম্বর ২০১৮

ভারতের লজ্জার হার নিয়ে সরফরাজের মন্তব্যে তোলপাড়

ভারতের লজ্জার হার নিয়ে সরফরাজের মন্তব্যে তোলপাড় - সংগৃহীত

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুটিতে শোচনীয়ভাবে হেরেছে ভারত। একমাত্র বিরাট ছাড়া কোনো ব্যাটসম্যানই ইংলিশদের সামনে দাড়াতে পারেনি। এই লজ্জার হারের পর পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বলেছেন, 'ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারতের চেয়ে পাকিস্তান ভালো পারফরম করেছে।'

সরফরাজের এই মন্তব্যের পর সামাজিক মাধ্যম টুইটারে বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। পাল্টা-পাল্টি মন্তব্য আসছে। ভারতীয় সমর্থকরা এই মন্তব্যে ক্ষুদ্ধ। অনেকে বলেছেন, 'পাকিস্তানের এই উইকেটরক্ষকের কাছ থেকে এমন মন্তব্য আশা করেননি তারা।'

একটি নিউজ চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সরফরাজ বলেন, 'আমি দুইবার ইংল্যান্ড সফরে গেছে। এবং দুইবারই পাকিস্তান দল ভালো পারফরম করেছে। আমার মনে হয়, আমাদের প্রস্তুতি ভালো ছিল। তাই আমাদের পারফরমেন্স ভারতের চেয়ে ভালো হয়েছে।'

তিনি বলেন, 'আমি যদি ২০১৬ সালে প্রথম ইংল্যান্ড সফরের কথা বলি, সেইবার আমরা সিরিজ শুরুর ২৫ দিন আগে সেখানে চলে গিয়েছিলাম। দশ দিনের একটা ক্যাম্প করি। সিরিজ শুরুর আগে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেছিলাম, যার ফলে আমাদের প্রস্তুতি ভালো হয়েছে এবং পারফরমেন্সও। আর যদি চলতি বছরের সফরের কথা বলি, তাহলে এবারও সিরিজের আগে আমরা তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। যার ফলাফল ভালো ছিল। আর যদি একজন অধিনায়ক হিসেবে বলতে হয়, বলব- ভারতের চেয়ে আমাদের দল ভালো পারফরমেন্স করেছে।'

উল্লেখ্য, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৬ ও ২০১৮ সালের দুটি টেস্ট সিরিজই ড্র করেছে পাকিস্তান।

-ইনউথ

 

আরো পড়ুন : ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হবে ভারত!

পাঁচ টেস্টের সিরিজের প্রথম দুটিতেই শোচনীয়ভাবে হেরেছে ভারত। দলের এই বেহাল অবস্থা দেখে আতঙ্কিত সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। আশঙ্কা করছেন, বাকি তিনটি ম্যাচেও হারবে ভারত। একটি টিভি চ্যানেলের টকশোতে এই আশঙ্কা প্রকাশ করেন গাঙ্গুলি।

তিনি বলেন, 'যদি এভাবেই তারা খেলতে থাকে তাহলে আমি নিশ্চিত ৫-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরে যাবে। অথচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর আমরা সবাই ভেবেছিলাম এবারের টেস্ট সিরিজে ভালো করবে ভারত। এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজ জেতার পরেও ভেবেছিলাম ঘরের বাইরে বারবার হেরে যাওয়ার ধারা হয়তো শেষ হতে যাচ্ছে। কিন্তু লর্ডস টেস্টে লজ্জাজনক পারফরম্যান্সের পর খুবই খারাপ লাগছে।'

গাঙ্গুলি বলেন, 'এমন অনেক ক্রিকেটার আছে যারা নিজেদের পুরো ক্যারিয়ারেই লর্ডসে খেলার সুযোগ পায় না। সেখানে ভারতীয় ক্রিকেট দল ৮০ ওভারের মধ্যে দুইবার অলআউট হয়ে গেলো। হার-জিত খেলারই অংশ। কিন্তু মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তো থাকতে হবে। প্রথম দুই ম্যাচে ভারতের খেলায় আমি সেটার ছিটেফোঁটাও দেখিনি।'

 

আরো পড়ুন : ভক্তদের উদ্দেশে কোহলির আবেগঘন বার্তা

এজবাস্টনে প্রথম টেস্টে লড়াই করে হারলেও লর্ডসে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ব্রিটিশদের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। বৃষ্টিবিঘ্নিত টেস্টে মাত্র তিনদিনেই ভারতকে ধরাশায়ী করে ইংলিশরা। ইনিংস ও ১৫৯ রানে হেরে পাঁচ টেস্টের সিরিজে ০-২ এ পিছিয়ে পড়েছে আইসিসি'র এক নম্বর টেস্ট দল। বিরাটের অধিনায়কত্বে এই প্রথম ইনিংস হারের লজ্জায় ডুবেছে টিম ইন্ডিয়া। লর্ডসে এই লজ্জাজনক হারের পর টিম ইন্ডিয়ার সমালোচনায় মুখর হয়েছেন সাবেকরা। সমালোচনার ঝড় উঠেছে টুইটারেও।

শনিবার থেকে শুরু হতে চলা ট্রেন্ট ব্রিজ টেস্টে হারলেই সিরিজ শেষ হয়ে যাবে কোহলিদের। এতো খারাপ পরিস্থিতিতে এর আগে 
কখনও পড়েননি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভারতীয় দলের ব্যাটিং যখন শোচনীয় তখন কোহলির 'অজানা' ব্যাক পেইন ভারতীয় শিবিরে দুশ্চিন্তা বাড়িয়েছে। প্রথম একাদশ নির্বাচন থেকে পিচ রিডিং। অধিনায়ক কোহলির প্রায় সব সিদ্ধান্ত নিয়েই ব্যাপক সমালোচনা চলছে। হতাশার হারের পর টিম ইন্ডিয়ার উপর ক্ষুব্ধ দেশের ক্রিকেট ভক্তরা।

তাদের উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেগঘন বার্তা দিয়েছেন কোহলি। লিখেছেন, ''কখনও আমরা জিতি, আর বাকি সময় আমরা শিখি। তোমরা আমাদের ছেড়ে যেও না। আমরাও প্রতিজ্ঞা করলাম, তোমাদের কখনও ছেড়ে যাব না। এখন থেকে সব সময়...।"

প্রথম দুই টেস্টে বিজয়-কার্তিকদের ব্যর্থতার পর এবার দাবি উঠছে ঋষভ পন্থ, করুণ নায়ারদের খেলানোর। বুধবার থেকে পুরোদমে অনুশীলনে নেমে পড়ার কথা টিম ইন্ডিয়ার। আসলে জেমস অ্যান্ডারসন, স্টুয়ার্ট ব্রড, স্যাম কুরানদের সামনে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের বড় অসহায় দেখাচ্ছে। ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্টে সফল হতে হলে ওপেনারদের শুরুটা ভালো করতে হবে বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। আর এই কাজটাই এখনও করে উঠতে পারেননি ভারতীয় ওপেনাররা। ফলে নতুন বলে মিডল অর্ডারে চাপ পড়ে যাচ্ছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।


আরো সংবাদ